সোমবার, ০১ মার্চ ২০২১, ০৪:১৮ পূর্বাহ্ন

সিলেটে অন্ধকারাচ্ছন্ন কুয়াশায় বিপর্যস্ত জনজীবন

সিলেটে অন্ধকারাচ্ছন্ন কুয়াশায় বিপর্যস্ত জনজীবন


শেয়ার বোতাম এখানে
  • 11
    Shares

সুলতান সুমন:

ঘন কুয়াশায় ঢাকা পড়েছে সিলেট। রোববার (২৪ জানুয়ারি) সন্ধ্যার পর থেকে বাড়তে থাকে কুয়াশা। রাত ৯টার পর থেকেই ঘন কুয়াশার চাদরে ঢাকা পড়ে পুরো জেলা। রাত ১১ টার পর থেকে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির মতো ঝরছে কুয়াশা। সামনে হাত পাতলে তাও দেখা যাচ্ছে না ঘন কুয়াশার কারণে। সিলেটের ১৩ টি উপজেলায় কুয়াশার সঙ্গে অনুভূত হচ্ছে হিমেল হাওয়া ও তীব্র শীত।

সরেজমিন শহরের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, রাত ১০টার মধ্যেই জনশূন্য হয়ে পড়েছে শহরের ব্যস্ত মোড়সমূহসহ বিভিন্ন অলিগলি। মধ্যরাত পর্যন্ত যেসব দোকানপাট খোলা থাকে তার অধিকাংশই বন্ধ। চারদিকে নিশ্চুপ-নিরবতা। কোথাও কোনো সাড়াশব্দ নেই।

ঘরের চালে বৃষ্টির ফোটার মত শব্দ শুনতে পাচ্ছেন শুধু তারাই যাদের মাথার ওপর রয়েছে কনক্রিটের ছাদের বদলে টিনের চালা। ঘন কুয়াশায় বিঘ্নিত হচ্ছে যান চলাচল। ফলে রোববার দিনে সিলেটের একাধিক উপজেলার কয়েকটি সড়কে হেডলাইট জ্বালিয়ে যান চলাচল করতে দেখা গেছে বলে জানিয়েছেন একাধিক সূত্র ।

সূত্র জানায়, সীমান্তবর্তী বিভিন্ন এলাকার নদ-নদীর অববাহিকায় ঘন কুয়াশাসহ শীতের তীব্রতা বেশি অনুভূত হচ্ছে। কনকনে ঠান্ডা আর হিমেল হাওয়ায় জনপদে বাড়িয়ে দিয়েছে শীত। হঠাৎ করে শীত শুরু হওয়ায় মানুষ চরম বিপাকে পড়ে।

এছাড়া গত কয়েকদিন ধরেই বেলা বাড়লেও দেখা মিলছে না সূর্যের। কুয়াশা ও শীতের তীব্রতা বেড়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছেন শ্রমজীবী ও ছিন্নমূল মানুষ।

গুগল সূত্রে জানা যায়, রোববার সকাল থেকে সিলেটের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস । যা মধ্য রাতে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নেমে আসে। আবহাওয়া অফিস সূত্র জানায়, বাতাসে জলীয়বাষ্পের প্রভাব। তাই তাপমাত্রা ওঠানামা করছে ১০ থেকে ১৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে। এক সপ্তাহ পর পরিস্থিতির আরও অবনতি হতে পারে।

বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতাল সূত্র জানিয়েছে, শীতের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে ঠান্ডাজনিত রোগে আক্রান্তের সংখ্যা। প্রতিদিনই ঠান্ডা জনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি হচ্ছেন শিশু ও বৃদ্ধরা।



শেয়ার বোতাম এখানে
  • 11
    Shares

সমস্ত পুরানো খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  



themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin