শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৮:৫৪ অপরাহ্ন


বউকে সামলাতে হবে, ওবায়দুল কাদেরকে মির্জা

বউকে সামলাতে হবে, ওবায়দুল কাদেরকে মির্জা


শেয়ার বোতাম এখানে

শুভ প্রতিদিন ডেস্ক:

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে আগামী নির্বাচনে জিততে হলে স্ত্রীকে সামলাতে হবে মন্তব্য করেছেন তারই ছোটভাই আবদুল কাদের মির্জা।

রোববার (১০ জানুয়ারি) সকালে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের বসুরহাট পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডে নির্বাচনী পথসভায় কাদের মির্জা বলেন, ‘ওবায়দুল কাদের সাহেবকে আগামীতে জিততে হলে আরো সতর্ক হতে হবে। নিজের বউকে সামলাতে হবে। সঙ্গে যারা চলে, তাদের ওপর নজর রাখতে হবে, কে কোথা থেকে মাসোয়ারা নেয়, সে দিকেও লক্ষ রাখতে হবে।

’নোয়াখালী ও পার্শ্ববর্তী জেলার রাজনীতিবিদ ও প্রশাসনের সমালোচনা করে এরই মধ্যে আলোচিত হয়েছেন কাদের মির্জা। এরই মধ্যে তাকে হুমকি দেয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি। ‘সত্যবচন’-এর কারণে তাকে হত্যা করা হতে পারে বলেও নির্বাচনী জনসভায় বলেছেন কাদের মির্জা।তবে সব আলোচনা-সমালোচনাকে ছাপিয়ে এবার কাদের মির্জা মন্তব্য করলেন তার নিজের বড় ভাই ওবায়দুল কাদেরকে নিয়ে।

ছাড় দেননি কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফকেও।‘‘আমার পাশে কেউ নেই, ওবায়দুল কাদের আমার সঙ্গে নেই, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ আমার সঙ্গে নেই। ডিসি, এসপি, নির্বাচন অফিসার- কেউ নেই।’’নোয়াখালী ও ফেনীর আওয়ামী লীগ তো আমার বিরুদ্ধে অস্ত্রশস্ত্র পাঠিয়েছে অভিযোগ করে কাদের মির্জা জিজ্ঞাসা বলেন, ‘আপনারা কেউ আমার সঙ্গে থাকবেন? থাকলে আমি কথা বলব।

’ওবায়দুল কাদেরকে নিয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘তার ওপরও আমার ক্ষোভ রয়েছে। ওনার সঙ্গে যারা হাঁটেন, তারা কার থেকে মাসোহারা পান, তার খোঁজখবর নিতে হবে।’মোবাইল ফোনের মাধ্যমে তাকে হুমকি দেয়া হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘মুঠোফোনে আমাকে যুব মহিলা লীগের পরিচয় দিয়ে গালমন্দ করেছে। প্রশাসনকে জানিয়েছি, তারা কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। নিশ্চয়ই এই মহিলার হাত অনেক শক্তিশালী।

’তিনি বলেন, ‘চারদিকে বারুদের গন্ধ পাই, অস্ত্রের ঝনঝনানি শুনি, যেকোনো সময় আমার জীবন বিপন্ন হতে পারে। আপনারা আমাকে কবর দিয়ে আসবেন। পত্রপত্রিকা আসলগুলো লেখে না, এডিট করে আমার কথা বিকৃত করে। এগুলো প্রধানমন্ত্রী ও আমাদের মন্ত্রীর কাছে পাঠিয়ে আমার বিরুদ্ধে খেপিয়ে তুলছে।

’মাহবুব উল আলম হানিফের উদ্দেশে কাদের মির্জা বলেন, ‘আপনি দায়িত্বশীল লোক, ভদ্রলোক, আমাদের দলের নেতা। আপনার কুষ্টিয়াতে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যটা যে ভাঙছে, আপনি কি দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিয়েছেন?

’ভাইয়ের বিষয়ে আবদুল কাদের মির্জা বলেন, ‘আমি একটি জায়গায় দুর্বল। ওবায়দুল কাদের সাহেব অসুস্থ। তিনি মারা যাবেন, এটা বললে আমি দুর্বল হয়ে যাই। তারও বুঝতে হবে, তিনি জাতীয় নেতা। আওয়ামী লীগের দুবারের সাধারণ সম্পাদক। আমি নোয়াখালী, ফেনীর অপরাজনীতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করব, দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করব, গ্যাসের অধিকারের জন্য প্রতিবাদ করব। প্রতিবাদ করলে তখন বলে, আমি নাকি পাগল।’


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin