বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ০৫:৩৯ অপরাহ্ন

নবীগঞ্জে সরকারী জায়গায় খাল কেটে পুকুর, গৃহনির্মাণ!

নবীগঞ্জে সরকারী জায়গায় খাল কেটে পুকুর, গৃহনির্মাণ!


শেয়ার বোতাম এখানে
  • 6
    Shares

শুভ প্রতিদিন ডেস্ক:
নবীগঞ্জের করগাঁও ইউনিয়নের কমলাপুর এলাকায় ছল্লুক মিয়া, হামদু মিয়া ও ইউসুফ মিয়া, আজিদ মিয়া গংরা সরকারের ভূমিতে জোরপূর্বক গৃহনির্মাণের মাধ্যমে জবর দখল করেছে। এছাড়া বাড়ি সংলগ্ন খাল থেকে অবৈধভাবে বিপুল পরিমাণ মাটি উত্তোলন করায় ক্ষতির মুখে পড়ে আশপাশের এলাকা। এছাড়া বিনষ্ট হচ্ছে পরিবেশ।

শুধু তাই নয়, একই এলাকার রহমত আলীর স্ত্রী শেলিনা বেগম সরকারী জায়গা থেকে মাটি উত্তোলন করে পুকুরও করেছেন।

এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবরে লিখিত অভিযোগ দিলে ভূমি অফিসের সহকারী তহশীলদার আবিদ আলী সরেজমিনে গিয়ে মাটি কাটা বন্ধ করেন। যদিও গত দু’দিন ধরে ফের মাটি কাটা শুরু করেছে হামদু মিয়া ও আজিদ মিয়া গংরা। এতে সরকারও বিপুল পরিবার রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহলের ছত্রছায়ায় ওই গ্রামের মৃত জাকির হোসেনের ছেলে ছল্লুক মিয়া, হামদু মিয়া, আজিদ মিয়া ও ইউসিুফ মিয়া সরকারের ১নং খতিয়ানের, জেএলনং-৭৭, দাগ নং ২৭৮৭ এর বিপুল পরিমাণ সরকারী ভূমি জবরদখলে নেয়। এরপর সরকারী ভূমিতে বাড়িঘর নির্মাণ করা হয়। এছাড়া জবরদখলকারীরা বাড়ির পাশের সরকারী খাল থেকে মাটি কেটেও বিক্রি করছে।

এদিকে সহকারী তহশীলদারের বাধা নিষেধকে উপেক্ষা করে ফের মাটি কাটা শুরু করেছে তারা। সরেজমিন গিয়ে এর সত্যতাও পাওয়া যায়। যেখানে দেখা যায় শুধু দখল কিংবা গৃহনির্মাণই নয়, বাড়ির পাশের খাল থেকে মাটি উত্তোলন এবং খালের একটি অংশে ধানও রোপন করেছেন। অপরদিকে একই গ্রামের রহমত আলীর স্ত্রী শেলীনা বেগম বাড়ির সামনে সরকারী জায়গা থেকে প্রচুর পরিমান মাটিও উত্তোলন করেছেন।

সরকারী জায়গা থেকে মাটি উত্তোলন করলেন কেন; এমন প্রশ্নের জবাবে আজিদ মিয়ার স্ত্রী হোসাই বিবি এবং রহমত আলীর স্ত্রী শেলীনা বেগম জানান, স্থানীয় তহশীল অফিসের সহকারী তহশীলদার আবিদ আলীকে টাকা দেয়ায় তিনি মাটি কাটার অনুমতি দিয়েছেন।

বন্দোবস্তর বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি মেম্বার ফনি দাশের নিকট থেকে তারা দখল খরিদ করেছেন বলে জানান। যদিও তারা এ ব্যাপারে বৈধ কাগজপত্র দেখাতে পারেন নি।

সরেজমিনে গিয়ে সহকারী তহশীলদার আবিদ আলীকে পাওয়া যায়। তবে তিনি সাংবাদিকদের দেখেই কোন প্রশ্নের উত্তর না দিয়ে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন।

এদিকে সরজমিনে মাটি উত্তোলন এবং সরকারী জায়গা জবর দখলের বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক লাইভ করলে দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে যান সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুমাইয়া মুমিন। তিনি পুনরায় মাটি উত্তোলন করা থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দেন। এছাড়া এলাকাবাসীও সরকারী খাল থেকে মাটি উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য দাবী জানিয়েছে।



শেয়ার বোতাম এখানে
  • 6
    Shares

সমস্ত পুরানো খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  



themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin