বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ০২:১৮ অপরাহ্ন


শায়েস্তাগঞ্জে বন্য শুকুরের হানা আতংকে কয়েকটি গ্রামের মানুষ

শায়েস্তাগঞ্জে বন্য শুকুরের হানা আতংকে কয়েকটি গ্রামের মানুষ


শেয়ার বোতাম এখানে

শায়েস্তাগঞ্জ প্রতিনিধি :

হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার কয়েকটি গ্রামে বেশ কয়েকদিন ধরে বন্য শুকুর গ্রামে হানা দিচ্ছে। রাত হলেই পাহাড় থেকে খাদ্যের সন্ধানে এরা দলবেধে গ্রামে ডুকে পড়ে। উপজেলার সুরাবই, পুরাসুন্দা ও লাদিয়া গ্রামে এসব হিংস্র প্রাণীগুলো আক্রমন করে যাচ্ছে।

ফলে আতংকে দিন কাটাচ্ছেন এলাকাবাসী। শুকুররা দলবেধে এসে কারো পাকাধান, নতুন বাশের চারা, কৃষিজমির নানারকম ফলফসলাদি এরা সাবাড় করে ফেলছে। এলাকার শিশুরা ভয়ে ঘর থেকে বের হতে পারেনা। গ্রামে ডুকে খাদ্য না পেলে রাতের আধারে মানুষের ঘরে ডুকার চেষ্টা করে।

সুরাবই গ্রামের জাহাঙ্গীর আলম জানান, বন্য শুকুরের আক্রমণের কারণে আমার কয়েক লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে, এরা খুবই হিংস্র প্রাণী। এদের থেকে বাচার পথ দেখছিনা। পুরাসুন্দা গ্রামের ফারুক মিয়া জানান গ্রামের পাশেই পাহাড় থাকায় এদের সংখ্যা অনেক বেড়েছে এদের জন্য আতংকে দিন কাটাচ্ছি আমরা।

সুরাবই গ্রামের কদ্দুছ মিয়া জানান, প্রায় ৮-১০ বছর আগে সুরাবই গ্রামে শুকুর একবার হানা দিয়েছিল পরে প্রশাসনের সহায়তায় একটি প্রাণীকে হত্যা করা হয়েছিল।

নুরপুর ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আবু বক্কর সিদ্দিকী ঘটনাটির সতত্যা নিশ্চিত করে বলেন প্রতিরাতে পার্শ্ববর্তী রঘুনন্দন পাহাড় থেকে খাবারের সন্ধানে দল বেধে বন্য শুকুর গ্রামে হানা দেয়। এতে ফসল ও ফলের ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে। আমি প্রশাসন কে বিষয়টি অবগত করেছি।

এ বিষয়ে হবিগঞ্জ ওয়াইল্ড লাইফ বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা ( ডিএফও ) মো: আব্দুল ওয়াদুদ বলেন, এ বিষয়ে কেউ বলেনি এখন শুনলাম। তবে মনে হয় শুকুররা বনে ঠিকমত খাবার না পেয়ে গ্রামে চলে আসছে খাবারের সন্ধানে।

গ্রামের মানুষরা শুকুরের দলকে ভয় দেখালে আর আসবে না। আমি আমাদের বন প্রহরি দের কে আরো সর্তক হতে বলব।


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin