শনিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ১০:০৪ অপরাহ্ন


কোয়ারেন্টিনে হঠাৎ হঠাৎ যা করছেন লন্ডনীরা!

কোয়ারেন্টিনে হঠাৎ হঠাৎ যা করছেন লন্ডনীরা!


শেয়ার বোতাম এখানে

শুভ প্রতিদিন ডেস্ক:
সিলেটে আসা ৪২ জন লন্ডন প্রবাসী আছেন ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে। বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে সবচাইতে ক্ষতিগ্রস্ত যুক্তরাজ্য। এই সময় যুক্তরাজ্য থেকে প্রবাসীরা আসায় সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী তাদের রাখা হয়েছে বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে।

তবে সিলেটে আসা প্রবাসীরা প্রথম দিন (সোমবার) বিভিন্ন কারণ দেখিযে কোয়ারেন্টিনে থাকতে অসম্মতি জানালেও প্রশাসনের ভূমিকায় তারা অবশেষে সরকারি নির্দেশনা মেনে নিয়ে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকছেন এবং তারা সবাই ভালো আছেন।

 

এ বিষয়ে সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (মিডিয়া) বি এম আশরাফ উল্লাহ তাহের সিলেটভিউ-কে জানান, প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকা প্রবাসীরা ভালো আছেন। প্রথমদিন একটু ঝামেলা করলেও দ্বিতীয় দিন (মঙ্গলবার) তারা শান্ত ছিলেন।

তিনি আরও বলেন, প্রবাসীদের সার্বিক সহযোগিতার জন্য পুলিশ সদস্যরা সার্বক্ষণিক দায়িত্বে রয়েছেন। যে কোনো প্রয়োজনে তারা পুলিশের সহায়তা পাচ্ছেন।

সকল প্রবাসী সুস্থ আছেন বলেও জানালেন বি এম আশরাফ উল্লাহ তাহের।

তবে একটি হোটেল সূত্রে জানা গেছে, কোয়ারেন্টিনের দ্বিতীয় দিনেও (মঙ্গলবার) প্রবাসীরা বিশৃঙ্খলা করেছেন। কোয়ারেন্টিনে থাকা এবং বিভিন্ন বিষয় নিয়ে তারা উত্তেজিতভাবে কথা বলেছেন এবং ওই হোটেল স্টাফদের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণ করেছেন। প্রায় সময়ই তারা এভাবে বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে থাকা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন।

বিশ্বজুড়ে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ চলাকালে সিলেটে ইতোমধ্যে চার দফা যুক্তরাজ্য থেকে যাত্রী নিয়ে এসেছে বিমানের ফ্লাইট। গত ২৪ ডিসেম্বর ২০২ জন, গত ২৮ ডিসেম্বর ২০২ জন এবং ৩১ ডিসেম্বর ২৩৭ যাত্রী নিয়ে বিমানের তিনটি ফ্লাইট ওসমানী বিমানবন্দরে আসে। এই তিনদিন আসা যাত্রীদের মধ্যে যথাক্রমে ১৬৫, ১৪৪ ও ২০২ জন ছিলেন সিলেটের যাত্রী। বাকিরা ঢাকায় চলে যান।

সর্বশেষ সোমবার (৪ জানুয়ারি) দুপুর ১২টায় বাংলাদেশ বিমানের বিজি-২০২ ফ্লাইটে করে সিলেট ওসমানী বিমানবন্দরে আসেন ৪৭জন লন্ডন প্রবাসী। এর মধ্যে এক শিশুসহ ৪২জন সিলেটের।

ইমিগ্রেশন প্রক্রিয়া ও স্বাস্থ্যপরীক্ষা শেষে ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে রাখার উদ্দেশ্যে সোমবার বিকেল ৩টার দিকে প্রবাসীদের নিয়ে আসা হয় জেলা প্রশাসনের নির্ধারিত হোটেলে। তবে তারা থাকবেন নিজ খরচে। এ লক্ষ্যে প্রস্তুত করা হয়েছে দরগাহ গেইটস্থ হোটেল স্টার প্যাসিফিক ও হোটেল হলি গেইটসহ নগরীর উন্নতমানের ১০টি আবাসিক হোটেল।

সোমবার লন্ডন থেকে ৪২ জন প্রবাসীর সবাই করোনার নেগেটিভ সার্টিফিকেট নিয়ে সিলেটে আসেন। এই ৪২ জনের মধ্যে সিলেট জেলার ৩১, সুনামগঞ্জের ৫, মৌলভীবাজারের ৫ ও হবিগঞ্জের ১ জন।

সিলেটে আসা এই ৪২ প্রবাসী নগরীর নির্ধারিত ১০টির মধ্যে ৪টি হোটেলে উঠেছেন। সোমবার বিকাল ৩টা থেকে রাত সাড়ে ৭টা পর্যন্ত সাড়ে ৪ঘণ্টার দীর্ঘ প্রক্রিয়া শেষে ৪টি হোটেলে প্রবাসীদের ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন শুরু হয়।

৪২ জন প্রবাসীর মধ্যে নগরীর দরগাহ গেটস্থ হোটেল হলি গেটে ২৭জন, একই এলাকার স্টার স্পেসিফিকে ৮ জন, জেল রোডস্থ অনুরাগে ৫জন ও আম্বরখানার হোটেল ব্রিটানিয়ায় রয়েছেন ২জন।

জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এসব হোটেলে নিরাপত্তাব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। হোটেলের নিজস্ব নিরাপত্তার পাশাপাশি পুলিশও নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করছে। আর সার্বিক বিষয় তদারকি করছে জেলা প্রশাসন।

নিয়ম অনুযায়ী হোটেল কর্তৃপক্ষ প্রতিদিন সকালের নাস্তা প্রবাসীদের ফ্রি খাওয়াবে। আর দুপুর ও রাতের খাবার প্রবাসীদের চাহিদা অনুযায়ী তাদের কক্ষে সরবারহ করা হবে। খাবারের বিল ও হোটেল কক্ষের বিল প্রবাসীরা পরিশোধ করতে হবে। এই হোটেলের সিঙ্গেল বেডের কক্ষের ভাড়া ৪হাজার ও ডাবল বেডের কক্ষের জন্য ৫হাজার টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin