রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০১:১২ অপরাহ্ন


শায়েস্তাগঞ্জে বন্ধ দোকানে নক করলেই ভিতর থেকে আসে গায়েবী আওয়াজ

শায়েস্তাগঞ্জে বন্ধ দোকানে নক করলেই ভিতর থেকে আসে গায়েবী আওয়াজ


শেয়ার বোতাম এখানে

কামরুজ্জামান আল রিয়াদ, শায়েস্তাগঞ্জ থেকে:

করোনা ভাইরাসের কারণে সারাদেশের ন্যায় শায়েস্তাগঞ্জে ও অঘোষিত লকডাউন করা হয়েছে।সার্বক্ষণিক পুলিশ, সেনাবাহিনীর টহল সহ নিরাপত্তা বেশ জোরদার করা হয়েছে।

সরজমিনে দেখা যায় যে, শায়েস্তাগঞ্জ এর বেশিরভাগ মুদিমালের দোকান, ফ্লেক্সিলোডের দোকান, সেলুন বাহির থেকে দেখা যায় লাগানো, কিন্তু ভিতরে লোকজন রয়েছেন।

তাদের নির্দিষ্ট ক্রেতারা এসে দোকানের সাটারে নক করলেই অনেকটা গায়েবীর মতই আওয়াজ আসে, কে? কি লাগবে আপনার, এভাবেই লুকোচুরি করে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্চেন অনেক দোকানদার রা। এবার কেউ কেউ দোকানের এক সাটার খোলা রেখেছেন, পুলিশের গাড়ি দেখলেই আবার সাটার বন্ধ করে ফেলছেন।

শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার শিল্প নগরী অলিপুরের মুদিমাল ব্যবসায়ী সিপন মিয়া জানান, দেশের যে অবস্থা দুই টাকা বেচাকিনি না করলে খাব কিভাবে, আমাদেরকে তো আর কেউ ত্রাণ দিবে না,তাই দোকান খুলে ঝুকি থাকা সত্তেও কিছু বেচাকিনি করি।

শায়েস্তাগঞ্জ পৌর এলাকার দাউদনগর বাজারের সেলুন ব্যবসায়ী লিটন মিয়াকে দোকান বন্ধ করে ভিতরে কাস্টমারের চুল কেটে দিচ্ছিলো।
খবর পেয়ে শায়েস্তাগঞ্জ থানা পুলিশ দোকানে অভিযান চালায়।

ক্ষমা চেয়ে কোন রকম রক্ষা পান ওই ব্যবসায়ী।
পৌর এলাকার হাসপাতাল সড়কেও একাধিক হোটেলে সাটার বন্ধ রেখে ভিতরে বেচাকেনা করতে দেখা গেছে।
শুধু বন্ধ সাটারে নক করলেই হয়। তবে দেশের সার্বিক দিক বিবেচনা করে জীবনের ঝুকি নিয়ে এইভাবে ব্যবসা চালিয়ে যাওয়া টা সকল জনসাধারণের জন্য হুমকিসরুপ হবে।

এ বিষয়ে শায়েস্তাগঞ্জ ব্যবসায়ী কল্যান সমিতির সভাপতি আবুল কাসেম শিবলু বলেন ব্যবসায়ীদের বার বার সচেতন করা হয়েছে। যাতে তারা আইন অমান্য না করে। তারপরও কিছু কিছু ব্যবসায়ী এ রকম করছেন।
এ বিষয়ে শায়েস্তাগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোজ্জামেল হক বলেন আমরা প্রতিদিন ব্যবসায়ীসহ জনসাধারন কে সচেতন করতে মাইকিং করছি।
আর টহল জোরদার করেছি। বিভিন্ন স্থানে অভিযান ও করছি। তারপরও লোকজন আমাদের সাথে লোকচুরি খেলে। টহল আরো বাড়ানো হবে।


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin