বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ০৪:৫০ পূর্বাহ্ন


বিশ্বনাথে এবার ইলিয়াস ইস্যু নয় : উন্নয়ন ইস্যুতেই ভোট দিবেন ভোটাররা

বিশ্বনাথে এবার ইলিয়াস ইস্যু নয় : উন্নয়ন ইস্যুতেই ভোট দিবেন ভোটাররা


শেয়ার বোতাম এখানে

স্টাফ রিপোর্ট
২০১২ সালের ১৭ এপ্রিল বিএনপি নেতা এম ইলিয়াস আলী নিখোঁজ হওয়ার পর থেকে সিলেটের বিশ্বনাথে যত নির্বাচন হয়েছে প্রত্যেকটি নির্বাচনে ইলিয়াস ইস্যুতে ভোটারদের ঠকেছে বিএনপি।

নির্বাচন এলেই সাধারণ ভোটারদের কাছে গিয়ে ভোট দিলে ইলিয়াস আলীকে ফিরে পাওয়া যাবে এমন প্রতিশ্রুতিতে ভোটাররাও সায় দিয়ে ভোট দিয়ে যাচ্ছেন বিএনপির মনোনীত ও পছন্দের প্রার্থীদের। এমনকি মাত্র তিনদিনের প্রচারণায় ইলিয়াস ইস্যুকে কাজে লাগিয়ে সূর্য্য প্রতীক নিয়ে এমপিও হয়েছেন গণফোরাম নেতা মোকাব্বির খান।

১০ বছর পর এবারই উপজেলার দুই ইউনিয়নে প্রথম কোন নির্বাচন হচ্ছে যে নির্বাচনে ইলিয়াস ইস্যু থাকছে না। এর কারণ দলীয়ভাবে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে না বিএনপি। তাই দলীয় নেতাকর্মিরা ও ইলিয়াস পরিবারের কেউ প্রকাশ্যে নামতে পারছেন না ভোটের মাঠে। তাই আসন্ন ৩১ জানুয়ারী উপজেলার লামাকাজি ও খাজাঞ্চি ইউনিয়নের নির্বাচনে ইলিয়াস ইস্যু প্রভাব ফেলতে পারছেনা সাধারণ ভোটারদের।

এদিকে দুই ইউনিয়নে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বিএনপি দলীয়ভাবে নির্বাচনে না আসলেও দলের ৫জন নেতা স্বতন্ত্র হয়ে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। লামাকাজি ইউনিয়নে সিলেট জেলা বিএনপির সাবেক সদস্য ও বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেন ধলা মিয়া (চশমা), লামাকাজী ইউনিয়ন বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি গোলাম কিবরিয়া তালুকদার (আনারস), ইউনিয়ন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আবেদুর রহমান আছকির (ঘোড়া) নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন।

আর খাজাঞ্চি ইউনিয়নে সিলেট জেলা বিএনপির সাবেক সদস্য ও বর্তমান চেয়ারম্যান তালুকদার মো. গিয়াস উদ্দিন (আনারস), ইউনিয়ন বিএনপি নেতা কয়েছ মিয়া (ঘোড়া) নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন।

অপরদিকে এককভাবে ক্ষমতাসীন দল থেকে নৌকা প্রতিক নিয়ে লামাকাজিতে ফয়ছল আহমদ ও খাজাঞ্চিতে আরশ আলী গণি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন।

আরও জানা গেছে, ইলিয়াস পরিবারের কেউ নির্বাচন প্রচারণায় না নামলেও প্রার্থী বা তাদের সমর্থকরা আবারও ইলিয়াস আলী নাম ভাঙিয়ে ভোট চাচ্ছেন ভোটারদের কাছে। এক্ষেত্রে সচেতন ভোটাররা ইলিয়াস ইস্যূকে গ্রহণ করছেন না।

ভোটাররা বলছেন, যেহেতু এটি দলীয় কোন নির্বাচন নয়, এটি স্থানীয় নির্বাচন। এখানে যারা আমাদের অবহেলিত ইউনিয়নকে উন্নয়ন দিতে পারবে। এমন যোগ্য ব্যক্তি দেখেই তারা ভোট দিবেন।

খাজাঞ্চি ইউনিয়নের নতুন ভোটার আনোয়ার আলী বলেন, সরকার যখন নৌকার, তাই নৌকার প্রার্থীকে বিজয়ী করলে এলাকায় উন্নয়ন তরান্বিত হবে।

লামাকাজি ইউনিয়নের পঞ্চাশোর্ধ্ব ভোটার জমসেদ মিয়া জানান, ইলিয়াস আলীর কথা বলে বারবারই তারা আমাদেরকে ঠকেছে। আর ঠকতে চাইনা। এখন উন্নয়ন যে করবে তাকেই ভোট দিব।

উল্লেখ্য, ১নং লামাকাজি ইউনিয়নে মোট ভোটার সংখ্যা ২১ হাজার ৯০৫। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ১১ হাজার ৫৫০, নারী ভোটার ১০ হাজার ৩৫৫। কেন্দ্র সংখ্যা ১০টি ও বুথ সংখ্যা ৫৮টি। লামাকাজী ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৫জন, সদস্য পদে ৫০জন ও সংরক্ষিত সদস্য পদে ১৪জন অংশগ্রহণ করছেন।

২নং খাজাঞ্চি ইউনিয়নে মোট ভোটার সংখ্যা ২২ হাজার ৫১৭। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ১১ হাজার ৭০১, নারী ভোটার ১০ হাজার ৮১৬। কেন্দ্র সংখ্যা ১৩টি, বুথ সংখ্যা ৬০টি। খাজাঞ্চী ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৪জন, সদস্য পদে ৪৩জন ও সংরক্ষিত সদস্য পদে ১১জন অংশগ্রহণ করছেন। দুই ইউনিয়নে প্রথমবারের মতো ইভিএমে ভোটগ্রহণ আগামী ৩১ জানুয়ারি।


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin