সোমবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২১, ১২:২৮ পূর্বাহ্ন

এমসি কলেজে গণধর্ষণ : অভিযুক্তদের ছবি ফেইসবুকে পোস্ট করে বিচার দাবি

এমসি কলেজে গণধর্ষণ : অভিযুক্তদের ছবি ফেইসবুকে পোস্ট করে বিচার দাবি


শেয়ার বোতাম এখানে
  • 172
    Shares

স্টাফ রিপোর্ট:

সিলেটের এমসি কলেজে হোস্টেলে স্বামীর সামনে একগৃহবধূকে স্বামীর সামনে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে। এ ঘটেনার পর ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা সহ বিভিন্ন জন ফেইসবুকে ধর্ষকদের ছবি পোস্ট করে বিচার দাবি করছেন। তারা ধর্ষকদের নাম পরিচয় প্রকাশ করে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিরও দাবি জানাচ্ছেন।

 

ফেইসবুকের যাদের নাম পরিচয় প্রকাশ করে ধর্ষণে অভিযুক্ত করা হচ্ছে তারা হলেন এমসি কলেজ ছাত্রলীগের নেতা ও কলেজটিতে ইংরেজিতে মাস্টার্সে অধ্যয়রত শাহ মাহবুবুর রহমান রণি, এক শ্রেণীতে অধ্যয়নরত ছাত্রলীগ নেতা মাহফুজুর রহমান মাছুম, এমসি কলেজ ছাত্রলীগ নেতা এম সাইফুর রহমান, কলেজ ছাত্রলীগ নেতা অর্জুন এবং বহিরাগত ছাত্রলীগ নেতা রবিউল ও তারেক। তারা সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক রনজিত সরকারের অনুসারী বলে জানা গেছে।

এদের মধ্যে সাইফুর রহমানের বাড়ি বালাগঞ্জে, রবিউলের বাড়ি দিরাইয়ে, মাহফুজুর রহমান মাছুমের বাড়ি সিলেট সদর উপজেলায়, অর্জুনের বাড়ি জকিগঞ্জে, রণি হবিগঞ্জের এবং তারেক জগন্নাথপুরের বাসিন্দা।


 

এদিকে এঘটনার সাথে জড়িতদের ধরতে ইতিমধ্যে পুলিশ বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করছে বলে জানিয়েছেন সিলেট মহানগর পুলিশের উপকমিশনার (দক্ষিণ) মোহা. সোহেল রেজা পিপিএম।

তিনি বলেন, স্বামী-স্ত্রীকে ধরে নিয়ে কিছু ছেলে স্বামীকে মারপিট করে এবং তরুণীকে হোস্টেলের ভেতরে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে তিন-চার জন মিলে গণধর্ষণ করে। ধর্ষণের শিকার গৃহবধূকে উদ্ধার করে পুলিশ সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসি সেন্টারে প্রেরণ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, শুক্রবার রাত ১০টার দিকেসিলেটের এমসি কলেজের ঘুরতে আসেন ওই দম্পতি। ঘুরার এক পর্যায়ে রাত ৮ টার দিকে তরুণীর স্বামী সিগারেট খাওয়ার জন্য এমসি কলেজের মূল গেইটের বাইরে বের হন। এসময় কয়েকজন যুবক তরুণীকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে যেতে চান। এতে তরুণীর স্বামী প্রতিবাদ করলে তাকে মারপিট শুরু করেন ছাত্রলীগের কর্মীরা। এক পর্যায়ে তরুণী ও তার স্বামীকে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা এমসি কলেজের হোস্টেলে নিয়ে যান। সেখানে স্বামীকে বেঁধে ছাত্রলীগের তিন-চারজন নেতাকর্মী তরুণীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করেন।

এসময় তাদের সাথে থাকা একটি প্রাইভেটকার ছিনিয়ে নিয়ে যান ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। পরে খবর পেয়ে পুলিশ এসে দম্পতিকে উদ্ধার করেছে। ধর্ষণের শিকার গৃহবধুকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসি সেন্টারে প্রেরণ করে। এছাড়া তাদের ব্যবহৃত প্রাইভেটকারটি পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়।


শেয়ার বোতাম এখানে
  • 172
    Shares

সমস্ত পুরানো খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১



themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin