বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১:০২ পূর্বাহ্ন


রাত পোহালে বিয়ানীবাজার পৌরসভা নির্বাচন, রাতে ভোট কেনা-বেচা ঠেকাতে গ্রামে গ্রামে পাহারা

রাত পোহালে বিয়ানীবাজার পৌরসভা নির্বাচন, রাতে ভোট কেনা-বেচা ঠেকাতে গ্রামে গ্রামে পাহারা


শেয়ার বোতাম এখানে

মিসবাহ উদ্দিন, বিয়ানীবাজার:

রাত পোহালে অনুষ্ঠিত হবে বিয়ানীবাজার পৌরসভার নির্বাচন। ভোটের আগের রাত প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী ও ভোটারদের কাছে অতি গুরুত্বপূর্ণ। এই রাতে প্রার্থীরা, চেষ্টা করবেন টাকা পয়সা দিয়ে ভোট কেনাবেচা করতে।

নানা কৌশলে ফন্দিফিকিরে একগ্রাম থেকে অন্যগ্রামে ঢোকার চেষ্টা করবেন তারা। আর এমন অপতৎপরতা বন্ধে গ্রামে-গ্রামে পাহারায় নিজ নিজ এলাকার প্রার্থীরা।

এবারের বিয়ানীবাজার পৌর নির্বাচনে ভোটের আগের রাতে প্রার্থীরা অবৈধ টাকা লেনদেন চালাতে পারেন আশঙ্কা প্রকাশ করে ভোটের আগের রাতকে ঘিরে সতর্ক থাকার নির্দেশ পেয়েছে পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। বিয়ানীবাজার পৌরসভায় মেয়র পদে প্রতিদ্বন্ধিতাকারী প্রার্থীরা ২-১জন ব্যতিত সবাই প্রবাসী সম্পদশালী ।

পৌর নির্বাচনকে তারা চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়ে ভোটের আশায় বিপুল পরিমাণ টাকা পয়সা ব্যয় করবেন।বলে একটি সুত্রে জানা যায় এমন ধারণা থেকে নিজ গ্রাম-এলাকা পাহারা দিতে পৃথক দল গঠন করেছেন সংশ্লিষ্ট এলাকার প্রার্থীরা। সন্ধ্যার পর থেকেই স্ব স্ব প্রার্থীর সমর্থকরা তাদের এলাকার গুরুত্বপূর্ণ স্থানে জোট বেঁধে পাহারা বসছেন অনেকে। মেয়র প্রার্থীদের আলোচনার সঙ্গে সমান তালে আলোচনায় রয়েছে সংরক্ষিত ওয়ার্ডের মহিলা কাউন্সিলার ও সাধারণ কাউন্সিলাররাও ভোট ব্যাংক পাহারায় সজাগ থাকছেন।

রাত জেগে ভোট পাহারা দেয়া হবে কেন এমন প্রশ্নের জবাবে এক মেয়র প্রার্থীর সমর্থকরা বলেন,অনেকেই এই রাতকে চাঁদ রাত বলে সম্বোধন করেন। ভোটের আগের মুহূর্তে কেউ যেন তাদের পক্ষের ভোটারদের টাকার লোভ বা ভয়ভীতি দেখিয়ে স্বার্থ উদ্ধার করতে না পারে সে জন্যই এ পাহারা। কারণ আমরা চাই একজন ভালো মানুষ জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হয়ে আসুক।

এদিকে ভোটদানের জন্য প্রবাস থেকে দেশে ফিরেছেন পৌর এলাকার অন্তত: অর্ধ সহস্রাধিক ভোটার। তারাও ভোটের মাঠে ব্যাপক প্রভাব ফেলছেন। অঞ্চল, গোত্র, গুষ্টি এবং গ্রাম নিয়ে তাদের নানামুখি রাজনীতি আর কৌশল নিয়ে ভোটাররাও উৎফুল্ল। তবে কিছু প্রবাসী পছন্দের প্রার্থীর পক্ষে টাকা-পয়সাও বিলি করছেন। যা নির্বাচনী আচরণবিধির পরিপন্থি।

রাতে অনেক ভোটার দের ভয়ভীতি ও ভোট কেনা টাকা লেনদেন এইসব বিষয়ে আইনী ভুমিকা সম্পর্কে জানতে চাইলে বিয়ানীবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হিল্লোল রায় বলেন, সুষ্ঠু নির্বাচন করতে যা প্রয়োজন তা আইনশৃংখলা বাহিনীর পক্ষ থেকে করা হবে। কোথাও টাকা পয়সা বিতরণ কিংবা কোন ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া গেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আলমগীর হোসেন বলেন, নির্বাচন নিয়ে কোন অনিয়ম বরদাসত করা হবেনা। কেউ কোন ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটাতে চাইলে আইনীভাবে কঠিন পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হবে। তিনি বলেন, টাকা পয়সা বিলির সাথে জড়িত কাউকে ধরা হলে ছাড় দেয়া হবেনা।


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin