শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ০৩:১৮ পূর্বাহ্ন



তাহিরপুরে ভারতীয় বন্য হাতির আতঙ্কে সীমান্তবাসী

তাহিরপুরে ভারতীয় বন্য হাতির আতঙ্কে সীমান্তবাসী


তাহিরপুর প্রতিনিধি:

সম্প্রতি সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলা চানপুর, রজনী-লাইন, রাজাই সীমান্তে (ভারতীয় অংশে) হঠাৎ করেই ভারতীয় বন্যাহাতির উৎপাত দেখা গিয়েছে। ওইসব বন্য হাতির তান্ডবে ভারতের অংশের বাংলাদেশ সীমান্ত লাগোয়া রাজাই গ্রামের ৫ টি ঘর ভেঙে ফেলে। যাবফলে এই সীমান্ত এলাকার বাংলাদেশ সীমান্তের গ্রামবাসীর মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

জানাযায়, গত কয়েকদিন সীমান্তের ওপারে ভারতের কালাপাহাড় থেকে গত মাসখানেক যাবৎ বাংলাদেশের তাহিরপুর উপজেলার চানপুর সীমান্তে প্রতিনিয়তই দল বেঁধে বন্যহাতির দল ঘুরে বেড়াচ্ছে। বাংলাদেশর সীমান্তে অংশে নেমে এসে এইস বন্য হাতি তান্ডব শুরু করতে পারে বলেও আশঙ্কা করছে সীমান্তে লাগোয়া বসবাসকারী গ্রামের লোকজন।

তারা জানান, গত এক মাস ধরে কালাপাহাড় সীমান্তে ভারতের অংশে একদল বন্যহাতি উৎপাত শুরু করে। এতে ভারতীয় অংশের রাজাই গ্রামের আদিবসাী এবং কালাপাহাড়ে গারো আদিবাসীরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন।

গত ১০ অক্টোবর চানপুর সীমান্তের কালাপাহাড়ে ভারতীয় অংশে গারো আদিবাসীদের ৫টি ঘর গুড়িয়ে দিয়েছে ভারতীয় বন্য হাতির দল। যে কোন সময় বাংলাদেশ সীমান্তে নেমে তান্ডব শুরু করতে পারে বলে সীমান্তবাসী আতঙ্ক প্রকাশ করেছেন। চানপুর গ্রামবাসী এসব হাতির তান্ডব দেখেছে বলেও জানান প্রত্যক্ষদর্শীরা।

জানা গেছে বন্যহাতির উৎপাতে ভারতীয় অংশের রাজাই গ্রামবাসী বিএসএসফ, ভারতীয় পুলিশ ও স্থানীয় প্রশাসনকে অবগত করার পর তাদেরকে হাত বোমা দিয়েছে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ। তাছাড়া ভারতীয় পুলিশ বন্যহাতি তাড়াতে ফাঁকা ফায়ারিংও করে।

ফায়ারিংয়ের পর বন্যহাতির দল আরো বেশি উৎপাত শুরু করেছে। আর বাংলাদেশ সীমান্ত লাগোয়া কালা পাহাড়ে গারো আদিবাসীদের ৫টি বসতবাড়ি গুড়িয়ে দিয়েছে। বাংলাদেশ সীমান্তঘেঁষা ভারতীয় অংশে রবিবার সন্ধ্যায় একদল বন্য হাতি তান্ডব চালিয়েছে বলে সীমান্তে বসবাসকারী লোকজন জানিয়েছেন।

তারা হাতির বিকট হুঙ্কারে আতঙ্কিত। সীমান্তে বসবাসকারী লোকজন এ বিষয়টি স্থানীয় উপজেলা চেয়ারম্যান ও ইউপি চেয়ারম্যানকে অবগত করেছেন।

রাজাই গ্রামের আদিবাসী নেতা এন্ড্রু সলোমার বলেন, আমি ভারতের রাজাই গ্রামের পরিচিতদের সঙ্গে কথা বলে জেনেছি গত ২০ দিন ধরে বন্য হাতির উৎপাত চলছে। আমরা সীমান্ত থেকে উন্মাদ এসব বন্যহাতিদের তান্ডব দেখেছি। ভারতের কালাপাহাড়ে (বাংলাদেশের চানপুর সংলগ্ন) গারো আদিবাসীদের কয়েকটি বসতঘর গুড়িয়ে দিয়েছে। ভারতীয় বিএসএফ এসব বন্য হাতি তাড়াতে ফায়ারিংও করেছে, যা আমরা শুনেছি।

তিনি আরও বলেন, যে কোন সময় বাংলাদেশ সীমান্তে নেমে আসতে পারে এসব বন্য হাতির দল। তখন বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। তাই আমরা উপজেলা চেয়ারম্যানকে বিষয়টি অবগত করেছি।

এ প্রসঙ্গে, উপজেলা চেয়ারম্যান করুনা সিন্ধু চৌধুরী বাবুল বলেন, তাহিরপুর সীমান্তে বসবাসকারীরা ভারতীয় বন্য হাতির আতঙ্কের কথা জানিয়েছেন। আমি এ বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলেছি।


সমস্ত পুরানো খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  



themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin