বৃহস্পতিবার, ২৫ Jul ২০২৪, ০৭:২৮ পূর্বাহ্ন


নিউজিল্যান্ডে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করে এক বাংলাদেশি প্রশংসিত

নিউজিল্যান্ডে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করে এক বাংলাদেশি প্রশংসিত


শেয়ার বোতাম এখানে

শুভ প্রতিদিন ডেস্ক:

করোনা আক্রান্ত হয়ে ইউরোপ আর যুক্তরাষ্ট্র থেকে যখন একের পর এক বাংলাদেশি মৃত্যুর খবর আসছে, তখন নিউজিল্যান্ডের ওটেগা রাজ্যবাসীকে করোনা যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত করছেন একজন ড. শ্যামল দাস।

দেশটির সবচেয়ে প্রাচীন ওটেগা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি বিভাগের সিনিয়র লেকচারার তিনি। গত এক মাসে প্রায় ৮০০ লিটার হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরির নেতৃত্ব দিয়ে প্রশংসা কুড়িয়েছেন এই বাংলাদেশি।

কিউই পাখির দেশ নিউজিল্যান্ড মানেই প্রকৃতির রূপ আর স্নিগ্ধতা। ওটেগা রাজ্যের ডুনেডিন শহরও ব্যতিক্রম নয়। ওই শহরেই দেশটির সবচেয়ে প্রাচীন ওটেগা বিশ্ববিদ্যালয়।

বছর ছয়েক ধরে বিশ্ববিদ্যালয়টির ফার্মেসি বিভাগে সিনিয়র লেকচারার হিসেবে কর্মরত বাংলাদেশের নাগরিক ড. শ্যামল দাস। করোনা নিয়ে যখন গোটা বিশ্ব উদ্বিগ্ন, সেই দুশ্চিন্তা ভর করেছে নিউজিল্যান্ডবাসীকেও।

তাই বাজারে জীবাণু নাশক কিনতে গিয়ে আবিস্কার করলেন, চাহিদার তুলনায় যোগান কম। তখনই মাথায় এলো, নিজেই তো পারেন হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করতে। কথা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে। শেষ করেন সকল আইনি ও প্রশাসনিক প্রস্তুতি। শুরু হয় যুদ্ধ। ড. শ্যামলের সাফল্যে উচ্ছ্বসিত বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

ধন্যবাদ জানিয়ে উপাচার্য দিয়েছেন চিঠি। ড. শ্যামলের প্রশংসা গেয়ে দেশটির স্থানীয় ও জাতীয় গণমাধ্যমেও এসেছে নানা প্রতিবেদন। যেখানে উজ্জ্বল হয়েছে লাল সবুজের বাংলাদেশ নামটিও। আগামী দিনগুলোয়ও যেকোনো দুর্যোগে নিজের সামর্থ্য নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ার প্রত্যয় জানান ড. শ্যামল।


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin