বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ০২:০৪ অপরাহ্ন



এবার অনলাইন ক্লাস বর্জন করেছে শাবিপ্রবির ২০১৭-১৮ সেশনের শিক্ষার্থীরা

এবার অনলাইন ক্লাস বর্জন করেছে শাবিপ্রবির ২০১৭-১৮ সেশনের শিক্ষার্থীরা


শাবিপ্রবি প্রতিনিধি:

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের পর এবার চলমান অনলাইন ক্লাস বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের সকল বিভাগের শিক্ষার্থীরা। শুক্রবার সন্ধ্যায় ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের পক্ষে মোঃ হাসিবুর রহমান, আবু সাঈদ মোঃ এহসান, নাঈম সরকার, তাহসিন তামান্না নদী, মোঃ সায়েম খন্দকার ও ইফতেখার আহমেদ রানা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে শিক্ষার্থীরা উল্লেখ করেন , দেশের বিভিন্ন প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে নিজেদের মেধার ভিত্তিতে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার  সুযোগ পেয়েছে শিক্ষার্থীরা। কিন্তু বর্তমানে তারা তাদের পরিবারের সাথে অবস্থান করছে। বাংলাদেশে এখনও অনেক অঞ্চল আছে যেখানে  3G/4G নেটওয়ার্ক পাওয়া যায় না। যার ফলে নেটওয়ার্ক স্বল্পতার কারণে অনেকে অনলাইন ভিত্তিক শিক্ষা কার্যক্রমে অংশ নিতে পারতেছে  না।

শিক্ষার্থীরা বিজ্ঞপ্তিতে আরো উল্লেখ করেন, আমাদের মধ্যে অনেক শিক্ষার্থী স্বাবলম্বী নয়। যার ফলে অনেকে ভালো নেটওয়ার্কের মধ্যে থেকেও অনলাইনে ক্লাস করতে পারছে না। এছাড়া অনেক অস্বচ্ছল শিক্ষার্থীকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাহায্য দেওয়া হয়েছে। এরকম পরিস্থিতিতে ইন্টারনেটের জন্য অর্থ খরচ করা অনেকের জন্যই সম্ভবপর নয়। এই অবস্থায় অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হওয়া মানে এসব শিক্ষার্থীদের শিক্ষার অধিকার থেকে বঞ্চিত করা ছাড়া আর কিছুই নয় বলে মনে করেন শিক্ষার্থীরা।

এছাড়া  ধীরগতির নেটওয়ার্কের বিকল্প হিসেবে ক্লাসের পর, ভিডিও এবং মেটেরিয়ালস গুলো দিয়ে দেওয়া যেতে পারে। কিন্তু রেকর্ডেড ক্লাস ডাউনলোড করে দেখতে লাইভ ক্লাসের থেকেও অতিরিক্ত ডাটা খরচ হয়। আবার যারা খারাপ নেটওয়ার্কে থাকে তারা রেকর্ডেড ক্লাস ডাউনলোড করতেও সমস্যার মুখোমুখি হয়। এছাড়াও রেকর্ডেড ক্লাসে শিক্ষার্থীদের কোন ধরনের প্রশ্ন থাকলে তা করার কোনো সুযোগ থাকে না। ফলে তা সরাসরি ক্লাসের মত ফলপ্রসূহবে না।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, যারা ক্লাস নিচ্ছেন তার অনালাইনে ক্লাস নেওয়ার জন্য প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত না। তাদের জন্য হঠাৎ করে অনলাইনে ক্লাস নেওয়া বড় একটি চ্যালেঞ্জ। ছাত্রছাত্রীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর শিক্ষকদের লিখে বুঝিয়ে দেওয়ার মতো টুল থাকলেও পূর্ব প্রশিক্ষণ না থাকার দরূণ অনেক শিক্ষকের পক্ষে অনলাইন ক্লাসে এসব টুল ব্যবহার করা সম্ভব হয়ে ওঠে না। ফলে তারা শুধু অনলাইন ক্লাসে বই অথবা স্লাইড দেখে যা পড়েন, শিক্ষার্থীদের তাই শুনতে হয়। এভাবে শিক্ষাদান শিক্ষার্থীদের ক্ষতি ছাড়া তেমন কোন উপকারে আসবে না বলে মনে করেন তাঁরা।

শিক্ষার্থীদের মতে, প্রতিটি অনলাইন ক্লাসে ৬০-৭০ জন শিক্ষার্থী অংশ নেয়। ফলে শিক্ষার্থীদের মাঝে কথোপকথনে সমস্যা এবং নেটওয়ার্ক এর ধীরগতির জন্য প্রচুর পরিমান নয়েজ তৈরি হয় যা ক্লাসের মনোযোগ, পরিবেশ ও মান নষ্ট করে।


সমস্ত পুরানো খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  



themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin