বুধবার, ০৩ মার্চ ২০২১, ০৮:০৪ অপরাহ্ন

সামাদ-হুমায়নের পর তৃতীয় সিলেটি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন

সামাদ-হুমায়নের পর তৃতীয় সিলেটি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন


শেয়ার বোতাম এখানে

নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালনে আশাবাদি সিলেটবাসী

আহমেদ জামিল: দীর্ঘ ২৭ বছর পর অর্থমন্ত্রণালয় হাতছাড়া হলেও পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেয়ে আনন্দ-উচ্ছ্বাস বইছে সিলেটজুড়ে। বর্তমান সরকারের নতুন মন্ত্রীসভায় পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন সিলেট-১ আসনের সাংসদ ও অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের ছোট ভাই ড. এ কে আব্দুল মোমেন। তিনি সিলেটি হিসেবে তৃতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী। এর আগে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম পররাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন সুনামগঞ্জের কৃতিসন্তান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক আব্দুস সামাদ আজাদ ও পরবর্তীতে ১৯৮৪-৮৫ সালে জাতীয় সংসদে সিলেটের দ্বিতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন সিলেটের খ্যাতনামা কূটনীতিবিদ হুমায়ন রশিদ চৌধুরী। তিনি ১৯৯৬ থেকে ২০০১ পর্যন্ত জাতীয় সংসদের স্পীকারের দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৮৫’র পর আর আর কেউ ওই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পাননি। সামাদ আজাদ ও হুমায়ন রশিদের মত ড. মোমেনও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করবেন বলে আশাবাদি সিলেটের মানুষ।
এদিকে প্রথমবার এমপি নির্বাচিত হয়েই গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীত্ব পাওয়ায় আনন্দিত সিলেটবাসী। মোমেন ছাড়াও বৃহত্তর সিলেটের আরো ৪জন মন্ত্রী প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন। ড. এ কে আবদুল মোমেন সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর সিলেটে গুঞ্জন ছিল অর্থমন্ত্রী হওয়ার। বড় ভাই আবুল মাল আবদুল মুহিতের স্থলাভিষিক্ত হবেন তিনি এমন আলোচনা চলছিল সিলেটজুড়ে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত অর্থমন্ত্রী না হলেও পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের মতো গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেয়েছেন তিনি।
জাতিসংঘে দায়িত্ব পালনকালে ড. মোমেনের নেয়া উদ্যোগ সারাবিশ্বে প্রশংসিত হয়। তার কুটনৈতিক তৎপরতায় বর্হিবিশে^ বাংলাদেশের মুখ উজ্জ্বল হয়। সেই ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের গুরু দায়িত্ব তুলে দিয়েছেন তার কাঁধে। ড. মোমেন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পাওয়ায় সিলেটজুড়ে আনন্দ-উচ্ছ্বাস বইছে। তার হাত ধরে সিলেটের কাঙ্খিত উন্নয়ন সাধিত হবে বলে আশাপ্রকাশ করছেন সিলেটের মানুষ।
সিলেট মহানগর ছাত্রলীগ নেতা এমদাদুল হক মান্না বলেন, ড. মোমেন আমাদের গর্ব। বহিবিশ্বে তিনি আমাদের মুখ উজ্জল করেছেন। এবার গুরুত্বপূর্ণ এই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বশীল হিসেবে আরো অগ্রণী ভূমিকা পালন করবেন।
সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ সভাপতি হোসাইন আহমদ চৌধুরী বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের মন্ত্রীসভায় বরাবরই সিলেটিদের ভাল অবস্থান থাকে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও সিলেটের মানুষের প্রতি আন্তরিক। তার প্রচেষ্ঠায় সিলেটের মন্ত্রীরা অনেক উন্নয়নমুলক কাজ করেছেন। এবারের মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীরাও প্রধানমন্ত্রীর আস্থাভাজন হয়ে কাজ করবেন বলে আমি আশাবাদি।
আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান বলেন, অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব সিলেটি সাংসদের হাতে দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আমরা কৃতজ্ঞ। তিনি সিলেটের প্রতি আন্তরিক এটাই তার প্রমাণ। তিনি বলেন, ড. মোমেনের জন্য এই মন্ত্রণালয় অত্যন্ত ‘পারফেক্ট’। তিনি অত্যন্ত নিষ্ঠার হাতে দায়িত্ব পালন করে যাবেন বলে আমি আশাবাদি।
সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান বলেন, গুরুত্বপূর্ণ এই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব ড. মোমেনের হাতে দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ। তিনি বলেন, অতীতেও এই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব সিলেটিরা সৎ ও নিষ্ঠার সাথে পালন করেছেন। তিনিও তা অব্যাহত রাখবেন বলে আমি আশাবাদি।
সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ বলেন, বাংলাদেশের প্রথম পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন আব্দুস সামাদ আজাদ। পরবর্তীতে হুমায়ন রশিদ চৌধুরীও এই পদের দায়িত্ব পালন করেন। তাদের মতই অত্যন্ত ক্লিন ইমেজের মানুষ ড. একে আব্দুল মোমেন। একজন কুটনীতিক হিসেবেও তার ভালো খ্যাতি রয়েছে। আমি আশাবাদি আমাদের পূর্বের অভিভাকদের মত তিনিও এই দায়িত্ব পালন করে যাবেন।



শেয়ার বোতাম এখানে

সমস্ত পুরানো খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  



themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin