বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০১:০২ অপরাহ্ন


ওসমানীনগরে চলছে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক দখলের প্রতিযোগিতা!

ওসমানীনগরে চলছে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক দখলের প্রতিযোগিতা!


শেয়ার বোতাম এখানে

রনিক পাল, ওসমানীনগর
সিলেটের ওসমানীনগরে রমজান ও মধু মাসকে কেন্দ্র করে চলছে ফুটপাতসহ ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক দখলের প্রতিযোগিতা। সম্প্রতি ফুটপাতসহ ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের অংশিক অংশ অবৈধভাবে দখল করে নিয়েছেন ভাসমান ফল ব্যবসায়ীরা। ফলে মহাসড়ক দখল করায় বিপাকে পরেছেন পথচারীরা। দুর্ঘটনার ঝুঁকি নিয়েই চলতে হচ্ছে যানবাহন, পথচারী ও ছাত্রছাত্রীদের। অবৈধ দখলদারদের সরাতে রমজানে কোনো অভিযান নেই স্থানীয় প্রশাসন ও সড়ক জনপদ বিভাগের। যদিও মাঝে মধ্যে অভিযান পরিচালনা করা হয় ফের আবারও দখল হয় মহাসড়ক সহ ফুটপাত। এছাড়া, উপজেলার বাণিজ্যিক প্রাণকেন্দ্র গোয়ালাবাজারে সড়কের দু’পাশে ভাসমান ফল ব্যবসায়ীদের ফেলে রাখা বর্জে পরিবেশের মারত্মক বিপর্যয় ঘটছে। নির্দিষ্ট স্থানে এসব ময়লা ফেলার কথা থাকলেও ফল ব্যবসায়ীরা রাতের আঁধারে সড়কের ওপরে ময়লা ফেলে রাখছেন। এ সব ময়লা অপসারণের কার্যকর কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় ব্যবসায়ীরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

জানা গেছে, রমজান মাসে ফলের চাহিদা বৃদ্দি পায়। তাই রমজান মাস আসার আগ-থেকেই ফল ব্যবসায়ীদের উৎপাত বেড়ে যায়। প্রতি বছরের ন্যায় এবারও মহাসড়কের আংশিক স্থান ফলের পরশী দিয়ে দখল করে রাখা হয়েছে। কর্তৃপক্ষের নজর না থাকায় ক্রমেই দখল প্রবণতা বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। ক্রমেই ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠছে মহাসড়ক সংলগ্ন বাজারগুলো, ফলে বাড়ছে সড়ক দুর্ঘটনা।

সরজমিনে দেখা যায়, ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ওসমানীনগর উপজেলার গোয়ালাবাজার, তাজপুর, দয়ামীর, বাজারসহ বিভিন্ন জন-কোলাহলপূর্ণ এলাকার সড়ক ও জনপথের স্থান ফুটপাত সহ মহাসড়কের বেশ কিছু অংশ দখল করে রাখা হয়েছে বিভিন্ন জাতের ফল দিয়ে। তাই দুর্ঘটনার ঝুঁকি নিয়েই চলতে হচ্ছে যানবাহন, পথচারী ও বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের। উপজেলা বিভিন্নœ হাট বাজারে ফুটপাতসহ মহাসড়কের ওপর রাখা হয়েছে বিভিন্ন ফলের ভাসমান দোকান। মহাসড়কের উভয় পাশে এলোমেলো ভাবে রাখা হয়েছে আনারস কাঁঠাল। তাছাড়া বিভিন্ন স্থান থেকে যান বাহনে করে আসা মালামাল নামাতে গিয়ে গাড়ি দাঁড় করিয়ে সৃষ্টি হয় যানজট। ফুটপাতে দোকানপাট ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালপত্রের কারণে মহাসড়কটি অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে।

গোয়ালাবাজার আদর্শ উচ্চবিদ্যালয়ের ছাত্র দূর্জয় জানায়, আমরা প্রতিদিন বিদ্যালয়ে যাওয়া আসা করতে অনেক কষ্ট হয়। ফোটপাত দিয়েও যাওয়া আসা করতে গিয়ে অনেক অসুবিদে হয় কারন ফুটপাতে একাদিক দোকান রয়েছে অনেক সময় যাতায়েতের পথও বন্ধ থাকে। রাস্থার উপরে ফল ব্যবসায়ীরা ফলের ডালা দিয়ে সাজিয়ে রাখেন অন্যদিকে এ রাস্থা দিয়ে বড়বড় যানবাহন চলাচল করে তাই মহাসড়ক দিয়ে আমাদের চলাচলে ভয় হয়।
এবিষয়ে শেরপুর হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্য ওয়াহিদুজ্জামান বলেন, মহাসড়কে ফল ব্যবসায়ীদের প্রতি আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে। মহাসড়কে কেউ ব্যবসা করতে পারবে না।


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin