সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০১:৫৩ অপরাহ্ন


বিশ্বনাথে দুর্বত্তদের ছুরিকাঘাতে মাদ্রাসা ছাত্র খুন : আটক ২

বিশ্বনাথে দুর্বত্তদের ছুরিকাঘাতে মাদ্রাসা ছাত্র খুন : আটক ২


শেয়ার বোতাম এখানে

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি:
সিলেটের বিশ্বনাথে লজিং বাড়িতেই বুকে, পেটে ও পায়ে দুর্বৃত্তদের উপরঝুপুরি ছুরিকাঘাতে হাফিজ নুরুল আমিন ওরফে লাইস মিয়া (২৫) নামের এক মাদ্রাসাছাত্র নিহত হয়েছেন।

বিশ্বনাথ কামিল মাদ্রাসার আলীম ২য় বর্ষের ছাত্র নুরুল আমিন ওরফে লাইস জগন্নাথপুরের শ্রীরামসী গ্রামের মৃত সাজ্জাদ আলীর ছেলে। বৃহস্পতিবার (৯ এপ্রিল) ভোররাতে (লজিং বাড়ি) সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার পুরান সিরাজপুর গ্রামের সেলিম মিযার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

খবর পেয়ে বিশ্বনাথ থানা পুলিশের একটি টিম সঙ্গে সঙ্গে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছেন। এসময় নিহত ছাত্রের লজিং মাষ্টার (গৃহকর্তা) সেলিম মিয়া (৪৫) ও তার ছেলে আশফাক আহমদ রাতুলকে (১৫) আটক করা হয়েছে। আটকের পর থানা হাজতে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শামীম মুসা বলেন, আটক দু’জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। আর হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটনে পুলিশি তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান তিনি।

নিহত নরুল আমিনের ভাই মঞ্জুরুল আমিন এলাইস জানান, তার ভাইয়ের বুকে, পেটে ও পায়ে অসংখ্য ছুরিঘাকাতের ক্ষতচিহ্ন রয়েছে। তার দাবি, তার ভাইকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানাগেছে, দীর্ঘ প্রায় চার বছর ধরে সেলিম মিয়ার বাড়িতে লজিং থেকে লেখা পড়া করে যাচ্ছেন নুরুল আমিন ওরফে লাইস। বুধবার দিবাগত রাত দেড়টারদিকে হঠাৎ চিৎকার শুনে লজিং বাড়িসহ আশপাশ বাড়ির লোকজন এসে দেখেন নিজ কক্ষে পড়ে আছে নুরুল আমিনের রক্তাক্ত দেহ।

তবে, স্থানীয়দের ধারণা প্রেমঘটিত কারণে এ হত্যাকান্ডটি ঘটতে পারে। কারণ হিসেবে তারা জানান, সম্প্রতি লজিং পরিবর্তনের জন্যে নিহত নুরুল আমিন নিজের সহপাঠিও শিক্ষকদের সহায়তা চেয়েছিলো। আর পবিত্র শবে বরাত শেষে অন্যত্র চলে যাবার কথাও ছিলো। কিন্তু তার আগেই নির্মমভাবে খুন হতে হলো তাকে।


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin