বৃহস্পতিবার, ১৭ Jun ২০২১, ০২:০৭ অপরাহ্ন

‘বিয়ের জন্য প্রিপেয়ার্ড নই’

‘বিয়ের জন্য প্রিপেয়ার্ড নই’


শেয়ার বোতাম এখানে

প্রতিদিন ডেস্ক:
কুলাউড়ায় শারমিন আক্তার (১৭) নামে এক তরুণী আত্মহত্যার আগে চিরকুটটি লিখে যায়। চিরকুটে সে লিখে, ‘আমার আব্বা, আম্মা ও ভাই আমাকে খুব আদর করেন। সবাই আমাকে ভালোবাসেন। আমার মা-বাবা আমাকে বিয়ে দিতে চাইছিলেন। আমি এই মুহূর্তে বিয়ের জন্য প্রস্তুত নই। কিন্তু বিয়েতে অমত করলে আমার মা বাবা কষ্ট পাবেন। আমি আমার মা-বাবাকে কষ্ট দিতে চাই না। তাই এই পথ বেছে নিয়েছি। আমি জানি ওপারে অগ্নি চুল্লিতে আমি জ্বলবো। তবুও আমাকে সবাই মাফ করে দিয়েন’।

শারমিন উপজেলার হাজিপুর ইউনিয়নের কালিয়াটিলা গ্রামের লাল মিয়ার মেয়ে ও শমসেরনগর সুজা মেমোরিয়াল কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্রী। চিরকুটে আরও সে লিখে, ‘আমার জীবনের ১৬টি বছর খুব সুন্দর ছিলো। কিন্তু ১৭তম বছরে অনেক কিছু ঘটে গেছে।’

সোমবার সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে পুলিশ তার নিজ বাড়ি থেকে মরদেহ উদ্ধার করে। প্রাথমিক সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এরআগে সোমবার ভোরের দিকে সে আত্মহত্যা করেছে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, পরিবারের অজান্তে সে ঘরের ফ্যানের সাথে ওড়না পেঁছিয়ে আত্মহত্যা করে শারমিন। গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলতে দেখে পুলিশকে খবর দিলে তার লাশ উদ্ধার করে। শারমিনের শেষ লেখা চিরকুটটি পুলিশ উদ্ধার করেছে।

উপরিউক্ত চিরকুটটির বিষয়টি জানিয়ে স্থানীয় হাজিপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল বাছিত বাচ্চু বলেন, ধারণা করছি, এটা আত্মহত্যা। লাশ উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করেন কুলাউড়া থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসান ।


শেয়ার বোতাম এখানে

সমস্ত পুরানো খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  



themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin