সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১, ০৭:৪৪ অপরাহ্ন

অনলাইন ভিত্তিক শপিং-ফ্যাস্টিভ্যালে জমজমাট সিলেটে রমজান মাস

অনলাইন ভিত্তিক শপিং-ফ্যাস্টিভ্যালে জমজমাট সিলেটে রমজান মাস


শেয়ার বোতাম এখানে

স্টাফ রিপোর্টার : 
সময়টাই এখন অনলাইনের। তথ্যপ্রযুক্তির সর্বোৎকৃষ্ট সময়ে বাংলাদেশে অনলাইনে  নানা ব্যবসা বাণিজ্য দ্রুত জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। ব্যতিক্রম নয় আধ্যাত্মিক নগরী সিলেট।  অনলাইন ব্যবসার প্রসার ঘটছে এখানেও। সেই সাথে নতুন নতুন উদ্যোক্তাও সৃষ্টি হচ্ছে।
এবার ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে সিলেট নগরীতে মোট ৫টি অনলাইন ভিত্তিক শপিং ফ্যাস্টিভ্যাল অনুষ্ঠিত হয়েছে। এরমধ্যে একটি এখনো চলছে।
আগামীতে যে গতানুগতিক মার্কেট কেন্দ্রিক ব্যবসায়ীদের জন্য অনলাইন ব্যবসায়ীরা হুমকি হয়ে উঠতে পারেন, একমাসে ৫টি ইভেন্টের আয়োজন ও সাফল্য কিন্তু তেমন ইঙ্গিতই দিচ্ছে।
বাংলাদেশের প্রধান ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর। এই উৎসবকে কেন্দ্র করে পোশাক বেঁচাকেনা হয় সবচেয়ে বেশি। ক্রেতাদের এই চাহিদার কথা মাথায় রেখে অনলাইন ব্যবসায়ীরা শপিং ফেস্টিভ্যালগুলোর আয়োজন করছে। মার্কেট বা শপিংমলগুলো থেকে আলাদা এবং মনোমুগ্ধকর পরিবেশে কেনাকাটার সুযোগ থাকায় এসব ইভেন্ট ক্রেতাদের আকৃষ্ট করছে।
এই রমজানে ৫টি শপিং ফেস্টিভ্যাল হয়েছে সিলেটে। এর প্রত্যেকটিতেই প্রচুর ক্রেতাসমাগম হয়েছিল এবং বিক্রিও প্রত্যাশা ছাড়িয়েছে বলে জানিয়েছেন অংশগ্রহনকারীরা।
হোটেল নুরজাহান গ্র্যান্ডে আয়োজিত গ্র্যান্ড ইদ-উল-ফিতর শপিং ফেস্টিভ্যাল ছিল সবচেয়ে বড় ফ্যাস্টিভ্যাল। ইউ কে প্রোডাক্টস ৬৯ অনলাইন শপের আয়োজনে এই ফ্যাস্টিভ্যাল শুরু হয় ২০ মে। ৫ দিন জমজমাট ব্যবসার পর তা শেষ হয় ২৪ মে।
ক্রেতাদের চাহিদা থাকায় এমন আয়োজনের সংখ্যা দিনদিন বাড়ছে। তাছাড়া কেনাকাটায় অনেক সুবিধাও পাচ্ছেন তারা। তাই দ্রুত এজাতীয় আয়োজন জনপ্রিয়ও হচ্ছে-এমন মতামত হোটেল নুরজাহান গ্র্যান্ডে আয়োজিত গ্র্যান্ড ইদ-উল-ফিতর শপিং ফেস্টিভ্যালের আয়োজক ইশতিয়াক মাহমুদের।
এর আগে ১৬, ১৭ ও ১৮ মে পানশি-ইন হোটেলে  গ্ল্যামারাস ঈদ শপিং কার্ণিভালের আয়োজন করে অনলাইন ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট হাউজ গ্ল্যামারাস ইভেন্ট।
৯ থেকে ১২মে  টারকুইজ অনলাইন শপ হোটেল নুরজাহান গ্র্যান্ডে আয়োজন করেছিল গ্র্যান্ড- ঈদ-শপিং ফেস্ট। এদুটি আয়োজনও যথারীতি সফল ছিল বলে  জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।
গত ২৫ মে থেকে নগরীর সুবিদবাজারস্থ খান’স প্যালেস কনভেনশন হলে চলছে টারকুইজ অনলাইন শপ আয়োজিত ইফতার ও সেহেরী নাইট-ঈদ ফেস্টিভ্যাল।
তিনদিনের এ আয়োজনে  থাকছে দেশ-বিদেশের নামিদামি সব অনলাইন ব্র্যান্ডেড হাউজের নানা পণ্যের সমাহার। পাশাপাশি এখানে ক্রেতাদের ইফতার ও সেহরি খাবারের ব্যবস্থাও রাখা হয়েছে।
অনলাইন ফেস্টিভ্যাল আয়োজন ও এর সাফল্যের ব্যাপারে কথা হয় টারকুইজ অনলাইন শপের প্রতিষ্ঠাতা ও সিলেটের  সর্বোচ্চ ইভেন্টের আয়োজক সায়না চৌধুরীর সাথে।
ক্রেতাদের পাশাপাশি ক্ষুদ্র পুঁজির অনলাইন ব্যবসীরাও এতে লাভবান হচ্ছেন বলে মতামত দিলেন তিনি।
তার বক্তব্য এরকম,  তুলনামূলক সাধ্যের মধ্যে মানসম্মত, দেশী-বিদেশী পণ্য ক্রেতাদের নাগালে চলে আসে। এসব ফ্যাষ্টিভ্যালে তাদের চাহিদা মতো পণ্য  পাওয়া যাচ্ছে বলেই দ্রুত এজাতীয় ফ্যাষ্টিভ্যালগুলো জনপ্রিয়তা অর্জন করছে।
বেশিবেশি আয়োজন হলে এসব ফেস্টিভ্যালের মান গতানুগতিক হয়ে যেতে পারে! সিলেটভিউর সাথে আলাপকালে এমন শঙকার কথাও জানালেন সায়না চৌধুরী।
অনলাইন ভিত্তিক এসব ফেস্টিভ্যাল এখন সিলেটের বানিজ্যিক ক্ষেত্রে নতুন সংযোজন। বলা যায় নতুন সংস্কৃতিও। এমন আয়োজন সাধারণ মানুষের কাছে জনপ্রিয়ও হয়ে উঠছে। তবে তা মধ্য ও উচ্চবিত্তের কাছে।  গত কয়েকবছর থেকে সিলেটে এমন আয়োজন হলেও এবারই হয়েছে সবথেকে বেশি। সাফল্যও এসেছে প্রত্যাশা মতো। আগামীতে আরো বড় আয়োজনের প্রত্যাশার কথাও জানালেন সিলেটের অনলাইন ব্যবসার সাথে জড়িতরা।


শেয়ার বোতাম এখানে

সমস্ত পুরানো খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  



themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin