সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:৩৭ পূর্বাহ্ন


ওমানে আটকে রেখে দেশে মুক্তিপণ : চট্রগ্রাম থেকে কিশোর গ্রেপ্তার!

ওমানে আটকে রেখে দেশে মুক্তিপণ : চট্রগ্রাম থেকে কিশোর গ্রেপ্তার!


শেয়ার বোতাম এখানে

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি:

মোছাদ্দুর রহমান (৩৫) নামের এক প্রবাসী বিশ্বনাথী যুবককে ওমানে অপহরণের পর আটকে রেখে দেশে মুক্তিপণ আদায় করা হয়েছে। এ ঘটনায় চট্রগ্রাম থেকে রাকিব হোসেন (১৭) নামে এক শিশোরকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠিয়েছে বিশ্বনাথ থানা পুলিশ। রোববার (১৬ আগষ্ট) সিলেটের সিনিয়র জুডিসিয়াল মেজিষ্ট্রেট ফারজানা শাকিলা সমু চৌধুরীর আদালতে স্বীকারুক্তিমুলক ১৬৪ ধারা জবানবন্ধিও দিয়েছে কিশোর রাকিব হোসেন। এর আগে ওইদিন ভোররাতে চট্্রগ্রামের খুলশি থানা পুলিশের সহযোগীতায় সেখানকার দুবাইওয়ালা বিল্ডিং থেকে রাকিবকে গ্রেপ্তার করে বিশ্বনাথ থানা পুলিশ।
ওমানে অপহরণ হওয়া মোছাদ্দুর সিলেটের বিশ্বনাথের লামাকাজি ইউনিয়নের মীর্জারগাঁও গ্রামের মৃত তালিব হোসেনের ছেলে। আর চট্্রগ্রাম থেকে গ্রেপ্তার হওয়া কিশোর রাকিব নোয়াখালির সদর (সুধারাম) থানার ধর্মপুরের আতিক হোসেনের ছেলে।

গ্রেপ্তার ও ১৬৪ ধারা জবানবন্ধির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্বনাথ থানার ওসি শামীম মুসা। তিনি বলেন, ওমানে মোছাদ্দুরকে আটকে রেখে গ্রেপ্তার রাকিবের মাধ্যমে দেশে মুক্তিপণ বাবদ ৪৩ হাজার ২০০টাকা আদায় করেছে ওমানে বসবাসকারী রাকিবের মামা ফজলু মিয়া।

জানাগেছে, প্রায় ১০ বছর আগে জীবিকার তাগিদে ওমানে পাড়ি জমান মোছাদ্দুর। ২০১৭ সালে দেশে ফিরে বিয়ের পর আবারও সেদেশে ফিরে যান। বর্তমানে শাহরিয়ার নামে মোছাদ্দুরের ২বছরের একটি ছেলে-সন্তান রয়েছে। সর্বশেষ গত ৩০ জুলাই পরিবারের মা-স্ত্রী ও ভাবীর সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা বলেন মোছাদ্দুর। এর প্রায় ১২দিনের মাথায় গত ১১ আগষ্ট অজ্ঞাতনামা ব্যক্তি তার ০০৯৬৮৭১০৫৩৮৭৬ মোবাইল নম্বর থেকে মোছাদ্দুরের মীর্জারগাঁওয়ের বাড়ির ০১৭৩২-০৬১২৪৬ ও ০১৭৪২-২৮৪৩০৯ নম্বরে ফোন করে মোছাদ্দুর আটকের কথা জানায় এবং ৫লাখ টাকা মুক্তিপণ চায়। একপর্যায়ে ২লাখ টাকার চুক্তি হলে ১২ আগষ্ট চট্্রগ্রামে থাকা কিশোর রাকিব বিকাশের মাধ্যমে ৪৩ হাজার ২০০ টাকা নেন।

এরপর থেকে ওমানের অজ্ঞাতনামা ওই ব্যক্তি তার ফোন বন্ধ করে দিলে সন্ধেহ বেড়ে যায়। ফলে গত ১৩ আগষ্ট মোছাদ্দুরের চাচাতো ভাই ফয়জুর রহমান বিশ্বনাথ থানায় অজ্ঞাতনামা আসমি করে মামলা দায়ের করেন, (মামলা নং ১১)।


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin