বুধবার, ১২ মে ২০২১, ০১:১৯ পূর্বাহ্ন

মৌলভীবাজারে বনে পৌরসভার আবর্জনা, ১২ জনকে বেলার নোটিশ

মৌলভীবাজারে বনে পৌরসভার আবর্জনা, ১২ জনকে বেলার নোটিশ


শেয়ার বোতাম এখানে
  • 9
    Shares

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:

মৌলভীবাজারের সদর উপজেলার বর্ষিজোড়া ইকো পার্কের জায়গায় মৌলভীবাজার পৌরসভা কর্তৃক ময়লা আবর্জনা ফেলা হচ্ছে। এছাড়া আবর্জনা পরিবহণের সুবিধার্থে রাস্তা প্রশস্ত করার জন্য মৌলভীবাজার স্টেডিয়াম সংলগ্ন বনের টিলা কেটে মাটি সরানো হয়েছে। এতে এলাকার পরিবেশ দূষণ থেকে বন্যপ্রাণীর ক্ষতি হচ্ছে উল্লেখ করে বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতি (বেলা) ভূমি, স্থানীয় সরকারসহ পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের ৩ সচিবসহ ১২ জনকে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছে।

নোটিশ প্রপ্তির ৭ (সাত) দিনের মধ্যে নিম্ন স্বাক্ষরকারীকে অবহিত করার কথা বলা হয়েছে। অন্যথায় তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

গত ৭ এপ্রিল দেশের বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে বনের জায়গায় আবর্জনা ফেলা হচ্ছে মর্মে সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশ হয়।

বেলা সিলেটের সমন্বয়ক শাহ সাহেদা মঙ্গলবার বিকালে বলেন, বেলার প্রতিনিধিদল ঘটনাস্থল সরেজমিনে পরিদর্শন করে অভিযোগের সত্যতা পেয়েছে। পরে বেলার সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবী সাঈদ আহমেদ কবীর সোমবার (২৬ এপ্রিল) রেজিস্ট্রি ডাকযোগে ১২ জনের কাছে এ নোটিশ পাঠান। নোটিশ পাঠানোর সাত দিনের মধ্যে সংশ্লিষ্ট সবাইকে জবাব দিতে বলা হয়েছে। অন্যথায় এলাকাবাসীর পরিবেশগত অধিকার ও জনস্বাস্থ্য রক্ষার স্বার্থে সবার বিরুদ্ধে বেলা আইনগত ব্যবস্থা নেবে।

ভূমি স্থানীয় সরকারসহ পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের ৩ সচিবসহ ছাড়াও পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, বন সংরক্ষক, মৌলভীবাজারের জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার, পরিবেশ অধিদপ্তর সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ের পরিচালক, বিভাগীয় বন কর্মকর্তা, বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ, সিলেট, সদর দপ্তর- বর্ষিজোড়া, মৌলভীবাজার, মেয়র, মৌলভীবাজার পৌরসভা, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা,সদর উপজেলা ও সহকারী পরিচালক, পরিবেশ অধিদপ্তর, মৌলভীবাজার—মোট ১২ জনকে এ নোটিশ পাঠানো হয়েছে বলে তিনি জানান।

নোটিশে বলা হয়েছে, গত ৪ এপ্রিল থেকে শহরের ময়লা আবর্জনা ও প্লাস্টিক বর্জ্য ফেলার কারণে বনের পরিবেশ দূষিত হচ্ছে ও দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে যা বন, বন্যপ্রাণীসহ পশুপাখি এবং জনস্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। ময়লা আবর্জনার জন্য পরিবেশ দূষিত হলে গুরুত্বপূর্ণ স্থান স্টেডিয়ামে আসা দর্শনার্থীসহ বর্যিজোড়া ইকো পার্কে আগত পর্যটকরাও ক্ষতিগ্রস্ত হবেন।

বন বিভাগের মালিকানাধীন উক্ত ইকো পার্কের (খতিয়ান নং ৩) ৪ নং দাগের ২০১ একরের মধ্যে প্রায় ১(এক) একর জায়গায় ময়লা আবর্জনা ফেলা হচ্ছে। বন বিভাগের লিখিত আপত্তি সত্ত্বেও বনের জায়গায় বেআইনিভাবে ময়লা আবর্জনা ফেলে রাখা এক ধরণের জবরদখলের শামিল।

বেলার নোটিশে আরও উল্লেখ রয়েছে, সকল প্রকার ময়লা আবর্জনা ও প্লাস্টিক বর্জ্য অপসারণ করে বর্জ্য ডাম্পিং কার্যক্রম বন্ধ করতে হবে, টিলা কাটা বন্ধ করতে হবে ও কাটা অংশে দেশীয় প্রজাতির বৃক্ষ দ্বারা বনায়ন করতে হবে এবং উক্ত কাজের জন্য ক্ষতির পরিমাণ নির্ধারণ করে ক্ষতিপূরণ আদায়ের দাবি জানাচ্ছে।

বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা রেজাউল করিম চৌধুরী বিষয়টি খুবই দু:খজনক দাবি করে বলেন, এই জমিটুকু আমাদের বর্ষিজোড়া ইকো-পার্ক তথা বনবিভাগের। এখানে শহরের ময়লা ও ব্যবহৃত বোতলজাত আবর্জনা ফেলা মোটেও ঠিক হয়নি। তাছাড়া বনের টিলা কেটে অবৈধভাবে রাস্তা নির্মাণ করা হচ্ছে। এবিষয়ে মৌলভীবাজার পৌরসভার মেয়রকে ময়লা ফেলা বন্ধ ও রাস্তা নির্মাণ কার্যক্রম বন্ধ রাখার জন্য বলা হয়েছে। কিন্তু তাদের কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

এব্যাপারে মৌলভীবাজার পৌর মেয়র মো. ফজলুর রহমান বলেন, আসলে পরিত্যক্ত জমি থাকায় সেখানে ময়লা ফেলা হচ্ছে। তবে বনবিভাগের কাছ থেকে এবিষয়ে আপত্তি পাওয়া গেছে। তবে সাময়িকভাবে ফেলা হচ্ছে। আমাদের ডাম্পিং স্টেশন হয়ে গেলে ময়লা ফেলার কোন অসুবিধা হবে না। অন্যদিকে বনের টিলা কেটে অবৈধ কোন রাস্তা নির্মাণ করা হচ্ছে না বলে তিনি দাবি করেন।

এ প্রসঙ্গে মৌলভীবাজারের জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান জানান, আইন-শৃঙ্খলা সভায় ডিএফও বিষয়টি উপস্থাপন করেন। আমি বন বিভাগকে বলেছি যে তারা তাদের সীমানায় তারের বেড়া তৈরি করবে। বিতর্কিত এলাকায় যেন বর্জ্য না ফেলা হয় সেটা পৌর মেয়রকে বলা হয়েছে। যারা বিধি অমান্য করেছেন তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও তিনি জানান।



শেয়ার বোতাম এখানে
  • 9
    Shares

সমস্ত পুরানো খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  



themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin