মঙ্গলবার, ০২ মার্চ ২০২১, ১২:৫৮ পূর্বাহ্ন

সরওয়ার হোসেন-রাজনীতির ময়দানে মানবতার এক ফেরিওয়ালা

সরওয়ার হোসেন-রাজনীতির ময়দানে মানবতার এক ফেরিওয়ালা


শেয়ার বোতাম এখানে
  • 36
    Shares

মোঃ নাজিম উদ্দিন:

সরওয়ার হোসেন, সিলেটের রাজনৈতিক অঙ্গনে এক অতি পরিচিত মুখ। বাড়ি সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলার মুল্লাগ্রামে। ছাত্রজীবন থেকে আওয়ামী ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত। বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে লালন করে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তুলতে সেই ছাত্রজীবন থেকে দলের একজন একনিষ্ট কর্মী হিসাবে কাজ করে চলেছেন।

ছাত্রজীবনে ঢাকা তিতুমীর কলেজের ছাত্র সংসদের এজিএস নির্বাচিত হয়েছিলেন। পরবর্তীতে ১৯৮৩ সালে তিনি স্বৈরাচার এরশাদ বিরোধী আন্দোলনে রাজপথে বলিষ্ট ভুমিকা পালন করে স্বৈরশাসকের হামলা-মামলার স্বীকার হয়েছিলেন।

একসময় স্বৈরশাসকের অত্যাচার ও নির্যাতনে দেশ ত্যাগ করে কানাডায় আশ্রয় নিতে বাধ্য হয়েছিলেন।পরবর্তীতে তিনি কানাডায় স্ব-পরিবারে স্হায়ীভাবে বসবাস শুরু করেন।কিন্তু রক্তে যার রাজনীতি সে তো বসে থাকার পাত্র নয়।ধীরে ধীরে তিনি কানাডায় তার প্রানপ্রিয় সংগঠন আওয়ামীলীগকে সংগঠিত করতে থাকেন।

পরবর্তীতে ১৯৯০ সালে তিনি কানাডা আওয়ামীলীগের প্রতিষ্টাতা সভাপতি নির্বাচিত হন।এছাড়া ২০০৬ সালের ওয়ান ইলেভেনের সেই দুঃসময়ে যখন দেশের শীর্ষস্হানীয় দুই নেত্রীকে জেলে নেয়া হয় তখন দেশের অনেক নামী-দামী রাজনীতিবিদরা নিজেদের রক্ষায় ব্যস্ত ছিলেন কিন্তু দলের একনিষ্ট কর্মী সরওয়ার হোসেন নিজের জীবনের ঝুকি নিয়ে বর্তমান মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পাশে দাড়িয়েছিলেন।উনার সেই সময়ের বিশ্বস্ততার কারনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আস্হা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছিলেন।

বর্তমানে তিনি দীর্ঘদিন ধরে কানাডার উন্নত ও বিলাসী জীবন এবং পরিবার পরিজন ছেড়ে দেশে অবস্হান করছেন।সেই সাথে লক্ষনীয় বিষয় দীর্ঘদিন ধরে তিনি বিয়ানী বাজার-গোলাপগন্জের মানুষের কল্যানে কাজ করে চলেছেন।

বর্তমান সময়ে যখন অধিকাংশ রাজনীতিবিদ দলের পদ-পদবীর জন্য দৌড়যাপে সদা ব্যস্ত তখন সরওয়ার হোসেন সে পথে না হেটে দলের একজন কর্মী হিসাবে মানুষের কল্যানে কাজ করে চলেছেন।মানুষের কল্যানে কাজ করতে চাইলে এবং মানুষের ভালোবাসা অর্জন করতে হলে যে দলের পদ-পদবী মুখ্য নয় তার উৎকৃষ্ট উদাহরন সরওয়ার হোসেন।দলের গুরুত্বপুর্ন পদ-পদবী বহন না করেও তিনি যেভাবে মানুষের কল্যানে কাজ করে চলেছেন বর্তমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে তা অনেকটা বিরল।

এছাড়া সিলেটের রাজনীতিতে সকল দলের নেতা কর্মীদের সাথে রয়েছে তার সুসম্পর্ক।তিনি কখনো প্রতিহিংসার রাজনীতি করেন না এবং নিজেকে দলের একজন কর্মী হিসাবে পরিচয় দিতে স্বাচ্ছন্দ বোধ করেন।দীর্ঘদিন ধরে লক্ষ্য করেছি তিনি তার সামর্থ্য অনুযায়ী গরীব ও অসহায় মানুষকে সাহায্য-সহযোগিতার পাশাপাশি গরীব অসুস্হ মানুষদের চিকিৎসার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ত্রান তহবীল থেকে অনুদান প্রদানের চেষ্টা করেন।মানব কল্যানে তার এমন মহৎ কর্ম সাধুবাদ পাওয়ার যোগ্য।আমার মত রাজনীতি বিমুখ মানুষের কাছে সরওয়ার হোসেনের এমন নিঃস্বার্থ মানব কল্যান রাজনীতির প্রতি শ্রদ্ধা বাড়বে তাতে কোন সন্দেহ নেই।

সরওয়ার হোসেন প্রমান করেছেন মানব কল্যানে মানুষের পাশে দাঁড়াতে দলের পদ-পদবী মুখ্য বিষয় নয় বরং একজন রাজনৈতিক কর্মীই যথেষ্ট যদি নিজের সদিচ্ছা থাকে। আমি কোন কালে সরওয়ার হোসেনের সমর্থিত রাজনৈতিক দলটির সাথে সম্পৃক্ত নই কিন্তু তিনি তার দলের একজন কর্মী হিসাবে সাধারন মানুষের কল্যানে যে গুরুত্বপুর্ণ ভুমিকা পালন করে চলেছেন এজন্য উনাকে স্যালুট জানাই।

বর্তমান চাওয়া-পাওয়ার রাজনৈতিক সমীকরনের এক বিপরীত চরিত্র সরওয়ার হোসেন। তাই আমি মনে করি সরওয়ার হোসেনই সাধারন জনগনের নেতা আর সাধারন মানুষও মনে করে জনাব সরওয়ার হোসেনই হচ্ছেন প্রকৃত জননেতা।



শেয়ার বোতাম এখানে
  • 36
    Shares

সমস্ত পুরানো খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  



themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin