শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ১২:০৪ পূর্বাহ্ন



সিলেটের রাজনীতিবিদদের মধ্যে করোনার ছোবল

সিলেটের রাজনীতিবিদদের মধ্যে করোনার ছোবল


শুভ প্রতিদিন ডেস্ক:

বিশ্বব্যাপী করোনার মহামারি আকার ধারণ করা এই ভাইরাস সিলেটেও ছোবল আকার ধারণ করছে। সবশেষ রোববার সুনামগঞ্জের ৩৪ জন আর সিলেটের ৩৬ জন নিয়ে সিলেট বিভাগে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫৪৭ জন।

চিকিৎসক-ব্যাংকার, সাংবাদিক ও সরকারি কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন সেক্টরের মতো সিলেটের রাজনৈতিক অঙ্গনেও ছোবল বসিয়েছে করোনা ভাইরাস। আক্রান্ত হয়েছেন বেশ কয়েকজন রাজনৈতিক নেতা। সিলেটের অন্তত ১৫ জন রাজনৈতিক নেতা ও নেত্রীর এ পর্যন্ত করোনা শনাক্ত হয়েছে।

প্রতিদিনই আসছে নতুন নতুন রাজনৈতিক নেতার আক্রান্তের খবর। লকডাউনের সময়ে রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড বন্ধ থাকলেও অনেকেই বিপাকে পড়া মানুষজনকে সহায়তা করতে গিয়ে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তবে আক্রান্তদের কয়েকজন ইতোমধ্যে সুস্থও হয়ে ওঠেছেন।

আক্রান্ত অন্য রাজনৈতিক নেতাদের মধ্যে প্রায় সকলেই বাসায় আইসোলেশনে আছেন। কেবল সাবেক মেয়র ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য বদর উদ্দিন আহমদ কামরানের স্বাস্থ্যের অবনতি হলে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় বিমান বাহিনীর বিশেষ এয়ার এম্বুলেন্স যোগে সিলেট থেকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে তাকে সিলেট শামসুদ্দীন হাসপাতাল থেকে আকাশপথে রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল সিএমএইচে নেওয়া হয়েছে।

সিলেটে প্রথম করোনা শনাক্তকারী রাজনীতিবিদ হিসেবে গত ২১ মে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম নাদেল আক্রান্ত হন। এরপর গত ২৪ সিলেট সিটি করপোরেশনের ২০ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও আওয়ামী লীগ নেতা আজাদুর রহমান আজাদ করোনায় আক্রান্ত হন।

এদের পর বদরউদ্দিন আহমদ কামরানের স্ত্রী ও মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী আসমা কামরান, বর্তমান মেয়র ও বিএনপি নেতা আরিফুল হক চৌধুরীর স্ত্রী শ্যামা হক চৌধুরী, মহানগর শ্রমিক লীগের সভাপতি শাহরিয়ার কবীর সেলিম, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক দপ্তর সম্পাদক সাইফুল আলম রুহেল, সিলেট মহানগরীর ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ কামাল ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া মাসুক করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

এদের মধ্যে শফিউল আলম নাদেল ও আজাদুর রহমান আজাদ ইতোমধ্যে সুস্থ হয়ে ওঠেছেন। নাদেল বাসায় আইসোলেশনে থেকে ও আজাদ সিলেটের শহীদ শামসুদ্দিন হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হন তারা দু’জন।

কামরান ঢাকায় হাসপাতালে ভর্তি হলেও বাসায় আছেন তার স্ত্রী সিলেট মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসমা কামরান। গত ২৭ মে আসমা কামরানের করোনা শনাক্ত হয়।

বাসায় আইসোলেশনে আছেন বর্তমান মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর স্ত্রী শ্যামা হক চৌধুরীও। গত ২ জুন ওসমানী মেডিকেল কলেজের ল্যাবে নমুনা পরীক্ষায় তার করোনা শনাক্ত হয়।

এদিকে সবশেষ রোববার সুনামগঞ্জের ৩৪ জন আর সিলেটের ৩৬ জন নিয়ে সিলেট বিভাগে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫৪৭ জন। এরমধ্যে সিলেট জেলায় ৮৮৩ জন, সুনামগঞ্জে ৩০৩, হবিগঞ্জে ২০৮ এবং মৌলভীবাজারে ১৫২ জন রোগী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

অন্যদিকে সিলেট বিভাগের ৩৭৫ জন রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। এরমধ্যে সিলেট জেলায় ১০৯, সুনামগঞ্জে ৮০, হবিগঞ্জে ১২৪, মৌলভীবাজারে ৬২ জন রোগী করোনা জয় করে বাড়ি ফিরেছেন।

আর সিলেট বিভাগে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৩৪ জন। এরমধ্যে সিলেট জেলায় ২৫, সুনামগঞ্জে ৩, হবিগঞ্জে ২ এবং মৌলভীবাজারে ৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।


সমস্ত পুরানো খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  



themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin