শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১, ০৯:০৬ পূর্বাহ্ন

মাহমুদ উস সামাদের আসনে একক প্রার্থী দিচ্ছে জাতীয় পার্টি

মাহমুদ উস সামাদের আসনে একক প্রার্থী দিচ্ছে জাতীয় পার্টি


শেয়ার বোতাম এখানে
  • 10
    Shares

নবীন সোহেল

মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরীর মৃত্যুতে শূন্য হওয়া সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচন নিয়ে নানা সমীকরণ চলছে। এ আসনটিতে মহাজোটের শরিক দল জাতীয় পার্টি এ আসনে প্রার্থী চাইছে। কারণ সিলেটের ছয়টি নির্বাচনী আসনের মধ্যে সিলেট-৩ আসনটিকে জাতীয় পার্টি তাদের দুর্গ হিসেবে বিবেচনা করে। আর মহাজোট থেকে এ আসনটি না পেলে জাতীয় পার্টি থেকে একক প্রার্থী দেয়া হবে এমন সিদ্ধান্তের বিষয়টি শুভপ্রতিদিনকে নিশ্চিত করেছেন জাতীয় পার্টির অতিরিক্ত মহাসচিব ও সিলেট বিভাগীয় এ টি ইউ তাজ রহমান। তিনি বলেন, জাতীয়পার্টির ঘাটি এ আসনটিতে মহাজোটের শরিক দল হিসেবে জাতীয় পার্টি থেকে এ আসনটি চাওয়া হয়েছে। সবকিছু বিবেচনা করে মহাজোট এ আসনটি জাতীয় পার্টিকে ছেড়ে দেবে বলে তিনি আশা ব্যক্ত করেন। এ টি ইউ তাজ রহমান আরও বরেন, মহাজোট থেকে না পেলে জাতীয় পার্টির একক প্রার্থী দেয়া হবে।

জানা গেছে, দক্ষিণ সুরমা, ফেঞ্চুগঞ্জ ও বালাগঞ্জ উপজেলা নিয়ে গঠিত সিলেট-৩ আসন। এ আসনটি সিলেট নগরের কাছাকাছি এলাকায় গুরুত্ব অনেক বেশি। এ ছাড়া শিল্পনগরী ফেঞ্চুগঞ্জও রয়েছে এ আসনে। ফলে গুরুত্বপূর্ণ এ আসনে দক্ষতার সঙ্গে নিজের দায়িত্ব পালন করেছেন প্রয়াত এমপি মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী। করোনাকালে মানবসেবার কারণে তিনি বিশেষ করে সাধারণ মানুষের মন জয় করেছিলেন। এ কারণে তার মৃত্যুতে অপার শূন্যতা নেমে এসেছে এই আসনে।

গত ১১ই মার্চ মারা যান সিলেট-৩ আসনের পরপর তিন তিনবারের আওয়ামী লীগের দলীয় এমপি মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী। তার মৃত্যুর পর গত ১৮ মার্চ সংসদ সচিবালয়ের পক্ষ থেকে এ আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়। এখন সংসদ সচিবালয় থেকে চিঠি যাবে নির্বাচন কমিশনে। এরপর নির্বাচন কমিশন থেকে আনুষ্ঠানিক এ আসনে উপনির্বাচনের প্রস্তুতি শুরু করা হবে। বর্তমানে লকডাউনের জন্য তা আপাতত স্থগিত রয়েছে।

আওয়ামী লীগ বিএনপি ছাড়াও সিলেট-৩ আসনে আরও এক রাজনৈতিক শক্তি সব সময়ই থাকে আলোচনার শীর্ষে। আর তা হলো জাতীয় পার্টি। প্রয়াত প্রেসিডেন্ট এইচ এম এরশাদের হাতে গড়া দল জাতীয় পার্টি থেকে মনোনয়ন নিয়ে এই আসনে তিনবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন আব্দুল মুকিত খান। মহাজোটের শরিক দল জাতীয় পার্টি এ আসনে প্রার্থী চাইছে। আর এ আসনে দলের প্রার্থী হতে চাইছেন দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য আলহাজ্ব আতিকুর রহমান আতিক ও সিলেট জেলা জাতীয় পার্টির সদস্য সচিব উসমান আলী চেয়ারম্যান। এছাড়া নাম শোনা যাচ্ছে, সিলেট-২ আসনের সাবেক এমপি ও জাতীয় পার্টির যুগ্ন-মহাসচিব ইয়াহইয়া চৌধুরী এহিয়ার। কারন তিনি সাংসদ থাকাকারীন সময়ে এ আসনের বড় অংশ বালাগঞ্জ সিলেট-২ আসনের অধীনে ছিল। এদিকে, সদ্য যোগ দেয়া জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও সিলেটের ব্যবসায়ী অঙ্গণের সুপরিচিত মুখ ফিজা অ্যান্ড কোং (প্রা.) লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নজরুল ইসলাম বাবুলের নামও প্রার্থীদের আলোচনায় আসছে। অপরদিকে, জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য, পল্লীবন্ধু পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম আহবায়ক ও সিলেট জেলা পল্লী বন্ধু পরিষদের আহবায়ক হাজী তোফায়েল আহমদ এ আসনে জাতীয় পার্টির মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে সরব রয়েছেন।

জাতীয় পার্টির নেতাদের মুখে এখন পর্যন্ত এই পাঁচ প্রার্থীর নাম শোনা যাচ্ছে। এ আসনে এক সময় জাতীয় পার্টির হয়ে ভোটের রাজনীতিতে সরব ছিলেন আতিকুর রহমান আতিক। এখন নির্বাচনকে সামনে রেখে আবার তিনি নিজ এলাকামূখী হয়ে বিভিন্ন সামাজিক ও দলীয় কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ করছেন। এছাড়া সরব দেখা যাচ্ছে ওসমান আলী চেয়ারম্যানকে। তবে, ইয়াহইয়া চৌধুরী এহিয়া ও নজরুল ইসলাম বাবুলকে এখনো মাঠে সরব দেখা যাচ্ছেনা।



শেয়ার বোতাম এখানে
  • 10
    Shares

সমস্ত পুরানো খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  



themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin