রবিবার, ১৩ Jun ২০২১, ০১:৪৭ অপরাহ্ন

সাময়িক স্থগিত হতে পারে বাংলাদেশ-চীন ভ্রমণ

সাময়িক স্থগিত হতে পারে বাংলাদেশ-চীন ভ্রমণ


শেয়ার বোতাম এখানে

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সব ধরনের প্রস্তুতি থাকলেও চীনে যাওয়া বা সেদেশ থেকে আসা সাময়িকভাবে স্থগিত করতে পারে বাংলাদেশ। এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে মঙ্গলবার (২৮ জানুয়ারি) আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক হবে।

রোববার (২৬ জানুয়ারি) সচিবালয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন বিভাগ ও অধিদপ্তর এবং অন্যান্য শাখার কর্মকর্তাদের এক জরুরি সভায় এ বিষয়ে আলোচনা হয়।

সভায় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, চীন ভ্রমণে নিরুৎসাহিত করা হয়েছে। করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সম্ভাব্য সব ধরণের প্রস্তুতি স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় নিয়েছে।

সভায় চীনে সম্প্রতি করোনা ভাইরাসের ছড়ানোর ব্যাপকতা নিয়ে আলোচনা হয়। রোগটি বর্তমানে কতটি দেশে পৌঁছে গেছে এবং কতজন আক্রান্ত হয়েছেন ও মারা গেছেন, সে বিষয়ে মন্ত্রী খোঁজ নেন। দেশের প্রতিটি বিমান বন্দর, নৌ-বন্দরসমূহ, স্থল বন্দরসমূহে স্বাস্থ্য পরীক্ষার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে বলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে জানান।

সভায় স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব বলেন, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয়, নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য মন্ত্রণালয়ের সমন্বয়ে একটি আন্তঃমন্ত্রণালয় জরুরি সভার প্রয়োজনীয়তা স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে জানালে মন্ত্রী এ বিষয়ে সহমত ব্যক্ত করেন। আগামী ২৮ জানুয়ারি বেলা ১২ টায় সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলোর সক্রিয় অংশগ্রহণে একটি আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা আয়োজনের নির্দেশ দেন।

বাংলাদেশ সোসাইটি অব মেডিসিনের সভাপতি অধ্যাপক ডা. আহমেদুল কবীর জানান, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত কোনো ব্যক্তির প্রাথমিক পর্যায়ে এই রোগ ধরা নাও পড়তে পারে। চীনে বহুসংখ্যক বাংলাদেশি শিক্ষার্থী পড়ালেখা করছে। সুতরাং তারা সবাই এখন ফিরতে গিয়ে এই ভাইরাসের জীবাণু বহন করে দেশে নিয়ে এলে তা আমাদের জন্য উদ্বেগের কারণ হতে পারে। কাজেই সাময়িক সময়ের জন্য বাংলাদেশ থেকে চীনে যাতায়াত ব্যবস্থা স্থগিত করার উদ্যোগ নেয়ার ব্যাপারে তিনি স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে অনুরোধ করেন।

এ ব্যাপারে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, চীন-বাংলাদেশের বাণিজ্যিক সম্পর্ক অনেক গভীর। দেশর বহুসংখ্যক মানুষ বাণিজ্যিক কারণে চীনে যাতায়াত করছে। সুতরাং এই ভয়াবহ ভাইরাস বাংলাদেশে যেকোনো উপায়ে চলে এলে এটি আমাদের জন্য বড় ক্ষতির কারণ হতে পারে। একারণে আগামী ২৮ জানুয়ারি আন্তঃমন্ত্রণালয়ের বৈঠকে বাংলাদেশ থেকে চীনে ও চীন থেকে বাংলাদেশে সকল ধরণের ভ্রমণ সাময়িকভাবে স্থগিত করার বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করা হবে।

এ প্রসঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রী তাঁর একটি আলাদা বিবৃতিতে দেশবাসীকে আতঙ্কিত না হতে অনুরোধ করেছেন এবং করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সম্ভাব্য সব ধরণের প্রস্তুতি স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় হাতে নিয়ে রেখেছে বলে জানিয়েছেন।

সভায় স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব মো. আসাদুল ইসলাম, স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব মো. আলী নূর, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ, বাংলাদেশ সোসাইটি অব মেডিসিনের সভাপতি অধ্যাপক ডা. আহমেদুল কবীরসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও চিকিৎসকগণ উপস্থিত ছিলেন।


শেয়ার বোতাম এখানে

সমস্ত পুরানো খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  



themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin