শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ০৫:৩৭ পূর্বাহ্ন



অভাবী মানুষের কাছে ত্রাণ-অর্থ পৌঁছে দিচ্ছে “রিলিফ ইন রেসপন্স টু কভিড-১৯”

অভাবী মানুষের কাছে ত্রাণ-অর্থ পৌঁছে দিচ্ছে “রিলিফ ইন রেসপন্স টু কভিড-১৯”


শুভ প্রতিদিন ডেস্ক: করোনায় রাজধানী ঢাকাসহ দেশজুড়ে ‘লকডাউন’ ও অর্থনৈতিক কর্মকান্ড বন্ধ থাকায় অর্থাভাবে পড়েছেন অনেক মানুষই। বিশেষ এ সময়ে খাদ্য সংকট নিন্মবিত্ত ছাড়িয়ে মধ্যবিত্তকেও ছুঁয়েছে।

এ অবস্থায় দরিদ্রদের অনেকেই সরকারি ত্রাণ সুবিধা পেলেও লজ্জায় নিজেদের কথা জানাতে পারে না মধ্যবিত্তরা। তাই দরিদ্র ও মধ্যবিত্ত উভয় শ্রেনীর জন্যই ত্রাণ সহযোগিতা নিয়ে এগিয়ে এসেছে ‌‌‘রিলিফ ইন রেসপন্স টু কভিড-১৯’।

 

এ কার্যক্রমের উদ্যোক্তা ব্যাংকার শামীম আহমেদ বলেন, ‘ফেসবুকের মাধ্যমে আমরা দুইভাবে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করছি। ঢাকা সিটির মধ্যে যারা আছেন তাদের কাছে সরাসরি খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেয়ার চেষ্টা করছি। আর ঢাকার বাইরে যারা আছেন তাদের কাছে টাকা পাঠিয়ে দিচ্ছি। আমরা এ পর্যন্ত ৫০ পরিবারকে নগদ অর্থ সহায়তা দিয়েছি, ১৫০ পরিবারকে খাদ্যপণ্য দিয়েছি এবং ২৫ পরিবারের মাঝে সবজি বিতরণ করেছি। ’

 

তিনি জানান, ইফতারিসহ খাবার প্যাকেটও তারা বিতরণ করছেন। নিম্নআয়, দিনমুজুর, রিক্সাচালক, এটিএম বুথ সিকিউরিটি গার্ডরা আমাদের এই খাদ্য বিতরণ কর্মসূচীতে অর্ন্তভুক্ত আছে। জানান, কিছু বন্ধু, সহকর্মী, প্রবাসী  ও সংগঠন পাশে রয়েছেন।

 

যারা আর্থিকভাবে ও শ্রম দিয়ে সহযোগিতা করছেন। যেমন – করোনা মোকাবেলায় আমরা বাংলাদেশ, বিদ্যানন্দ। বন্ধুদের মধ্যে উল্লেখযোগ্যভাবে সহযোগিতা করছেন মোহাম্মদ ফারুক ও মোজাক্কের।

 

তিনি বলেন, ‘ত্রাণের সহযোগিতায় বেশিরভাগ অনুরোধ এসেছে ফেসবুক বন্ধুদের কাছ থেকে এবং আমাদের পেইজ থেকে। ’ ত্রাণ বিতরণ করতে গিয়ে বিচিত্র সব অভিজ্ঞতার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘ঢাকার মিরপুরে এক পরিবারে বাবা-মা তাদের নিজের দুই কন্যা সন্তানকে ফেলে অন্যত্র চলে গেছে। অর্থের অভাবে মা তার বাচ্চাকে দুধ খাওয়াতে পারছে না। মধ্যবিত্ত পরিবার খাদ্য সংকটে পড়েছে। কারো কাছে হাত পেতে কিছু চাইতেও পারছেনা। ’

শামীম আহমেদ জানান, অসহায় বিধবা অথবা মধ্যবিত্ত পরিবারের কেউ খাদ্য সংকটে পড়ে থাকলে যোগাযোগ করতে। তাহলে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেয়া হবে। তার ইমেইল-

[email protected]। ফেসবুক আইডি www.facebook.com/helphandsbd


সমস্ত পুরানো খবর




themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin