শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:২২ অপরাহ্ন


মিষ্টি হাসি দিয়ে ভোটারদের মন জয় করছেন হাবিব

মিষ্টি হাসি দিয়ে ভোটারদের মন জয় করছেন হাবিব


শেয়ার বোতাম এখানে

নবীন সোহেল:: আগামী শনিবার সিলেট-৩ (দক্ষিণ সুরমা-বালাগঞ্জ-ফেঞ্চুগঞ্জ) আসনের উপনির্বাচনের ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচন উপলক্ষে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন। ইতিমধ্যে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা মাঠে নেমেছেন।

এদিকে মিষ্টি হাসি দিয়েই ভোটারদের মন জয় করছেন ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের মনোনিত নৌকার প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব। তাঁর মায়াবী চেহারা আর মুখের হাসি দিয়ে ইতিমধ্যে সর্বমহলের ভোটারদের কাছে প্রশংসিত হয়েছেন। এমনকি কেন্দ্রীয় নেতারাও হাবিবের হাসির প্রশংসায় পঞ্চমুখ।

সর্বশেষ মঙ্গলবার রাতে দক্ষিণ সুরমার কামাল বাজার এলাকায় নির্বাচনী জনসভায় বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন। তিনি তাঁর বক্তব্যে হাবিবের মিষ্টি হাসির প্রশংসা করে দীর্ঘক্ষণ বক্তব্য দেন।

তিনি বলেন, যে হাসতে জানে, তার মন পরিষ্কার, সে অন্যকে কষ্ট দিতে জানে না। যে হাসতে জানে, সে অন্যের কষ্ট সইতে পারে না। যে হাসতে জানে, সে অন্যায়কে প্রশ্রয় দেয় না। যে হাসতে জানে, সে অপরাধকে প্রশ্রয় দেয় না। তিনি হাবিবের মাঝে প্রয়াত এমপি মাহমুদ-উস সামাদকে দেখতে পাচ্ছেন বলে জানান। তাই নৌকায় ভোট দিয়ে হাবিবকে জয়যুক্ত করতে ভোটারদের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন।

আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিবের প্রচারণায় বুধবার বালাগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ আয়োজিত নির্বাচনী প্রচারণা অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় এবং সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য।

এর আগে গত ২২ আগস্ট শোকসভাকে সামনে রেখে হাবিবের পক্ষে প্রচারণা চালাতে দলটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম নাদেল, উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন এবং কার্যনির্বাহী সদস্য আজিজুস সামাদ ডন সিলেটে আসেন এবং হাবিবের পক্ষে প্রচারণা করেন।

কেন্দ্রীয় নেতারা ছাড়াও হাবিবুর রহমান হাবিবের পক্ষে সিলেটের নেতারা ঐক্যবদ্ধভাবে মাঠে নেমেছেন। উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে এ আসনে জয় চায় আওয়ামী লীগ। কারণ, এ আসনটি নিয়ে সিলেটে হিসাব ভিন্ন। কারণ এককভাবে কোনো দলই এখনো এ আসনে আধিপত্য বিস্তার করতে পারেনি। ফলে এবারের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ জয়ী হলে আগামীতে এ জয় হবে দলের জন্য টার্নিং পয়েন্ট।

আওয়ামী লীগ প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব এবার ভোটের মাঠে সবচেয়ে বেশি পরিশ্রম করেছেন। প্রচারণায়ও এগিয়ে তিনি। ভোটের মাঠেও জোয়ার তুলছেন নবাগত এ প্রার্থী। ২০০৮ সাল থেকে ভোটের মাঠে রয়েছেন হাবিবুর রহমান হাবিব। তিনি নৌকার টিকিটের জন্য লড়াই করার পাশাপাশি স্থানীয়ভাবেও কাজ করেছেন। সুতরাং তার পক্ষেই তৃণমূলের নেতারা রয়েছেন।

আওয়ামী লীগ প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব জানিয়েছেন, এই উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ ঐক্যবদ্ধ রয়েছে। মানুষ নৌকার পক্ষে, উন্নয়নের পক্ষে ঐক্যবদ্ধ। এ কারণে জয় হবে নৌকারই।

অপরদিকে, আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী হাবিবুর রহমান ছাড়াও এই নির্বাচনে জাতীয় পার্টির মোহাম্মদ আতিকুর রহমান লাঙ্গল প্রতীকে, বাংলাদেশ কংগ্রেসের জুনায়েদ মোহাম্মদ মিয়া ডাব প্রতীকে এবং বিএনপির কেন্দ্রীয় সদস্য (বহিষ্কৃত) স্বতন্ত্র প্রার্থী শফি আহমেদ চৌধুরী মোটর গাড়ি মার্কা নিয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

প্রসঙ্গত, করোনা আক্রান্ত হয়ে এ বছরের ১১ মার্চ সিলেট-৩ আসনের সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরীর মৃত্যু হয়। এরপর ১৫ মার্চ আসনটি শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। সংবিধানের অনুচ্ছেদ ১২৩ এর দফা (৪) অনুযায়ী, উক্ত শূন্য আসনে ৮ জুনের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠানের কথা থাকলেও করোনার কারণে ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন সম্ভব হয়নি।

এ অবস্থায় শূন্য আসনটিতে ৮ জুন পরবর্তী ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য তফসিল ঘোষণা করে ইসি। সেই তফসিল অনুযায়ী গত ২৮ জুলাই এই আসনের উপনির্বাচন ইভিএম পদ্ধতিতে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় এর দুদিন আগে ভোটগ্রহণ স্থগিত করেন আদালত। পরবর্তীতে ৪ সেপ্টেম্বর ভোটগ্রহণের দিন ধার্য্য করে ইলেকশন কমিশন। সিলেটের দক্ষিণ সুরমা, ফেঞ্চুগঞ্জ ও বালাগঞ্জ উপজেলা নিয়ে গঠিত সিলেট-৩ আসন। যার সংসদীয় নং ২৩১। আসনটিতে মোট ভোটার ৩ লাখ ৫২ হাজার ও ভোটকেন্দ্র ১৪৯টি।

 


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin