বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৩:২৪ পূর্বাহ্ন


গোয়াইনঘাট সীমান্তে অবাধে চলছে চোরাচালান ( ভিডিও সহ )

গোয়াইনঘাট সীমান্তে অবাধে চলছে চোরাচালান ( ভিডিও সহ )


শেয়ার বোতাম এখানে

স্টাফ রিপোর্ট:

ওপারে ভারত। এপারে বাংলাদেশ। এর মধ্যে সীমান্ত ঘেরা উপজেলা গোয়াইনঘাট। উপজেলাটি সীমান্তবর্তী হওয়ায় প্রতিদিনই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে দিন দুপরে দেশের অভ্যন্তরে প্রবেশ করছে ভারতীয় আমদানি নিষিদ্ধ বিভিন্ন পণ্য।

আর আমদানীর বৈধতা আছে এসকল পণ্য সরকারের শুল্ক ফাঁকি দিয়ে অবাধে দেশে নিয়ে আসছে চোরাকারবারিরা। ফলে ওই এলাকায় বাড়ছে চোরাচালান প্রবনতা। চোরাচালান ঠেকাতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বিভিন্ন সময়ে অভিযান পরিচালনা করার পরও বেপরোয়া হয়ে উঠেছে চোরাকারবারি চক্র।

স্থানীয়রা বলছেন, কাচা টাকার লোভ আর বেকারত্বের হার বেড়ে যাওয়ায় অনেকেই ঝুকছেন চোরাকারবারে।
যদিও জেলা পুলিশের দাবি সীমান্তে অপরাধ ঠেকাতে কাজ করছে বিজিবি,পুলিশ,র‌্যাব বিভিন্ন আইনশৃঙ্গখলা রক্ষকারী বাহিনী।

সূত্র জানায়, সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার-তামাবিল ও সংগ্রাম সীমান্ত এলাকায় প্রতিনিয়ত নতুন-নতুন কৌশলে চলছে চোরাচালান। দু’দেশের সীমান্তরক্ষীদের চোখ ফাকি দিয়ে জেলার বেশ কয়েকটি সীমান্ত পথ দিয়ে বাংলাদেশ থেকে পাচার হচ্ছে শুটকী মাছ, মোরগ, মেলামাইনপ্লেট, ক্রেকার, পটেটো, মটরসহ বিভিন্ন ব্যান্ডের পণ্য সামগ্রী।

আর ভারত থেকে বাংলাদেশে আসছে মরণনেশা মাদক, টেন্ডুপাতার নাসির বিড়ি,গরুসহ বিভিন্ন পন্য সীমান্তরক্ষী বাহিনীর কিছু অসাধু কর্মকর্তার যোগসাজসে সীমান্ত গ্রামগুলোর অনেকেই এখন চোরাকারবারের সাথে জড়িত রয়েছে।

তবে প্রশাসনের দাবি সীমান্ত সুরক্ষা ও চোরাচালান বন্ধে বিজিবিসহ বিভিন্ন বাহিনীর সদস্যরা সক্রিয় রয়েছে।
এদিকে স্থানীয় একাধিক সূত্র জানিয়েছে, দিনের বেলা বিভিন্ন সময়ে বাংলাদেশ থেকে ভারতে পাচার করা দেশীয় নানা ধরণের পণ্য।

ভোরে ও সন্ধ্যার পর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত সীমান্তের কয়েকটি এলাকা দিয়ে দেশে অবাধে আসে ফেনসডিল, মদ ও আমদানি নিষিদ্ধ নানা পণ্য । ফলে এ সকল কিছু ঠেকাতে দরকার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অতিরিক্ত তদারকি ও নিয়মিত অভিযান।

ভিডিও দেখতে নিচের লিংকে ক্লিক করুন-

দিন দুপরে গোয়াইনঘাট সীমান্তে অবাধে চলছে চোরাচালান বিস্তারিত ভিডিও-তে

Posted by Shubho Protidin। শুভ প্রতিদিন on Tuesday, October 6, 2020

 


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin