মঙ্গলবার, ১৬ Jul ২০২৪, ০৫:৩১ অপরাহ্ন


গোলাপগঞ্জ উপজেলা পরিষদে ভোট যুদ্ধ আজ, কে হাসছেন শেষ হাসি

গোলাপগঞ্জ উপজেলা পরিষদে ভোট যুদ্ধ আজ, কে হাসছেন শেষ হাসি


শেয়ার বোতাম এখানে

জাহিদ উদ্দিন:

সিলেটের গোলাপগঞ্জে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচন অনুষ্টিত হচ্ছে আজ বুধবার। এ নির্বাচনে মাত্র দুজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগ ছাড়া অন্য কোন রাজনৈতিক অংশগ্রহণ করেননি। এজন্য আওয়ামীলীগের ঘরানার একজন স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

দুইজনই আওয়ামী লীগের ঘরানার হওয়ায় নির্বাচন নিয়ে শুরু হয়েছে নানা হিসেব নিকেশ। শেষ পর্যন্ত কে হাসছেন বিজয়ের হাসি, কার গলে পড়ছে জয়ের মালা, আ’লীগ না স্বতন্ত্র প্রার্থী।

জানাযায়, উপজেলা চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকার প্রার্থী মঞ্জুর কাদির শাফি চৌধুরী এলিম ও আওয়ামীলীগের ঘরানার স্বতন্ত্র প্রার্থী ঘোড়া প্রতীকের
ভিপি শফিক উদ্দিন।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়,
এ নির্বাচনে ২লক্ষ ৪০ হাজার ১শ ভোটার
১০২টি ভোটকেন্দ্রে ৬২৫টি বুথের মাধ্যমে তাদের তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।

এদিকে নির্বাচনকে ঘিরে কঠোর নিরাপত্তা গ্রহণ করা হয়েছে। নির্বাচনের আগের রাত থেকে আইনশৃংখলাবাহিনীর সদস্যরা নির্বাচনী এলাকায় টহলের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। উপজেলার ১২টি প্রবেশদ্বারে বসানো হয়েছে চেকপোষ্ট। নির্বাচনে ৩০টি মোবাইল কোটের পাশাপাশি থাকবে পুলিশ, র‍্যাব, বিজিবি, পুলিশ ও আনসারদের সমন্বয়ে থাকবে স্ট্রাইকিং ফোর্স।

নির্বাহী ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট থাকবে নির্বাচনী এলাকায়। ৪স্তরের নিরাপত্তা বলয়ে গড়ে তোলা হয়েছে গোটা নির্বাচনী এলাকা। এছাড়া সাদা পোষাকধারী পুলিশের পাশাপাশি বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা নজরদারি করবে।

গত মঙ্গলবার নির্বাচনের সবকটি কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে ভোট গ্রহনের সরঞ্জাম। এরমধ্যে অধিক ঝুকিপূর্ণ কেন্দ্র প্রায় অর্ধশতাধিক। এসব ঝুকিপূর্ণ কেন্দ্রে গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ানোর পাশাপাশি আইনশৃংখলাবাহিনী কঠোর সতর্কবস্থায় থাকবে। কোন অঘটনের খবর পেলেই তারা ছুটে যাবে। গত কয়েকদিন থেকে নির্বাচনী উত্তাপ ছড়িয়ে পড়েছে।

এ ব্যাপারে গোলাপগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ হারুনূর রশীদ চৌধুরী জানান, নির্বাচনে যাতে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে এজন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কঠোর অবস্থানে রয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ গোলাম কবির বলেন, নির্বাচনে ৬জন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রিটের পাশাপাশি জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রিট দায়িত্ব পালন করবেন। র‍্যাব, বিজিবি ও পুলিশ নির্বাচনী এলাকায় টহল দিচ্ছে।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের ২৯ জানুয়ারী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইকবাল আহমদ চৌধুরী মৃত্যুবরণ করেন । তাঁর মৃত্যুতে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদটি পদটি শূন্য ঘোষণা করা হয়। এরপর নির্বাচন কমিশন (ইসি) এই শূন্য আসনে তফসিল ঘোষণা করে। আজ ১৫জুন ভোট গ্রহণের তারিখ ঘোষণা করা হয়।


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin