রবিবার, ০৭ মার্চ ২০২১, ১২:৩৪ অপরাহ্ন

অবশেষে টনক নড়ল সিসিক মেয়রের

অবশেষে টনক নড়ল সিসিক মেয়রের


শেয়ার বোতাম এখানে

স্টাফ রিপোর্ট:

ফেসবুকের এক স্টাটাসে অবশেষে টনক নড়লো সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর। গতকাল সিলেট জেলাবারের জনপ্রিয় আইনজীবী ও নগরীর ২৫ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা এডভোকেট তাজ উদ্দিন নগরীর সমস্যা সম্ভাবনা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে তাঁর ২৫ নম্বর ওয়ার্ডের সমস্যা ও সম্ভাবনার কথা তুলে ধরলে মমুহুর্তেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অনেক আলোচনা সমালোচনার ঝড় ভয়ে যায়। নানান মতামত প্রতিক্রিয়া ব্যাপক যুক্তিযুক্ত মতামত ও প্রতিক্রিয়া আসতে থাকে। এ তুমুল আলোচনায় শুভপ্রতিদিনের অনলাইন ভার্সনে ও  গতকাল রাতে ফলাও করে রিপোর্ট করা হয়। এ ব্যাপারে আইনজীবী তাজ উদ্দিন বলেন, সমস্যা আমার একার নয়? সমস্যা সবার তাই বিষয়টি তুলে ধরার চেষ্টা করেছিলাম। ফলে রাত পোহালেই মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর ফোন পেলাম। তিনি বললেন, সকালে ঘুম থেকে উঠেই আমি খোলা চিঠি পেয়েছি। ২৫ নং ওয়ার্ডে যাতে কীটনাশক ছিটানো হয় তার ব্যবস্থা আমি এক্ষুনি নিচ্ছি।
আসলে, আমি ধন্যবাদ জানাই মাননীয় মেয়র, মহোদয় কে।  করোনাভাইরাসে র এই দূর্যোগকালে সাড়া দেবার জন্য আমি ২৫ নং ওয়ার্ডবাসীর পক্ষ থেকে ধন্যবাদ ও কৃতৃজ্ঞতা জানাতে কৃপণতা করবো না।
প্রসঙ্গত: গতকাল রাতে যে সংবাদের জন্য মেয়র আরিফর টনক নড়লো সেটা পাঠকের জন্য আবারো তুলে ধরা হলো।

দৈনিক শুভপ্রতিদিন ও তার ফেসবুকের চুম্বক অংশ তুলে ধরা হলো।
একটি সুস্থ ও পরিচ্ছন্ন নগরে বসবাস করা প্রতিটি নাগরিকের চাওয়া। বাস্তবতা ও প্রয়োজনের তাগিদেই বেড়ে ওঠে একেকটি শহর ও নগর। নতুন কর্মসংস্থানের সন্ধানে মানুষ গ্রাম থেকে নগর তথা শহরের দিকে ছুটে চলে। সুতারাং এই যখন বাস্তবতা তখন,সিলেট নগরবাসীর সমস্ত উন্নয়ন ও কর্মসংস্থান শহর
কেন্দ্রিক হওয়ায় সিলেট মহানগরী এখন জনসংখ্যার ভারে মুহ্যমান একটি মহানগরী।

সীমিত সম্পদ ও সীমাবদ্ধতার মধ্য সিলেট বেড়ে ওঠা। প্রায় কোটির মতো মানুষের বসবাস এ শহরে। এ বিপুল জনসংখ্যার চাপে সিলেট এখন দূষণ ও অপরিচ্ছন্ন নগরীতে পরিণত হয়েছে বলে জানিয়েছেন নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ডের বাসিন্দারা।
আর বিশিষ্টজনেরা মনে করছেন পরিচ্ছন্ন ও দূষণমুক্ত সিলেট এখন প্রায় দিবাস্বপ্ন।
আর তা নিয়ে সিলেট জেলাবারের বিশিষ্ট আইনজীবি ও নগরীর ২৫ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের পক্ষে গতকাল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর
সুদৃষ্টি কামনা করে স্টাটাস দেন অ্যাডভোকেট তাজ উদ্দিন তার ঔই স্টাটাসের সাথে সাথে
ব্যাপক আলোচনা সমালোচনার ঝড় ওঠেছে।
অ্যাডভোকেট তাজ উদ্দিন তার খোলা ছিঠিতে বলেন, মাননীয় মেয়র মহোদয়,
সিলেট সিটি কর্পোরেশনের,
আমি একজন নিয়মিত করদাতা। আমার বাড়িতে পানির সংযোগ নেই।
আমার বাড়ির রাস্তায় স্ট্রিট লাইট নেই।
আমার বাড়ির সামনে পেছনে এখনো খোলা ড্রেন।
আমার বাড়ির পাশে আশপাশের লোকজন রাস্তার পাশে আবর্জনা ফেলে ময়লার ভাগাড় বানিয়েছে, যা সিটি করপোরেশন কোনদিন পরিস্কার করেনি।
আমার বাড়ির পাশে রাস্তা খুড়ে মরুভূমির মত ধুলি ধুসরিত করে রেখেছেন মাসের পর মাস, বার বার অনুরোধ সত্তেও পানি ছিটাননি।
বাস টার্মিনালের সকল বাস ও ট্রাক টার্মিনালের সকল ট্রাক এনে আমার চলাচলের রাস্তা দখল করে রেখেছেন।
কোন নাগরিক সুবিধা আমি পাইনি, তার পরও আমি নিয়মিত কর দিয়ে যাচ্ছি- যার পরিমাণও একেবারে কম নয়।
বিগত দেড় দশকে আমি শুধু দিয়েই গেছি- কিছু চাইনি।
এবার চাচ্ছি-
তাও বড় কিছু নয়।
করোনা পরিস্থিতিতে অন্ততঃ আমার বাড়ির আশপাশে একটু কীটনাশক ছিটানোর ব্যবস্থা করুন।
আমি আপনার দফতরে ধর্না দিয়ে ব্যর্থ হয়ে এই খোলা চিঠি লিখলাম।
-২৫ নং ওয়ার্ডবাসী আমি একজন নাগরিক



শেয়ার বোতাম এখানে

সমস্ত পুরানো খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  



themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin