শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ০২:০৪ অপরাহ্ন



কুলাউড়ায় ওএমএস’র ৯ বস্তা চাল উদ্ধার : ডিলারসহ ৪ জনের নামে মামলা, আটক ২

কুলাউড়ায় ওএমএস’র ৯ বস্তা চাল উদ্ধার : ডিলারসহ ৪ জনের নামে মামলা, আটক ২


কুলাউড়া প্রতিনিধি: কুলাউড়া উপজেলার কাদিপুর ইউনিয়নের পেকুর বাজার ও কাদিরপুর এলাকা থেকে সরকারি খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির ( ওএমএস) ৯ বস্তা চাল (২৭০ কেজি) আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে স্থানীয় লোকজন।

এ সময় ওই ঘটনার সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে আব্দুল হাকিম নবেল ও সুহেল আহমদ নামক দুজনকে আটক করেছে পুলিশ।

 

এ ঘটনায় উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক বাদী হয়ে মঙ্গলবার বিকালে ওই ইউনিয়নের ডিলার আব্দুর রাকিবসহ ৪ জনকে আসামি করে কুলাউড়া থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

 

মামলার এজাহার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কাদিপুর ইউনিয়নের ৩২৩ জন দরিদ্র কার্ডধারী ব্যক্তি দশ টাকা কেজি ধরে সর্বোচ্চ ত্রিশ কেজি চাল কিনতে পারবেন। চালের ডিলার কৌলারশী গ্রামের মো: আব্দুর রকিব অসুস্থ থাকায় তাঁর ভাতিজা আব্দুল হাকিম নবেল গুদাম পরিচালনা করছিলেন। এই সুযোগে নবেল গোপনে ইউনিয়নের পেকুরবাজারের ব্যবসায়ী সুহেল মিয়া ও উস্তার মিয়ার কাছে ৯ বস্তা চাল ৮০০ টাকা করে বিক্রি করেন। সেইবচালগুলো বাইসাইকেল যোগে গুদাম থেকে অন্যত্র নিয়ে যাওয়ার সময় সকাল ১১টায় কৌলা কাদিপুরপর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সম্মুখে এলাকাবাসী তাদেরকে আটক করে স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার মো: আজাদ মিয়াকে খবর দেন।

মেম্বারের কাছ থেকে খবর পেয়ে কুলাউড়া থানার এস আই মাসুদ আলম ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে দুই বস্তা চাল জব্দ করেন। এরপর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এটিএম ফরহাদ চৌধুরী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (কুলাউড়া সার্কেল) সাদেক কাওসার দস্তগীর, কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো: ইয়ারদৌস হাসান, উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক বিনয় দেব ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। এসময় আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করে ইউনিয়নের হোসেনপুর গ্রামের বাসিন্দা উস্তার মিয়ার বাড়ি থেকে ৪ বস্তা চাল, সুহেল মিয়ার দোকান থেকে ৩ বস্তা চাল জব্দ করা হয়।

উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক বিনয় দেব বলেন, সরকারের খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির আওতায় চাল প্রকৃত কার্ডধারীদের কাছে বিক্রি করার কথা। কিন্তু ডিলার তা না করে তাঁর সহযোগীদের নিয়ে কালোবাজারে অধিক মুনাফার আশায় বিক্রি করেন। এ ঘটনায় আমি নিজে বাদী হয়ে ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করি।

কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো: ইয়ারদৌস হাসান আটকের বিষয়ে সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক বাদী হয়ে মামলা করেছেন। আটককৃতদের আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরন করা হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ টি এম ফরহাদ চৌধুরী বলেন, এ ঘটনায় চালের ডিলার আব্দুর রকিবের লাইসেন্স বাতিল করা হবে। আর জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেয়ার জন্য থানা পুলিশকে বলা হয়েছে।


সমস্ত পুরানো খবর




themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin