বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২, ০৪:২৫ পূর্বাহ্ন


বিশ্বম্ভরপুরে ৪র্থ ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের ৩০৩ জন প্রার্থী মনোনয়ন পত্র জমা

বিশ্বম্ভরপুরে ৪র্থ ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের ৩০৩ জন প্রার্থী মনোনয়ন পত্র জমা


শেয়ার বোতাম এখানে

কামাল হোসেন, সুনামগঞ্জ:

বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে বিশ্বম্ভরপুরে ৪র্থ ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়ন পত্র দাখিলের ৩ দিনের সময়সীমা আজ (২৫ নভেম্বর) বৃহস্পতিবার কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার মোট ৫ টি ইউনিয়নে মোট চেয়ারম্যান, সাধারণ মেম্বার ও সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার পদে মোট ৩০৩ জন প্রার্থী আজ মনোনয়ন পত্র জমা দনের শেষ দিন পর্যন্ত তাদের মনোনয়ন পত্র জমা দেন। এর মধ্যে ৫ টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ২৯ জন, সাধারন মেম্বার পদে -২২৮ জন, সংরক্ষিত (মহিলা) – ৪৬ জন প্রার্থী।

বিশ্বম্ভরপুরের ৫টি ইউনিয়ন যথাক্রমে ১ নং সলুকাবাদ ইউনিয়নের প্রার্থী হিসেবে চেয়ারম্যান – ৪ জন, মেম্বার পদে- ৩৫ জন, সংরক্ষিত- ১০ জন, ২ নং পলাশ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান-১০জন, সাধা: মেম্বার- ৫৯ জন, সংরক্ষিত (মহিলা)- ২০ জন, ৩ নং ধনপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান – ০৭ জন, সাধা:মেম্বার – ৪৬ জন, সংরক্ষিত (মহিলা)- ১১ জন, ৪ নং বাদাঘাট(দঃ) ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান -০৪ জন, সাধারন সদস্য-৪১ জন, সংরক্ষিত (মহিলা) – ১০ জন, ৫ নং ফতেপুর ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান -০৪ জন, সাধা: সদস্য -৪৭ জন, সংরক্ষিত (মহিলা)- ১৫ জন, সর্বমোট চেয়ারম্যান পদে ২৯ জন, সাধারন মেম্বার পদে -২২৮ জন, সংরক্ষিত (মহিলা) – ৪৬ জন প্রার্থী ডাক-ঢুল পিটিয়ে নিজ নিজ এলাকার সমর্থন ও প্রস্তাবকারী সহ মিসিলাকারে উপজেলা নির্বাচন অফিসে চুড়ান্তভাবে মনোনয়নপত্র দাখিল করে।

এ বিষয়ে বিশ্বম্ভরপুর নির্বাচন অফিসের দায়িত্বে থাকা রিটার্ণিং অফিসার মঞ্জুরুল হক জানান, আমার দায়িত্বে থাকা ৩টি ইউনিয়ন পলাশ,ধনপুর ও বাদাঘাট(দঃ) ইউনিয়নের চেয়ারম্যান,সাধারন সদস্য ও সংরক্ষিত(মহিলা) প্রার্থীরা তাদের মনোনয়নপত্র স্বতস্ফুর্তভাবে নির্দিধায় আমার অফিসে জমা দিয়েছেন। অপরদিকে, ২টি ইউনিয়নের দায়িত্বে থাকা রিটার্ণিং অফিসার ও বিশ্বম্ভরপুর পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আবদুর রহমান জানান, ফতেপুর ও সলুকাবাদ ইউনিয়নের সকল প্রার্থীগন সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণ পরিবেশে তাদের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin