রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ১১:৪৬ পূর্বাহ্ন


ডা. মঈনের মৃত্যুর পর করোনায় আক্রান্ত ডা. গৌতম রায়

ডা. মঈনের মৃত্যুর পর করোনায় আক্রান্ত ডা. গৌতম রায়


শেয়ার বোতাম এখানে

সুনামগঞ্জের ‘গরিবের ডাক্তার’ খ্যাত বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ও নারায়ণগঞ্জ ৩০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের পরিচালক ডা. গৌতম রায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। বর্তমানে তিনি নারায়ণগঞ্জে আইসোলেশনে আছেন।

জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জ ৩০০ শয্যার হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের একজন চিকিৎসক প্রথম করোনায় আক্রান্ত হন। পরে ওই হাসপাতালের গাইনি বিভাগের এক চিকিৎসকের করোনায় আক্রান্তের খবর পাওয়া যায়। আক্রান্ত হন হাসপাতাল সুপারের সহকারীও (পিএ)।

এরপর ওই হাসপাতালের বেশ কয়েকজন চিকিৎসক ও স্টাফকে হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়। তাদের মধ্যে ২১ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। সংগৃহীত নমুনায় নতুন করে আরও ১৩ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে রয়েছেন হাসপাতালের পরিচালক ডা. গৌতম রায়, নার্স, অফিস সহকারী, স্টোর কিপার ও ওয়ার্ড বয়।

ডা. গৌতম রায় বলেন, হাসপাতালের স্টাফসহ নতুন করে ১৩ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এর আগে তিনজন আক্রান্ত হয়েছিলেন। আজ আমিও পজিটিভ, বর্তমানে আইসোলেশনে আছি।

ডা. গৌতম রায় সুনামগঞ্জবাসীসহ দেশবাসীর কাছে দোয়া কামনা করেছেন। তাঁর পরিবারও সুস্থতা কামনা করে সবার কাছে আশীর্বাদ কামনা করেছে।

এদিকে ডা. গৌতম রায়ের করোনায় আক্রান্তের খবরটি সুনামগঞ্জে এসে পৌঁছালে বিভিন্ন মহলের মানুষ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাঁর সুস্থতা কামনা করেছেন।

সুনামগঞ্জের গরীবের ডাক্তার খ্যাত ডা. গৌতম রায় সম্প্রতি পদোন্নতি পেয়ে নারায়ণগঞ্জ ৩০০ শয্যার হাসপাতালের প্রধান চিকিৎসা তত্ত্বাবধায়ক ও উপপরিচালক পদে যোগ দেন। এর আগে তিনি জামালপুর জেলার সিভিল সার্জন হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

ডা. গৌতম রায় শহরের সকল মহলের কাছে একজন ভদ্র ও বিনয়ী চিকিৎসক হিসেবে পরিচিত। ১৯৮৮ সালে তিনি বরিশালের শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে এমবিবিএস পাশ করেন। এরপর ১৯৯০ সালে ১০তম বিসিএস পরীক্ষায় পাশ করে ধর্মপাশার সেলবরস ইউনিয়ন উপ স্বাস্থ্য কেন্দ্রের সহকারী সার্জন পদে যোগদান করেন। ২০১৫ সালে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার পদে পদোন্নতি পান। ২০১৭ সালে পদোন্নতি পেয়ে তিনি সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালের সহকারী পরিচালক পদে নিয়োগ পান।

প্রসঙ্গত, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বুধবার (১৫ এপ্রিল) সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় যারা যান সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিসিনের সহকারী অধ্যাপক ডা. মঈন উদ্দীন। ডা. মঈন উদ্দিনের গ্রামের বাড়ি সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার উত্তর খুরমা ইউনিয়নের নাদামপুর গ্রামে।


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin