সোমবার, ০২ অক্টোবর ২০২৩, ০৫:৩১ অপরাহ্ন


প্রবাসীর বিরুদ্ধে ভুমি কর্মকর্তার চুরির মামলা : বিভাগীয় কমিশনার বরাবরে অভিযোগ

প্রবাসীর বিরুদ্ধে ভুমি কর্মকর্তার চুরির মামলা : বিভাগীয় কমিশনার বরাবরে অভিযোগ

smart

শেয়ার বোতাম এখানে

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি
৫০হাজার টাকা ঘুষ না দেয়ায় এক রেমিটেন্স যোদ্ধার বিরুদ্ধে ১লক্ষ টাকার সরকারি গাছ চুরির মামলা দায়ের করেছেন সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার প্রয়াগমহল ইউনিয়ন ভুমি অফিসের উপ-সহকারি খালেদ আহমদ। এতে সহকারি কমিশনার ভুমি মামলা গ্রহণে থানা বরাবরে প্রতিবেদন প্রেরণ করেন। (বিশ্বনাথ থানা মামলা নং-২২/২২ইং)।

মামলায় একমাত্র আসামি করা হয়েছে বিশ্বনাথ উপজেলার খাজাঞ্চি ইউনিয়নের দ্বীপবন্দ (বিলপার) গ্রামের যুক্তরাজ্য প্রবাসি (রেমিটেন্স যোদ্ধা) হাজি ইনতাজ আলী (৭০)। এ ঘটনায় সাবেক ইউপি সদস্য সিরাজ উদ্দিন প্রয়াগমহল ইউনিয়ন ভুমি অফিসের উপ-সহকারি খালেদ আহমদকে অভিযোক্ত করে বিলপার গ্রামের ৬০জন স্বাক্ষরিত অভিযোগটি বুধবার বিকেলে বিভাগীয় কমিশনার বরাবরে দাখিল করা হয়েছে।

এদিকে, কর্তন করা গাছগুলো স্থানীয় ইউপি সদস্যের জিম্মায় রয়েছে। তবুও কেন চুরির মামলা এ নিয়ে এলাকায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে।

অভিযোগে উল্লেখ আছে, উপজেলার খাজাঞ্চী ইউনিয়নের দ্বীপবন্ধ (বিলপার) গ্রামের মৃত হরমান আলীর পুত্র ইন্তাজ আলী দীর্ঘদিন ধরে যুক্তরাজ্যে বসবাস করে আসছেন। তাঁর বয়োবৃদ্ধ বোন এই বাড়ীতে থাকেন। তিনি প্রায় ২০বছর পূর্বে তাদের নদী ভাঙ্গনে যাওয়া চর ভরাট ভূমিতে কয়েকটি গাছ রোপন করেন। সেই গাছগুলি গত ২বছর পূর্বে তিনি বিক্রিও করে দেন। গত ২২ ফেব্রুয়ারি ক্রেতা তার ক্রয়কৃত গাছ কেটে ফেলেন। ওই দিন স্থানীয় ইউপি সদস্যের যোগসাজসে প্রয়াগমল তপশীল অফিসের উপ-সহকারি কর্মকর্তা খালেদ আহমদ ইন্তাজ আলীর বাড়ীতে গিয়ে গাছ কাটার মামলা খুনের মামলা থেকে বড় ইত্যাদি ভয়ভীতি দেখিয়ে ৫০হাজার টাকা ঘুষ দাবী করেন এবং বিশ্বনাথ সহকারি কমিশনার ভূমিকে আরো ৫০হাজার টাকা দেয়ার প্রস্তাব দেন।

পরদিন ইন্তাজ আলী তিনির স্ত্রী ও দৃদ্ধা বোনকে নিয়ে বিশ্বনাথ সহকারি কমিশনার (ভুমি) আসমা জাহানের অফিসে গেলে তিনি আইনগত ভাবে সবকিছু করা হবে মর্মে বিভিন্ন ধরনের অশালিন কথাবার্তা বলে তাদেরকে অফিস থেকে বের করে দেন। এসময় প্রবাসি ভুমি কর্মকর্তাকে বলেন, আমি এই গাছ রোপনও করিনি এবং বিক্রিও করিনি। প্রয়োজন গাছগুলো বিক্রি করে দেন, না হয় উপযুক্ত মুল্য সরকারের ঘরে জমা দিয়ে দিবে আমার বোন। কিন্তু আমি কাউকে ঘুষ দিতে পারব না।

পরদিন ভুমি কর্মকর্তা সরেজমিন গিয়ে তদন্ত করে এসে প্রবাসি আন্তাজ আলীকে একমাত্র আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করেন।

অভিযোগে আরো উল্লেখ, ইন্তাজ আলী দেশে আসার পর ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য সিরাজ উদ্দিন গত ৩১জানুয়ারি খাজাঞ্চী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের খরচের জন্য ৫০হাজার টাকা ঋন চেয়েছিলেন। এই টাকা না দেয়ায় স্থানীয় তপশীল অফিসের দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা খালেদ আহমদ ও সিরাজ মেম্বার ষড়যন্ত্রমুলকভাবে এই মামলা দায়ের করান। অথচ কর্তনকৃত লাকড়ী এখনও নিদিষ্ট স্থানে পড়ে আছে। এধরনের সাজানো একটি মামলায় এলাকার মধ্যে চরম উত্তেজনা ও ক্ষোভ বিরাজ করছে।

এলাকাবাসী স্মারকলিপিতে অতিসত্ত্বর প্রবাসী রেমিটেন্সযোদ্ধার বিরুদ্ধে সাজানো মামলা প্রত্যাহার ও দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা সহকারি কমিশনার ভুমি আসমা জাহান সরকার সাংবাদিকদের জানান, আমার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগটি সঠিক নয়।


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin