রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ১০:২৭ অপরাহ্ন



ছুটির দাবীতে কমলগঞ্জে একযোগে ২৩ চা বাগানে মানববন্ধন

ছুটির দাবীতে কমলগঞ্জে একযোগে ২৩ চা বাগানে মানববন্ধন


কমলগঞ্জ প্রতিনিধি: করোনাভাইরাস সংক্রমণের বিস্তার ঠেকাতে সারাদেশের চা বাগানগুলোতে সাধারণ ছুটির দাবীতে সারাদেশের ন্যায় মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার ২৩টি চা বাগানের চা শ্রমিকরা সামাজিক নিরাপত্তা বজায় রেখে মানববন্ধন কর্মসুচী পালিত হয়।

চা শ্রমিকদের প্রতি একটু মানবিক হয়ে তাদের জীবন রক্ষায় অবিলম্বে চা বাগানে সাধারণ ছুটি ঘোষণার দাবিতে শনিবার (১১ এপ্রিল) সকাল ৯টায় কমলগঞ্জের ২৩ টি চা বাগানে একযোগে মানবন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে।

বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনয়িনের কেন্দ্রীয় কমিটির জরুরী সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধকালে সাধারণ ছুটির দাবিতে শনিবার (১১ এপ্রিল) সকাল ৯টায় এক যোগে দেশের ২৩০টি চা বাগানে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।

জানা যায়, শনিবার ১১ এপ্রিল সকাল ১০টায় উপজেলার আলীনগর, মৃত্তিঙ্গা, পাত্রখোলা, কুরমা, রহিমপুর, শমসেরনগর, কানিহাটি, দেওয়াছড়া, মাধবপুর. মদমোহন পুর চা বাগানসহ কমলগঞ্জের ২৩টি চা বাগানে এক যোগে শ্রমিকরা মানববন্ধন কর্মসুচী পালন করেছে। শত শত শ্রমিকরা দুরত্ব বজায় রেখে ব্যানার, ফেস্টুন নিয়ে মানববন্ধনে শরিক হয়।

সকাল সাড়ে ৮টায় শমশেরনগর চা বাগান কারখানার প্রধান ফটকের সামনে চা বাগান পঞ্চায়েত সভাপতি নিপেন্দ্র বাউরীর সভাপতিত্বে চলা মানববন্ধনে একাত্বতা ঘোষনা করে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক ও কমলগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রাম ভজন কৈরী। এসময় আরও বক্তব্য রাখেন চা শ্রমিক ইউনিয়নের মনু-ধলাই ভ্যালির কার্যকরী কমিটির সাধারণ সম্পাদক নির্মল দাশ পাইনকা, চা শ্রমিক নেতা সীতারাম বীন, মোহন রবিদাস ও চা বাগান কর্মচারী পরিষদের আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি তানভীর হাসান।

একই ভাবে সকাল সাড়ে ৯টায় আলীনগর চা বাগান , মৃত্তিঙ্গা চা বাগানে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন মনুদলাই ভ্যালী কমিটির সভাপতি ধনা বাউরী, বাংলাদেশ চা বাগান কর্মচারী ইউনিয়ন আলীনগর ইউনিটের সদস্য দীপক বাড়ই, মাসিক চা মজদুর সম্পাদক সীতারাম বীন প্রমুখ। একই সময়ে চাতলাপুর চা বাগান, মাধবপুর, ফুলবাড়ি, মৃর্ত্তিঙ্গা, পাত্রখোলা, ধলই, মদনমোহনপুর, কুরমা, চাম্পারায়সহ ফাঁড়ি ও মূল বাগান মিলিয়ে কমলগঞ্জে মোট ২৩ টি চা বাগানে একযোগে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।

বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিযনের কেন্দ্রীয় কার্যকরি কমিটির সাধারণ সম্পাদক রাম ভজন কৈরী তার বক্তব্যে বলেন, চা বাগান এলাকা অনেকটা অসচেতন। এখানকার স্বাস্থ্য ব্যবস্থা খুবই নাজুক। চা বাগানের সাধারণ ছুটি বন্ধ রেখেছেন।

কোন ছুটি না পাওয়ায় ৭ এপ্রিলের জরুরী সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী শনিবার সারাদেশের ২৩০টি চা বাগানে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করছে চা শ্রমিকরা। মানববন্ধন শেষে চা বাগানে সাধারণ ছুটির দাবি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে একটি স্মারকলিপি প্রেরণ করে।

 


সমস্ত পুরানো খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  



themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin