সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:৪৬ পূর্বাহ্ন


আতঙ্ক’র ১৭ আগস্ট: সিরিজ বোমা হামলার ১৫ বছর আজ

আতঙ্ক’র ১৭ আগস্ট: সিরিজ বোমা হামলার ১৫ বছর আজ


শেয়ার বোতাম এখানে

শুভ প্রতিদিন ডেস্ক:
দেশব্যাপী সিরিজ বোমা হামলার ১৫ বছর আজ। ২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট জামআতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশ (জেএমবি) নামের একটি জঙ্গি সংগঠন পরিকল্পিতভাবে দেশের ৬৩ জেলায় একই সময়ে বোমা হামলা চালায়। সিলেটের ২৯ টি পয়েন্টসহ সব জেলায় প্রায় ৫০০ পয়েন্টে বোমা হামলায় দু’জন নিহত ও অন্তত ১০৪ জন আহত হন।

বোমা হামলায় সিলেটের দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক বিপ্লব গোস্বামী এবং তার গাড়ি চালক, বিচারপ্রার্থী জনগন, নার্সারি মালিক, পথচারীসহ ১৫ জন আহত হন। ৪ জেলায় মামলা হয় ২৯ টি।  কিছু মামলা আদালতে এখনও বিচারাধীন রয়েছে। তাছাড়া সুনামগঞ্জের একটি মামলায় দুজন জঙ্গিকে ১০ বছর করে কারাদণ্ড দেয়া হয়।

আদালত ও সংশ্লিষ্ট থানা সূত্রে জানা গেছে, ২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট জেএমরি জঙ্গিরা সারাদেশের মতো সিলেটে ১৩টি, সুনামগঞ্জে পাঁচটি, হবিগঞ্জে পাঁচটি ও মৌলভীবাজারে পাঁচটিসহ মোট ২৯টি এলাকায় বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়। বোমা বিস্ফোরণের শব্দে কেঁপে ওঠে সিলেট। প্রতিটি বোমা হামলার ঘটনায় বিশেষ ক্ষমতা ও বিস্ফোরক আইনে পৃথক মামলা করে পুলিশ।

সুনামগঞ্জে দায়ের করা ছয় মামলার মধ্যে একটি মামলার রায়ে আদালত দুজন জঙ্গিকে ১০ বছর করে কারাদণ্ড দেন। অন্য মামলাগুলো এখনো বিচারাধীন বলে জানা গেছে।

২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট সকাল ১১টা ১৫ মিনিটে সিলেট নগরের কোর্ট এলাকা, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সিঁড়ির নিচ, শাহী ঈদগাহ, নয়াসড়ক, কদমতলী বাস টার্মিনাল, লামাবাজারের একটি নার্সারিসহ ১৩টি এলাকায় বোমা বিস্ফোরণ ঘটায় জঙ্গিরা।

সিলেটের কদমতলী বাস টার্মিনাল এলাকায় হামলার ঘটনায় দায়েরকৃত বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলার চার্জগঠন হয় ২০১৪ সালের ২৭ মে।

এদিকে দেশব্যাপী সিরিজ বোমা হামলার ঘটনায় হবিগঞ্জের পাঁচটি স্থানে বিস্ফোরণের ঘটনায় দায়ের করা মামলাগুলো হবিগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ও বিশেষ ট্রাইব্যুনাল-২ এ বিচারাধীন।২০১৪ সালের ৩ জুন থেকে মামলাগুলোর বিচারকাজ শুরু হয়।

১৭ আগস্ট একইভাবে মৌলভীবাজার জেলার পাঁচটি স্থানে বোমা হামলার ঘটনায় পৃথকভাবে দায়ের করা মামলাগুলো এখন মৌলভীবাজারের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতে বিচারাধীন। ২০১৪ সালের ৩ জুলাই থেকে বিচার কাজ শুরু হয়।

আতঙ্ক জাগানিয়া এই সিরিজ বোমা হামলা মামলায় সিলেটে জেএমবির সূরা সদস্য আবদুল আজিজ ওরফে হানিফ ও সায়েদুল ইসলাম ওরফে হৃদয়, হবিগঞ্জের পাঁচ মামলার আসামি জেএমবির শীর্ষ জঙ্গি সাইদুর রহমান, সূরা সদস্য আবদুল আজিজ হানিফ ওরফে আজিজুল ইসলাম, সালাউদ্দিন ওরফে সালেহীন, এএইচএম শামীম, বেলাল হোসেন তানিম, ওবায়দুল্লাহ ওরফে সুমন ওরফে হাফেজ হুজাইফা। মৌলভীবাজারে পাঁচ মামলায় আসামি জেএমবি সদস্য আবদুল্লাহ আল মুরাদ ও কামাল উদ্দিন’র নিম উল্লেখ করে মামলা দাখিল করা হয়েছিল।

পুলিশ জানায়, ২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট সিরিজ বোমা হামলার ঘটনায় সারাদেশে ১৫৯টি মামলার মধ্যে ৯৪টি মামলার বিচার সম্পন্ন হয়েছে। এসব মামলায় ৩৩৪ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেয়া হয়েছে। এখন ৫৫টি মামলা বিচারের অপেক্ষায় রয়েছে। যার আসামি সংখ্যা হচ্ছে ৩৮৬ জন।

এই সিরিজ বোমা হামলার রায় প্রদান করা মামলাগুলোর ৩৪৯ জনকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। আসামিদের মধ্যে ২৭ জনের বিরুদ্ধে ফাঁসির রায় দেয়া হয়। এরমধ্যে ৮ জনের ফাঁসি কার্যকর করা হয়েছে। এসব মামলায় খালাস পেয়েছে ৩৫৮ জন আর জামিনে রয়েছে ১৩৩ জন আসামি ।


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin