শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১, ০৬:৪৮ পূর্বাহ্ন

সরওয়ার হোসেনের অর্থায়নে পুনরায় চালু হলো মোল্লাপুর ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্র

সরওয়ার হোসেনের অর্থায়নে পুনরায় চালু হলো মোল্লাপুর ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্র


শেয়ার বোতাম এখানে

বিয়ানীবাজার প্রতিনিধি :
বেশ কয়েক দফায় দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ থাকার পর পুনরায় চালু হয়েছে বিয়ানীবাজারের মোল্লাপুর ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার-পরিকল্পনা কেন্দ্র। সম্প্রতি কানাডা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সরওয়ার হোসেনের অর্থায়নে এবং স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও এলাকাবাসীর প্রচেষ্ঠায় এ স্বাস্থ্য কেন্দ্রটি পুনরায় চালু হয়। এ সংবাদে স্বাস্থ্যসেবায় পিছিয়ে পড়া মোল্লাপুর ইউনিয়নবাসীর মাঝে ফিরেছে স্বস্তি। জানা গেছে, মোল্লাপুর ইউনিয়নের প্রায় ৮ হাজার মানুষের চিকিৎসাসেবার জন্য একমাত্র আশ্রয় স্থল হচ্ছে এ স্বাস্থ্য কেন্দ্রটি।

কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত এ স্বাস্থ্য কেন্দ্রটি অবহেলা আর অযত্নে নষ্ট হলেও কর্তৃপক্ষের সুষ্ঠু তদারকির অভাবে এবং স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ডাক্তারসহ মোট ৫ পদের সবগুলো পদই শূণ্য থাকায় দীর্ঘদিন থেকে এখানে চিকিৎসা সেবা প্রদান বন্ধ ছিল। এছাড়া মূল ভবনের পাশে থাকা ডরমেটরি ভবনের অবস্থাও ছিল বেহাল। তিন কক্ষ বিশিষ্ট এ ডরমেটরি স্বাস্থ্য সেবার জন্য নির্মিত হলেও দায়িত্বশীলদের অবহেলায় বিফলে যেতে বসেছিল। এতে ইউনিয়নের গর্ভবতী মায়েদের স্বাস্থ্য সুরক্ষাসহ গ্রামীণ শিশু, নারী ও সাধারণ রোগীদের চিকিৎসাসেবা কার্যক্রম ব্যাহত হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সম্প্রতি কানাডা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সরওয়ার হোসেনের অর্থায়নে এবং স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও এলাকাবাসীর যৌথ প্রচেষ্ঠায় এ স্বাস্থ্য কেন্দ্রটি পুনরায় চালু হয়েছে। পাশাপাশি স্বাস্থ্য কেন্দ্রের বিদ্যুৎ সংযোগ, পানি সরবরাহ পুনঃসঞ্চালন, পয়নিষ্কাশন ব্যবস্থাসহ আনুষাঙ্গিক বিভিন্ন মেরামতের কাজ করা হয়েছে।

এদিকে, দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর স্বাস্থ্য কেন্দ্রটি পুনরায় চালু হওয়ার সংবাদে স্বাস্থ্যসেবায় পিছিয়ে পড়া মানুষদের মাঝে স্বস্তি ফিরে এসেছে। দীর্ঘদিন ধরে চিকিৎসাসেবা বঞ্চিত ইউনিয়নের হাজারো মানুষের সেবায় স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। এসময় স্বাস্থ্য কেন্দ্রটি পুনরায় চালু করতে সহযোগিতায় এগিয়ে আসায় সরওয়ার হোসেন-এর প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।

সরওয়ার হোসেন বলেন, কিছুদিন পুর্বেও এই ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্রের অবস্থা খুব শোচনীয় ও নাজুক এবং ব্যবহারের অনুপযোগী ছিল। আমি স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও এলাকাবাসীকে সাথে নিয়ে স্বাস্থ্য কেন্দ্রটি পুনরায় চালু করার উদ্যোগ নেই এবং বাস্তবায়নের লক্ষ্যে কাজ করে সফল হই। তিনি বলেন, স্বাস্থ্য কেন্দ্রটি ব্যবহার উপযোগীর করার পাশাপাশি চিকিৎসক নিয়োগের জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে সেই ব্যবস্থা করে দিয়েছি। এতে ইউনিয়নের হাজারো মানুষ নিজেদের দোড়গোড়ার মধ্যে সহজেই চিকিৎসা সেবা পাচ্ছে।



শেয়ার বোতাম এখানে

সমস্ত পুরানো খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  



themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin