মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৯:৫৩ অপরাহ্ন


বিশ্বনাথে বিনা বেতনে পড়ানো দেওকলস দ্বি-পাক্ষিক স্কুল উদযাপন করলো ৫০ বছর

বিশ্বনাথে বিনা বেতনে পড়ানো দেওকলস দ্বি-পাক্ষিক স্কুল উদযাপন করলো ৫০ বছর


শেয়ার বোতাম এখানে

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি:: সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার ঐতিহ্যবাহী দেওকলস দ্বি-পাক্ষিক উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজে ৫০বছর পূর্তি উপলক্ষে দিনব্যাপী বর্ণি ল আয়োজনের মধ্য দিয়ে সুবর্ণজয়ন্তী পালন করা হয়েছে। যে স্কুলে ৫০টি বছর ধরে বিনা বেতনে পড়া-লেখা করে আসছে শিক্ষার্থীরা। দীর্ঘ এই ৫০টি বছর শিক্ষকদের বেতন চালিয়ে আসছেন এলাকার প্রবাসী ও বিত্তবানরা। শুধু তাই নয়, ১৯৯৮সালে এই স্কুলটি জাতীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ট প্রতিষ্ঠান হিসেবে নির্বাচিতও হয়েছে। এমনভাবে বিগত ৫০বছর ধরে শিক্ষার্থীদের বিনা বেতনে পড়ালেখা করানোর কারণে সর্বত্র সুনামের অধিকারী হয়েছে।

শনিবার বিকেলে বিদ্যালয় মাঠে দিনব্যাপী সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠিত হয়। সকাল সাড়ে ১০টায় সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন সিলেট মেট্রোপলিটন ইউনিভারসিটির ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক। পরে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ থেকে একটি শোভাযাত্রা বের হয়ে এলাকার বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। উদ্বোধনী পর্বের অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উদযাপন পরিষদের আহবায়ক সমশীদ খান। এরপর দিনব্যাপী নানা অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে আনন্দও উৎসব উদযাপন করেন প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা।

বিকেলে অনুষ্ঠানের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. জামাল উদ্দিন ভুইয়া। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, দেশের মধ্যে বিনা বেতনে পাঠদান বিরল দৃষ্টান্ত দেওকলস উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজ এটি একটি বিরল দৃষ্টান্ত। কোন বিদ্যালয়ে ৫০ বছর যাবৎ বিনা বেতনে পাঠদান দেয়া হয় এটা আমার বোধগম্য নয়। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ একটি স্মার্ট দেশে পরিণত হবে। তাই স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনে শিক্ষার্থীদেরকে স্মার্ট শিক্ষা অর্জন করতে হবে। তিনি অভিভাবকদের প্রতি আহবান করে বলেন, ছেলে-মেয়েদেরকে বিদ্যালয়ে সঠিক সময়ে, সঠিক শিক্ষা গ্রহনে আপনাদেরকে এগিয়ে আসতে হবে। এই ছাত্র-ছাত্রীরাই স্মার্ট বাংলাদেশের কর্ণধার হবে।

বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আব্দুল গনির সভাপতিত্বে ও প্রাক্তণ ছাত্র প্রবাসি আজম খান এবং প্রাক্তন শিক্ষক আব্দুল মোমিন মামুনের পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও স্থানীয় সাবেক এমপি শফিকুর রহমান চৌধুরী, সাবেক এমপি ইয়াহইয়া চৌধুরী এহিয়া, বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা প্রধান শিক্ষক ও বুড়িচং উপজেলা চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা কাশেম আলী। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ এমএ রহিম, প্রাক্তণ ছাত্র প্রবাসি সেবুল খান মাহবুব, শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন শামিম আহমদ। অনুষ্ঠান সফল করতে যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থারত প্রাক্তন ছাত্ররাও দেশে ফিরেন এই উৎসবে যোগ দেন।অনুষ্ঠানে প্রতিষ্ঠানের ৫০ বছরের ইতিহাস ঐতিহ্য নিয়ে প্রকাশিত একটি স্মারকের মোড়ক উন্মোচন করেন অতিথিরা।


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin