মঙ্গলবার, ২৩ Jul ২০২৪, ০৮:৩৫ পূর্বাহ্ন


রাষ্ট্রপতি হওয়ার ইচ্ছা ছিল মুহিতের

রাষ্ট্রপতি হওয়ার ইচ্ছা ছিল মুহিতের


শেয়ার বোতাম এখানে

শুভ প্রতিদিন ডেস্ক:

রাষ্ট্রপতি হওয়ার ইচ্ছা ছিলো সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের। তবে রাষ্ট্রপতি না হতে পারার জন্য দুঃখ নেই বলেও জানিয়েছেন প্রাজ্ঞ এই রাজনীতিবিদ।

একটি জাতীয় দৈনিককে দেয়া সাক্ষাতকারে এমনটি জানিয়েছেন মুহিত। শুক্রবার এই সাক্ষাতকারটি প্রকাশিত হয়।

৮৮ বছর বয়স্ক মুহিত অনেকদিন ধরেই অসুস্থ। তিনি লিভার ক্যান্সারে ভুগছেন বলে জানা গেছে। এরমধ্যে করোনায়ও আক্রান্ত হন। কিছুদিন আগে হাসপাতালেও ভর্তি হতে হয় তাকে। হাসপাতালে চিকিৎসায় কিছুটা সুস্থ হয়ে গত সোমবার সিলেট আসেন মুহিত।

এরপর থেকে সিলেটের নানা শ্রেণি পেশার মানুষ তাকে দেখতে ভিড় করছেন নগরের হাফিজ কমপ্লেকত্সে মুহিতের বাসায়।

ওই বাসায়ই দেয়া সাক্ষাতকারে মুহিত বলেন, ৮৮ বছর অনেক লম্বা সময়। এই সময়ে বেঁচে আছি, এটাও একটা বড় প্রাপ্তি। রোগ-শোক থাকবেই। তারপরও অনেকটা ভালো আছি।

মন্ত্রী থাকাকালে সরকারের সহযোগিতা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সরকারের সর্বাত্মক সহযোগিতা পেয়েছি। শেখ হাসিনা আমার উন্নয়নের একটা বড় শক্তি। যে শাসন করে, তার সঙ্গে সম্পর্ক মধুর না হলে কাজ করা কঠিন। আমি সেদিক দিয়ে অনেকটা ‘সাকসেসফুল’।

দেশের অর্থনীতির বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে সাবেক এই অর্থমন্ত্রী বলেন, এখন আর তখন। এই দুই সময়ের মধ্যে অনেকটা ফারাক আছে। আমি যে ধারাবাহিকতা রেখে এসেছি, তা ধরে রাখা গেলে তেমন বেগ পোহাতে হবে না। যদি না বড় ধরনের কোনো দুর্যোগ সামনে এসে না দাঁড়ায়।

তার রাষ্ট্রপতি হওয়ার গুঞ্জন সর্ম্পকে মুহিত বলেন, আমার একটা মনোবাসনা ছিল। রাষ্ট্রপতি হওয়ার। কিন্তু না হওয়াতে কোনো ক্ষোভ বা দুঃখ নেই। সবকিছুই একটা নিয়মে হয়ে থাকে।

সিলেটের বর্তমান অবস্থা প্রসঙ্গে সিলেট-১ আসনের সাবেক এই সাংসদ বলেন, সময় অনেক কিছু পরিবর্তন করে। শুধু সিলেট নয়, সারাদেশেই পরিবর্তন হয়েছে। আগে আমার চুল ছিল কালো, এখন সাদা হয়েছে- এটাই বাস্তবতা। তবে অনেক পরিবর্তন, এটি দেখে অনেকটা ভালো লাগে।

করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর থেকেই গুণী এই ব্যক্তি শারীরিকভাবে দুর্বল হয়ে পড়েন। গেল সপ্তাহে রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। নিজের শহর সিলেটের জন্য মন টানছিল। সিলেটে আসার পর থেকেই হাসিখুশি। রাতে ঘুরে দেখেন পুরো সিলেট।

সূত্র: সমকাল


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin