সোমবার, ১৭ মে ২০২১, ১০:৫২ পূর্বাহ্ন

মুক্তিযোদ্ধার গেজেট থেকে বাদ পড়লেন শায়েস্তাগঞ্জের বিজিবি’র এক সিপাহী

মুক্তিযোদ্ধার গেজেট থেকে বাদ পড়লেন শায়েস্তাগঞ্জের বিজিবি’র এক সিপাহী


শেয়ার বোতাম এখানে

কামরুজ্জামান আল রিয়াদ, শায়েস্তাগঞ্জ:

হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার নুরপুর ইউনিয়নের (অবঃ) এক বিজিবির সিপাহী কে মুক্তিযোদ্ধার গেজেট বাতিল করা হয়েছে। বাতিলকৃত মুক্তিযোদ্ধা শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার নুরপুর ইউনিয়নের মৃত সোহরাব আলীর ছেলে।

গত রবিবার এক প্রজ্ঞাপন জারি করে সারাদেশে এক হাজার ১৮১ জনের মুক্তিযোদ্ধার সনদ বাতিল করে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়।

তথ্যানুসন্ধানে জানা যায়, গেজেট বাতিল হওয়া ব্যক্তিরা মুক্তিযুদ্ধের পর বিমান বাহিনী ও বিজিবিতে যোগদানকালে নিজেদের মুক্তিযোদ্ধা পরিচয় দিয়ে গেজেটভুক্ত হয়েছিলেন। কিন্তু মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের কাছে তাদের গেজেটভুক্তির কোনো কাগজপত্র ছিল না। পরে বাহিনীগুলোর কাছে মুক্তিযুদ্ধের পর গেজেটভুক্ত হওয়া মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা চাওয়া হয়েছিল। এর মধ্যে শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার আবু তাহেরর নামও ছিল । ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বরের পর তৎকালীন বিডিআর বর্তমানে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ’এ (বিজিবি) যোগদানকৃতদের একজন তিনি ।

তার মুক্তিযুদ্ধে অংশ গ্রহনের প্রমান চাইলে তিনি তা উপস্থাপন করতে না পারায়। মুক্তিযুদ্ধাদের তালিকার গেজেট থেকে বাদ পড়েন। বাতিল কৃত গেজেট নাম্বার ৭৯০।

জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল আইন-২০০২’ (২০০২ সনের ৮নং আইন) এর ৭(ঝ) ধারা অনুযায়ী জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল (জামুকার) সুপারিশের প্রেক্ষিতে এর তালিকা ৪১ এর ৫নং ক্রমিকে প্রদত্ত ক্ষমতা বলে জামুকার ৬৬তম সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক স্বাধীনতা যুদ্ধের (১৬ ডিসেম্বর ১৯৭১ সালের) পর বাহিনীতে যোগদানকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের গেজেট বাতিল করে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে আবু তাহের জানান, ১৯৭৫ সালের ৮ই ডিসেম্বর বিডিআরের সিপাহী পদে যোগদান করেন। ১৯৯৬ সালের ৩ই জুলাই অবসরে আসেন তিনি। মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহন করেছেন এতদিন পরে কেন উনাকে বাতিল করা হল তিনি বুঝে উঠতে পারছেন না।

তিনি ব্যক্তিগত জীবনে দুই মেয়ের জনক। দুই মেয়েই জামাতাদের সাথে প্রবাসে আছে। তিনি অবসরে আসার পর থেকে ব্যবসা করেছেন। তালিকাভুক্ত হতে আবারও আবেদন করবেন বলে জানান।

এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড সংসদের ভারপ্রাপ্ত কমান্ডার গৌর প্রসাদ রায় বলেন বিজিবির (অবঃ) সিপাহী আবু তাহের মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন তা আমরা মন্ত্রনালয়ের চিঠি পেয়েছি।

এ বিষয়ে শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) সুমী আক্তার বলেন শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা দপ্তরের কাজ এখনো হবিগঞ্জ সদর উপজেলার সাথেই আছে। তাই এ বিষয়ে আমি কিছু বলতে পারতেছিনা। মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রনালয় যাচাই বাচাই করে হয়তো উনার সঠিক তথ্য না পাওয়ায় তালিকা থেকে বাদ দেয়া হয়েছে।



শেয়ার বোতাম এখানে

সমস্ত পুরানো খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  



themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin