বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ১০:৫৩ পূর্বাহ্ন



শাহ আরেফিন টিলায় আবারও গর্ত ধসে শ্রমিক আহত

শাহ আরেফিন টিলায় আবারও গর্ত ধসে শ্রমিক আহত


স্টাফ রিপোর্ট:

সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার আরেফিন টিলায় অবৈধভাবে পাথর উত্তোলনজকালে
গর্ত ধসের ঘটনা ঘটেছে। সোমবার ভোররাত ৪টার দিকে ফয়জুর রহমানের একটি গর্ত থেকে পাথর উত্তোলনের সময় সেখানে ধসের ঘটনা ঘটে।

এতে ধ্বংসস্তূপের নিচে চাপা পড়েনে এক শ্রমিক। গর্ত থেকে ঢোলাখাল গ্রামের মুহাম্মদ আলী নামের এক শ্রমিকে গুরুত্বর আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। গুরুত্বর আহত মুহাম্মদ আলী সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধিন রয়েছেন।

যোগাযোগ করলে কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) রজিউল্লাহ খান জানান, রাতের বেলা কোয়ারি এলাকায় গর্তের পাড় দিয়ে হেটে আসার সময় বৃষ্টির কারণে মাটি নরম থাকায় ধসে আহত হয় মুহাম্মদ আলী।

স্থানীয়রা জানান, করোনার মধ্যে প্রতিদিন রাতে পুলিশকে ম্যানেজ করে চলছিল পাথর উত্তোলন। পাথরবাহী প্রতিটি ট্রাক্টর ও ট্রলি থেকে সরাসরি আদায় করা হয় চাঁদা। পাথর খেকোচক্রের সাথে পুলিশের গভীর সম্পর্ক থাকায় স্থানীয়রা এসব নিয়ে মুখ খুলতে ভয় পান।

শাহ আরেফিন টিলা এলাকায় গভীর গর্ত করে যন্ত্র দিয়ে যত্রতত্র পাথর উত্তোলন করতে গিয়ে একের পর এক শ্রমিক নিহত হওয়ার ঘটনাস্থল হিসেবে পরিচিতি শাহ আরেফিন টিলা।

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার যাতায়াত বিড়ম্বিত এলাকা সীমান্তবর্তী পশ্চিম ইসলামপুর ইউনিয়নে টিলাটির অবস্থান। ২০১৭ সালের ২৩ জানুয়ারি গর্ত ধসে প্রথম শ্রমিক হতাহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছিল। ওই দিন একসঙ্গে ছয়জন শ্রমিক নিহত হয়েছিলেন। এরপর থেকে ওই এলাকায় শ্রমিক হতাহত হওয়ার ঘটনা ঘটছে।

উপজেলা প্রশাসনের পরিসংখ্যান ও গত তিন বছরের পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, ২০১৭ সাল থেকে গত তিন বছর জানুয়ারি মাসেই ১২ জন পাথর শ্রমিক নিহত হয়েছেন শাহ আরেফিন টিলায়। ২০১৯ সালের ২০ জানুয়ারি একজন শ্রমিক নিহত এবং ২০১৯ সালের ২৩ জানুয়ারি দুই শ্রমিক আহত হন এবং তানভির হোসেন (২৭) নামের একজন পাথরশ্রমিক নিহত হয়েছিলেন। এছাড়াও আরো ৬ শ্রমিক বিভিন্ন সময় শাহ আরেফিন টিলায় নিহত হন।


সমস্ত পুরানো খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  



themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin