বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ০২:৪৭ অপরাহ্ন


মাহিরের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহারের দাবি শাবিপ্রবির সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীদের

মাহিরের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহারের দাবি শাবিপ্রবির সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীদের


শেয়ার বোতাম এখানে

শাবিপ্রবি প্রতিনিধি:

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সদ্য প্রয়াত নেতা মো. নাসিমকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘কটূক্তি করে স্ট্যাটাস’ দেওয়ার অভিযোগে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী মাহির চৌধুরীর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এরই প্রেক্ষিতে এ মামলাকে হয়রানিমূলক ও অযৌক্তিক দাবি করে তার নিন্দা জানিয়ে মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান ও সাবেক শিক্ষার্থীরা। একই সাথে চার দফা দাবি জানিয়েছেন সাবেক শিক্ষার্থীরা।

বুধবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক-বর্তমান শিক্ষার্থীদের স্বাক্ষর সম্বলিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ প্রতিবাদ জানানো হয়। এতে বর্তমান ১১২০ জন ও সাবেক ২৮৬ জন শিক্ষার্থীর নাম উল্লেখ রয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, শাবিপ্রবির প্রাক্তন শিক্ষার্থী হিসেবে আমরা মনে করি, মাহিরের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ ও মামলা দায়ের স্বাধীন, মুক্ত ক্যাম্পাস ও বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল চেতনাবিরোধী। বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুযায়ী, যদি বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে জানমালের কেউ ক্ষতি সাধন করে এবং বিশ্ববিদ্যালয় নিরাপত্তাকর্মীরা তা নিয়ন্ত্রণ করতে না পারেন সে ক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয় বাদী হয়ে মামলা করতে পারেন। কিন্তু মাহির চৌধুরীর ফেসবুক পোস্টে এমন কোনো আলামত ছিল না যার কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে কোনো জানমালের ক্ষতি হতে পারে। যেখানে প্রশাসনের দায়িত্ব ছিল শিক্ষার্থীর নিরাপত্তা ব্যবস্থা করে তার নাগরিক অধিকারের পক্ষে লড়াই করা সেখানে উল্টো এই মামলা দায়ের কারণে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এক কলঙ্কজনক নজির স্থাপন করেছে বলে মনে করেন শিক্ষার্থীরা। ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ের গণতান্ত্রিক পরিবেশ নষ্ট হওয়া ও চলমান শিক্ষার্থীদের মতপ্রকাশের স্বাধীনতা ক্ষুণ্ণ হয়েছে বলে মনে করেন তাঁরা। একই সাথে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ সহ ৪দফা দাবি জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

দাবিসমূহ হলো- অবিলম্বে মাহির চৌধুরীর বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহার করতে হবে। বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ সকলের বাক স্বাধীনতা ও মত প্রকাশের স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে হবে। ক্যাম্পাসের যে কোনো ভিন্নমতাবলম্বী শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের যাবতীয় হুমকি-ধামকি থেকে হেফাজত নিশ্চিত করতে হবে। অন্যের দ্বারা প্ররোচিত হয়ে বা সরকারদলীয় ছাত্র সংগঠনের ইচ্ছাকে চরিতার্থ না করে, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে সর্বাবস্থায় অভিভাবকসুলভ, নিরপেক্ষ ভূমিকা পালন করতে হবে। ক্যাম্পাসে সর্বাত্মক গণতান্ত্রিক পরিস্থিতি নিশ্চিত করতে হবে।

উল্লেখ, সদ্য প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা মোহাম্মদ নাসিমকে নিয়ে ফেসবুকে কটুক্তি করার অভিযোগে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মুহাম্মদ ইশফাকুল হোসেন বাদী হয়ে গত ১৫ জুন সোমবার এসএমপির জালালাবাদ থানায় অর্থনীতি বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী মাহির চৌধুরীর বিরুদ্ধে ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন-২০১৮’ অনুযায়ী মামলা দায়ের করেন।


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin