শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:০১ অপরাহ্ন


এমপির গাড়িতে হামলার তিনদিনেও প্রতিবাদ করেননি নেতারা : কমিটি স্থগিত!

এমপির গাড়িতে হামলার তিনদিনেও প্রতিবাদ করেননি নেতারা : কমিটি স্থগিত!


শেয়ার বোতাম এখানে

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি: প্রায় আটমাস আগে ‘গণফোরাম’ ৩২ সদস্যের সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলায় আহবায়ক কমিটি গঠন করেন স্থানীয় এমপি মোকাব্বির খান। আর এতে আহবায়ক দেন তার নিকটাত্মীয় উপজেলার চাঁন্দশীরকাপন গ্রামের বাসিন্দা নিজাম উদ্দিনকে। সদস্য সচিব করেন তার গাড়িতে হামলার ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার প্রধান আসামী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক শামীম আহমদের সমন্ধি তরিকুল ইসলামকে। কিন্তু দীর্ঘ ৮মাসে ওই কমিটির কোন তৎপরতা দেখা যায়নি।

এমনকি গত ১০আগষ্ট স্থানীয় এমপি মোকাব্বির খানের গাড়িতে হামলার তিনদিনেও কোন নিন্দা, বিবৃতি কিংবা প্রতিবাদও করেননি গণফোরাম বিশ্বনাথ উপজেলা কমিটির নেতারা। আর সেজন্য ওই আহবায়ক কমিটি গঠনের ৮মাস পেরুবার আগেই গতকাল বুধবার ওই কমিটির সকল কার্যক্রম স্থগিত ঘোষনা করা হয়।

অভিযোগ উঠেছে, ঘটনার পর থেকে এমপি মোকাব্বির খান আওয়ামী লীগ নেতা শামীম আহমদের নাম প্রকাশ করা এবং তার এপিএস অসিত রঞ্জন দেবের দায়ের করা মামলায় শামীম আহমদকে প্রধান আসামি করায় গণফোরামের সদস্য সচিব তরিকুল ইসলাম সাংগঠনিকভাবে কোন পদক্ষেপ নেন নি।

এপ্রসঙ্গে জানতে চাইলে সিলেট জেলা গণফোরামের আহবায়ক অ্যাডভোকেট আনসার খাঁন বলেন, কমিটিতে ভেজাল আছে। কেন্দ্রের নির্দেশে বুধবার দুপুর থেকে পরবর্তি নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত বিশ্বনাথ উপজেলা গণফোরামের সকল কার্যক্রম স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে।

কি কারণে স্থগিত করা হয়েছে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, কমিটি গঠনের পর থেকে এ পর্যন্ত কোন কার্যক্রমই দেখা যায়নি। তাছাড়া গণফোরামের প্রেসিডিয়াম সদস্য সিলেট-২ আসনের এমপি মোকাব্বির খানের গাড়িতে হামলার ঘটনার তিনদিনেও ‘বিশ্বনাথ গণফোরাম’ নেতারা প্রতিবাদ তো দুরের কথা কোন বিবৃতিই দেননি। যে কারণে ওই কমিটির কার্যক্রম স্থগিত ঘোষনা করা হয়েছে।

কিন্তু, এব্যাপারে জানতে চাইলে উপজেলা গণফোরামের আহবায়ক ও এমপির সম্বন্ধি নিজাম উদ্দিন কমিটি স্থগিতের বিষয়টি স্বীকার করলেও তিনি কোন বক্তব্য দিতে রাজি হননি।

তবে,  আহবায়ক কমিটির সদস্য সচিব তারিকুল ইসলাম তাদের কমিটির উপর আনিত অভিযোগ মিথ্যা দাবি করে বলেন- এমপি মোকাব্বির খান আমাদের এই কমিটিকে সব সময়ই অস্বীকার করে আসছেন। তিনি আমাদেরকে অবগত না করে বিশ^নাথে প্রবেশ করেন প্রতিনিয়ত। এভাবে হামলার দিন গত ১০ আগস্ট বিশ^নাথ উপজেলা মাসিক আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় যোগ দিতে গেলেও আমাদের কমিটিকে অবহিত করেন নি। তারপরেও ওই হামলার ঘটনাটি নিন্দনিয় বলে তিনি জানান। আর গত ২০১৯সালের ২৩ নভেম্বর উপজেলা গণফোরামের আহবায়ক কমিটি গঠনের পর আমরা চারটি ইউনিয়ন কমিটি গঠন করেছি। পরে এমপির নির্দেশে বাকি ইউনিয়ন গুলোর কমিটি গঠন করা সম্ভব হয়নি।

নিচের ভিডিও লিংকে দেখুন বিস্তারিত…

https://web.facebook.com/shubhoprotidin/videos/711531096362854

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের ২৪ নভেম্বর রাতে গণফোরাম নেতা নিজাম উদ্দিনকে আহবায়ক ও তরিকুল ইসলামকে সদস্য সচিব করে ৩২ সদস্যের বিশ্বনাথ উপজেলা গণফোরামের আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়। আর কমিটির অনুমোদন দেন সিলেট জেলা গণফোরামের আহবায়ক আনসার খান।


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin