বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ০২:৫৭ পূর্বাহ্ন



শায়েস্তাগঞ্জে একমাত্র করোনা রোগী বাড়িতে থেকেই সুস্থ হলো

শায়েস্তাগঞ্জে একমাত্র করোনা রোগী বাড়িতে থেকেই সুস্থ হলো


কামরুজ্জামান আল রিয়াদ, শায়েস্তাগঞ্জ:

হবিগঞ্জ জেলার প্রতিটি উপজেলায় যেখানে প্রতিনিয়ত বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা একমাত্র ব্যাতিক্রম উপজেলা শায়েস্তাগঞ্জ। দেশে করোনা ভাইরাস সংক্রমনের পর থেকে মাত্র একজন করোনা ভাইরাসে পজিটিভ পাওয়া গেছে।

গত ২১ মে রাতে শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার চরহামুয়ার আব্দুল ওয়াহিদ রাজা নামে এক কলেজ ছাত্রের করোনা পজিটিভ আসে। ২২ মে সকালে উপজেলা প্রশাসন রাজা ও তার পরিবারের সবাই কে লকডাউন করে। এরপর থেকে বাড়ি থেকে নিয়মিত চিকিৎসা নিচ্ছিলো রাজা। এরমধ্যে আরো ২ বার নমুনা সংগ্রহে করে পরীক্ষা করোনা হলে নেগেটিভ আসে। সর্বশেষ ৬ জুনও আবারো তার নমুনা পরীক্ষায় নেগেটিভ আসে। এরপর স্বাস্থ্য বিভাগ তাকে সুস্থ্য বলে ছাড়পত্র দেয়। এর ফলে শায়েস্তাগঞ্জের একমাত্র করোনা রোগী টি সুস্থ্য হওয়াতে করোনা মুক্ত হলো উপজেলা।

বিষয়টির সতত্যা নিশ্চিত করেছেন হবিগঞ্জের ডেপুটি সিভিল সার্জন ডাঃ মুখলিছুর রহমান উজ্জল।

করোনা থেকে মুক্ত হওয়া আব্দুল ওয়াহেদ রাজা হবিগঞ্জ বৃন্দাবন সরকারি কলেজে স্নাতক প্রথম বর্ষের ছাত্র। সে উপজেলার শায়েস্তাগঞ্জ ইউনিয়নের চরহামুয়া গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে। করোনা ভাইরাস থেকে মুক্ত হওয়া সম্পর্কে রাজা জানায় নমুনায় পজিটিভ আসার পর থেকে বাড়িতে একটা রুমে একা একা ছিলো। স্বাস্থ্য বিভাগের পরামর্শে প্রতিদিন ৪ বার গরম পানির ঘারগিল করতো। ৪/৫ বার রং আদা দিয়ে চা খেয়েছে। আর গরম পানির বাপ নিতো দিনে ৩ বার। আর প্রচুর পরিমানে ভিটামিন সি জাতীয় ফল খেয়েছে সে। আর এতেই করেই বাড়ি থেকেই সুস্থ্য হয়েছে। রাজা আরো জানায় কেউ করোনায় আক্রান্ত হলে ভয় পাবার কিছু নেই মনে প্রচন্ড মনোবল, সাহস আর নিয়মিত গরম পানি ব্যবহার করলে সুস্থ্য হয়ে উঠবে রোগী।

এ ব্যাপারে রাজার চিকিৎসার দ্বায়িত্বে থাকা কমিউনিটি হেলথ প্রোভাইডার মোঃ আল আমিন ইমরান বলেন রাজার করোনা পজিটিভ আসার পর থেকে সে স্বাস্থ্য বিভাগের নির্দেশনা মোতাবেক কাজ করায় তাড়াড়াড়ি সুস্থ হয়েছে।৬জুন ঢাকার পিসিআর ল্যাব ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ল্যাবটরী মেডিসিন এন্ড রেফারেল সেন্টার থেকে রাজার সর্বশেষ নমুনা পরীক্ষায় নেগেটিভ আসে। তাই স্বাস্থ্য বিভাগ তাকে সুস্থ্য ঘোষনা করেছে।

এ বিষয়ে শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) সুমী আক্তার বলেন নমুনা পরীক্ষা করানোর পর একাধিকবার তার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। তাই তাকে স্বাস্থ্য বিভাগ সুস্থ্য ঘোষনা করেছে।তাদের বাড়ি থেকে লকডাউন উঠিয়ে নেয়া হয়েছে। রাজা উপজেলার মধ্যে একমাত্র করোনা পজিটিভ ছিলো। সে সুস্থ হওয়াতে করোনা মুক্ত হলো শায়েস্তাগঞ্জ।

উল্লেখ্য গত ১৬ মে তার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য সিলেট ল্যাবে পাঠানো হয়েছিল। ২১ মে রিপোর্টে তার করোনা পজিটিভ আসে।


সমস্ত পুরানো খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  



themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin