শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১, ০৫:৫৪ পূর্বাহ্ন

অনন্ত হত্যা মামলায় সিলেটে তদন্ত কর্মকর্তার সাক্ষ্য গ্রহণ

অনন্ত হত্যা মামলায় সিলেটে তদন্ত কর্মকর্তার সাক্ষ্য গ্রহণ


শেয়ার বোতাম এখানে

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক:
ব্লগার অনন্ত বিজয় দাশ হত্যা মামলায় সাক্ষ্য প্রদান করেছেন তদন্ত কর্মকর্তাসহ দু’জন । আজ রবিবার দুপুরে সিলেটের অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ মমিনুন নেসা তাদের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন।

আদালতে সাক্ষ্য প্রদান করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক নুরুল আলম এবং সাংস্কৃতিক সংগঠক রজতকান্তি গুপ্ত।

মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবী এডভোকেট এমাদউল্লাহ শহীদুল ইসলাম শাহীন জানান, আজ দু’জনসহ অনন্ত হত্যা মামলায় এ পর্যন্ত ৯ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়েছে। এ মামলায় ২৯ জনকে সাক্ষী করে আদালতে চার্জশিট দিয়েছিল সিআইডি।

তিনি জানান, পরবর্তী সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য আদালত ১ অক্টোবর তারিখ ধার্য করেছেন।

প্রসঙ্গত, সিলেট নগরীর সুবিদবাজারে নিজ বাসার অনতিদূরে ২০১৫ সালের ১২ মে অনন্ত বিজয় দাশকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় তার বড় ভাই রত্নেশ্বর দাশ বাদী হয়ে নগরীর বিমানবন্দর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। তবে মামলায় আসামিরা ছিল অজ্ঞাত। অনন্ত পূবালী ব্যাংকের জাউয়াবাজার শাখায় কর্মরত ছিলেন।

পরবর্তীতে ২০১৭ সালের ৮ মে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) ৬ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট (অভিযোগপত্র) দাখিল করে। অভিযুক্তরা হলেন সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার ফালজুর গ্রামের আবুল হোসেন ওরফে আবুল হুসাইন (২৫), খালপাড় তালবাড়ির ফয়সল আহমেদ (২৭), সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার বিরেন্দ্রনগর (বাগলী) গ্রামের হারুন অর রশিদ (২৫), কানাইঘাটের পূর্ব ফালজুর গ্রামের মান্নান ইয়াহইয়া ওরফে মান্নান রাহি ওরফে মান্নান ইয়াহিয়া ওরফে ইবনে মইন (২৪), ফালজুর গ্রামের আবুল খায়ের রশিদ আহমদ (২৪) এবং সাফিউর রহমান ফারাবী ওরফে ফারাবী সাফিউর রহমান (৩০)।

অভিযুক্তদের মধ্যে মান্নান ইয়াহিয়া কারাগারে অসুস্থ হয়ে মারা যান। ফারাবী ও রশিদ কারান্তরীণ, বাকিরা পলাতক।

২০১৭ সালের ২৩ মে মামলায় অভিযোগ গঠন করেন আদালত। চলতি বছরের ৭ মে শুরু হয় সাক্ষ্য গ্রহণ কার্যক্রম।



শেয়ার বোতাম এখানে

সমস্ত পুরানো খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  



themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin