শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ১০:৪৫ পূর্বাহ্ন


আজ মঙ্গলবার কানাইঘাট মুক্ত দিবস

আজ মঙ্গলবার কানাইঘাট মুক্ত দিবস


শেয়ার বোতাম এখানে

কানাইঘাট প্রতিনিধি: আজ ৪ ডিসেম্বর, মঙ্গলবার কানাইঘাট মুক্ত দিবস। উক্ত দিবস উপলক্ষে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহন করেছে কানাইঘাট উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড। ১৯৭১ সালের ২৬ শে মার্চ থেকে শুরু করে দীর্ঘ ৯ মাস রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মাধ্যমে ডিসেম্বর মাসেই অর্জিত হয় লাল সবুজের পতাকা। আমরা পাই স্বাধীন বাংলাদেশ। ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে ৩০ লাখ শহীদের রক্ত আর ২ লাখ মা-বোনের সম্ভ্রমের বিনিময়ে অর্জিত হয়েছে এ স্বাধীনতা। ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় ৪নং সেক্টর কমান্ডার ছিলেন মেজর সিআর দত্ত, সাব সেক্টর কমান্ডার ছিলেন মাহাবুবুর রব সাদী, টু-আইসি ছিলেন খাজা নিজাম উদ্দিন ভুইয়া, গ্র“প ক্যাম্প কমান্ডার ছিলেন মুন্সিগঞ্জ-টঙ্গিবাড়ী উপজেলার বাসিন্ধা আ. রউফ মোল­া। তারা সহ আরো অনেকে ১৯৭১ সালে কানাইঘাটে অবস্থান করে মহান মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন।

 

১৯৭১ সালের আগষ্ট- সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হয় কানাইঘাটের মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে পাক বাহীনির সম্মূখ যুদ্ধ। আর সেই যুদ্ধে অংশ নিয়েছিল কানাইঘাটের স্থানীয় ৩ শতাধিক বীর মুক্তিযোদ্ধা। তারা মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়ে পাক হানাদারদের সাথে সম্মূখ যুদ্ধে মোকাবেলা করে। এতে ১৯৭১ সালের ৪টা সেপ্টেম্বর কানাইঘাটের নক্তিপাড়া গ্রামের কালাহাজীর বাড়ীতে থাকা মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে একই এলাকার কটালপুর ব্রীজ ধবংস করতে গিয়ে পাক বাহীনির হাতে শহীদ হন কুমিল­ার ভ্রাম্মনপাড়া উপজেলার মালাপাড়া গ্রামের মরহুম আব্দুল লতিফ ভূইয়ার পুত্র খাঁজা নিজাম উদ্দিন ভুইয়া। শহীদ খাজা নিজাম উদ্দিন ভুইয়া “বীর উত্তম” এর কবর কমপ্লেক্স কানাইঘাটের লক্ষীপ্রসাদ পূর্ব ইউপির বড়খেয়ড় গ্রামে রয়েছে।

 

এছাড়া ১৯৭১ সালের ২৬ নভেম্বর পাক সেনাদের সাথে কটালপুর এলাকায় সম্মূখ যুদ্ধে শহীদ হন দিনাজপুর জেলার কুতুয়ালী সদর থানার কালিতলা গ্রামের মরহুম তছির উদ্দিনের পুত্র ক্যাপ্টিন মাহবুবুর রহমান। শহীদ ক্যাপ্টিন মাহবুর রহমান ‘বীর উত্তমে’ এর কবর কমপ্লেক্স দিঘীরপার পূর্ব ইউপির সাতবাঁক ঈদগাহ কবরস্থানে রয়েছে। এছাড়া কানাইঘাটের চাপনগর এলাকায় পাক-বাহীনির সাথে সম্মূখ যুদ্ধে ১৯৭১ সালের ২ ডিসেম্বর শহীদ হন ফরিদপুর জেলার বাসিন্ধা বিএইচএম আব্দুল হাকিম। শহীদ আব্দুল হাকিমের কবর কমপ্লেক্স কানাইঘাটের সাতবাঁক ইউপির কুওরের মাটিতে রয়েছে। এছাড়া ১৯৭১ সালের ১লা সেপ্টেম্বর পাক বাহিনীর জল­াদ ক্যাপ্টিন বশারতের হাতে বড়চতুল ইউপির মালিগ্রামের ২৪ জন গ্রামবাসী শহীদ হয়েছিলেন। সেই শহীদদের গণ কবর কানাইঘাটের বিষ্ণুপুর ব্রীজের পার্শ্বে রয়েছে।


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin