মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ০৬:১০ পূর্বাহ্ন



মা তুমি হাসলে পৃথিবী চমৎকার, তুমি কাঁদলে পৃথিবী অন্ধকার : মিছলুর ভালবাসা

মা তুমি হাসলে পৃথিবী চমৎকার, তুমি কাঁদলে পৃথিবী অন্ধকার : মিছলুর ভালবাসা


শুভ প্রতিদিন ডেস্ক:
কোভিড-১৯ মোকাবেলায় সম্মুখযোদ্ধা হিসেবে মানুষের সেবায় সার্বক্ষণিক কাজ করে যাচ্ছেন মানবাধিকার কর্মী,শাহজালাল উপশহর ব্যবসায়ী সমিতি ইএফ এর সাবেক সেক্রেটারি সমাজ সেবক, সংগঠক এবং”বিপদের বন্ধু”হিসেবে পরিচিত সৈয়দ মুহিবুর রহমান মিছলু।

আজ সেই আন্তর্জাতিক মা দিবসে একজন অসহায় মায়ের মেসেজ পেয়ে চোখের পানি ধরে রাখতে পারেননি মিছলু, মেসেজে উল্লেখ করেন পরিবারে আমার স্বামী মৃত, ৮ জন মহিলা,২ টি ছেলে ছোট, একমাত্র রোজগার মেয়ের জামাই (দামান) সিএনজি চালক ২৬ দিন যাবত গাড়ি বন্ধ। তাৎক্ষণিক মোবাইলে যোগাযোগের মাধ্যমে খাদ্যসামগ্রী উপহার দেন মেজর টিলার নূর পুর সেই পরিবারের কাছে।

পৃথিবীতে সবচেয়ে শ্রুতিমধুর ও পবিত্র শব্দের নাম ‘মা’। মা শব্দটি দিয়েই প্রত্যেক শিশুর জীবন আরম্ভ হয়। সব দু:খ-কষ্ট আর বেদনা ‘মা’ শব্দের মাঝে বিলীন হয়ে যায়। মা করুণাময়ী ও স্নেহের খনি।জন্ম থেকে মৃত্য পর্যন্ত তাঁর এই নিঃস্বার্থ ভালোবাসা চলতে থাকে। মানব জীবনে মায়ের স্থান অনেক উর্ধে, সর্বাধিক সম্মানের ও শ্রদ্ধার।

সৈয়দ মুহিবুর রহমান মিছলু অসহায় মানুষের কাছ থেকে ফোন অথবা ফেইসবুক মেসেঞ্জারে মেসেজ পেলেই অসহায় ব্যক্তির পরিচয় গোপন রেখে কখনো দিনে আর কখনো রাতের আঁধারে খাদ্যসামগ্রী উপহার পৌছে দেন বিপদগ্রস্ত মানুষের বাসাবাড়িতে। ইতিমধ্যে তিনি খ্যাতি কুড়িয়েছেন ‘বিপদের বন্ধু’ হিসেবে।

তিনি গত ১৫ মার্চ থেকে নিজের উদ্যোগে কোভিড-১৯ প্রতিরোধে নগরীর শাহজালাল উপশহরের বিভিন্ন পয়েন্টে পানির ড্রাম বসিয়ে দেন এবং স্প্রে মেশিন কাঁধে নিয়ে তার নিজ এলাকা শাহজালাল উপশহরে সবসময় জীবাণুনাশক স্প্রেও ছিটিয়েছেন।

বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বুকে ধারণ করে রাষ্ট্রনায়ক মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা মূলক কাজ করে যাচ্ছি উল্লেখ করে মিছলু বলেন, ইতোমধ্যে সরকার, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, প্রবাসীসহ সমাজের বিত্তবানরা এগিয়ে এসেছেন, কোন কাজই একার পক্ষে সম্ভব নয় তাই আরও ব্যাপক ভাবে যায় যার অবস্থান থেকে এগিয়ে আসার অনুরোধ করেন।


সমস্ত পুরানো খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  



themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin