রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ১১:৩৫ পূর্বাহ্ন


করোনায় মৃত সেই সিলেটি ডাক্তার এখন যুক্তরাজ্যের হিরো

করোনায় মৃত সেই সিলেটি ডাক্তার এখন যুক্তরাজ্যের হিরো


শেয়ার বোতাম এখানে

যুক্তরাজ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যান আব্দুল মাবুদ চৌধুরী (৫২) নামে এক ব্রিটিশ বাংলাদেশি চিকিৎসক।
আগেই তিনি ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীকে স্বাস্থ্যকর্মীদের সুরক্ষা নিয়ে সতর্ক করেছিলেন।

লন্ডনের রমর্ফোডের কুইন্স হাসপাতালে ১৫ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর গত ৮ এপ্রিল তার মৃত্যু হয়। তাকে নিয়ে বিশেষ প্রতিবেদন করে যুক্তরাজ্যের প্রভাবশালী পত্রিকা দ্য গার্ডিয়ান।
প্রথম পাতায় এই ব্রিটিশ বাংলাদেশি চিকিৎসকের হাস্যোজ্জ্বল ছবি ছাপায় পত্রিকাটি। পূর্ব লন্ডনের হ্যাকনির হোমারটন হাসপাতালের ইউরোলজি বিভাগের কনসালট্যান্ট হিসেবে কর্মরত ছিলেন ৫৩ বছর বয়সী আব্দুল মাবুদ চৌধুরী।

ডা. আব্দুল মাবুদ চৌধুরী সিলেট ক্যাডেট কলেজের মেধাবী ছাত্র ছিলেন। ১৯৮৬ সালে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে (চমেক) ভর্তি হন। পরে মেডিকেল কলেজ ছাত্র সংসদের সমাজসেবা সম্পাদক নির্বাচিত হন তিনি। নবীগঞ্জ উপজেলার দীঘলবাক ইউনিয়নের কামারগাঁও গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন এই চিকিৎসক।

১৮ মার্চ এক ফেসবুক বার্তার মাধ্যমে তিনি যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে সতর্ক করে বলেছিলেন, স্বাস্থ্যকর্মীদের জরুরি ভিত্তিতে আরও পারসোনাল প্রোটেকটিভ ইকুইপমেন্ট (পিপিই) প্রয়োজন। তিনি প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে বলেছিলেন, ‘স্বাস্থ্যকর্মীরা সরাসরি রোগীর সংস্পর্শে যায় এবং অন্যান্যদের মতো পরিবার ও সন্তান নিয়ে রোগমুক্ত পৃথিবীতে বেঁচে থাকার মানবিক অধিকার আমাদের আছে। ’

করোনায় মারা যাওয়া এই চিকিৎসককে ‘হিরো’ আখ্যা দেন হ্যাকনির মেয়র ফিলিপ গ্লানভিল। এক টুইট বার্তায় তিনি লিখেন, ‘আমি মনে করি, পিপিই এবং টেস্টিং কিট নিয়ে সংকটের কারণে তার মৃত্যু হয়নি, তবে এ নিয়ে তিনি প্রশ্ন উত্থাপন করেছেন। আমাদের সুরক্ষিত রাখতে স্বাস্থ্যকর্মীদের যে অবদান রাখছেন, এই প্রাণহানি সেটিকেই মনে করিয়ে দেয়। ’

এক বিবৃতিতে ডা. আব্দুল মাবুদ চৌধুরীর মৃত্যুতে শোক জানিয়েছে ব্রিটিশ সংগঠন মুসলিম ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন। তারা বলেন, ‘তিনি স্ত্রী এবং দুই সন্তান রেখে গিয়েছেন।
আমাদের প্রার্থনা এবং ভাবনা তাদের সঙ্গে রয়েছে।


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin