সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ০৭:৪৪ অপরাহ্ন



সিলেটে ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী পরিবার

সিলেটে ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী পরিবার


নবীন সোহেল: গত সিটি নির্বাচনকে ঘিরে সিলেটের আওয়ামী পরিবারে কিছুটা বিভক্তি দেখা দিয়েছিল। আসন্ন নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর দলীয় মনোনয়ন দৌড়েও নেতাকেন্দ্রিক হয়ে উঠেছিল সিলেটের আওয়ামী লীগ। কিন্তু নির্বাচনে দল থেকে নৌকার মনোনয়ন পান অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের সহোদর সাবেক রাষ্ট্রদূত ড. এ.কে মোমেন। এরপর থেকে সংগঠিত হতে থাকে ক্ষমতাসীন দলটি। জেলা আওয়ামী লীগ, মহানগর আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মিরা ঐক্যবদ্ধভাবে এক ব্যানারে দল ও দলের প্রার্থীর জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। আসন্ন নির্বাচন জাতীয় রাজনীতির জন্য একটি বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়ে তাঁরা মাঠ পর্যায়ের নেতাকর্মিদের সংগঠিত করছেন।

 

গত ২৮ নভেম্বর মনোনয়নপত্র দাখিল করতে তাঁর সাথে আসেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট লূৎফুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব শফিকুর রহমান চৌধুরী, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিনসহ যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। এছাড়াও অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত, ড. মোমেনের সহধর্মীনী সেলিনা মোমেনসহ পরিবারের সদস্যরাও আসেন। মনোনয়ন জমা দেয়ার পর থেকে প্রতিটি এলাকায় নেতাকর্মিদের সংগঠিত করা হয়েছে। এরপর থেকে নগরীর প্রতিটি পাড়া-মহল­ায় নিরলসভাবে একযোগে কাজ করছেন ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মিরা। ড. মোমেনও সকলকে সংগঠিত করতে দিনরাত নির্বাচনী এলাকায় চষে বেড়াচ্ছেন। নেতাকর্মিদের সাথে নিয়ে বিভিন্ন সামাজিক ও ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতাকর্মিদের সাথে মতবিনিময়ও করছেন। সাধারণ ভোটারদের সাথেও কুশল বিনিময় করছেন।

 

গত রোববার সিলেট নগরীর চালিবন্দরস্থ আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় বদর উদ্দিন আহমদ কামরান বলেন, সিলেটের আওয়ামী লীগের নেতাকর্মিরা ঐক্যবদ্ধ আছেন। আর আওয়ামী লীগ ঐক্যবদ্ধ থাকলে আমাদের বিজয় সুনিশ্চিত। ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগকে কেউ হারাতে পারবে না। তিনি উপস্থিত নেতা কর্মীদের বলেন, বঙ্গবন্ধুর কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল উন্নয়নসহ প্রতিটি ক্ষেত্রে দেশ এগিয়ে গেছে এই সরকার সফলতার কথা মানুষের ঘরে ঘরে পৌঁছে দিতে হবে।

 

একই অনুষ্ঠানে মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন বলেন, আগামী একাদশ নির্বাচন আমাদের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ আর এই চ্যালেঞ্জে আমাদের জিততে হবে আমাদের প্রত্যেক নেতা কর্মীকে একেক জন নৌকার প্রার্থী মনে কাজ করতে হবে।

 

ওই অনুষ্ঠানে দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থকদের উদ্দেশ্যে ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন জাতীয় রাজনীতির জন্য একটি বড় চ্যালেঞ্জ। এ নির্বাচনকে কোন অবস্থায়ই অবহেলার চোখে দেখা যাবে না। এ চ্যালেঞ্জে আমাদেরকে জয়ী হতে হবে। শেখ হাসিনার সুদৃড় নেতৃত্বে বাংলাদেশে বিগত ১০ বছরে যে উন্নয়ন হয়েছে তা অব্যাহত রাখতে নৌকা প্রতীক কে বিজয়ী করতে হবে। তা না হলে কঠিন অবস্থায় দেশের মানুষকে মোকাবেলা করতে হবে। তাই আগামী ৩০ ডিসেম্বর নৌকা প্রতীককে বিজয়ী করে প্রধানমন্ত্রীকে উপহার দিতে হবে। এতে সর্বস্তরের মানুষকে উন্নয়নের দিকে লক্ষ্য রেখে সব ভেদাভেদ বুলে গিয়ে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।

 

ইতিমধ্যে নির্বাচনী প্রচারণার গতি বাড়াতে মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরানকে আহবায়ক ও সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিনকে সদস্য সচিব করে মহানগর আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটিতে ঘোষণা করা হয়েছে। কমিটিতে মহানগর আওয়ামী লীগের কার্যকরী কমিটির সকল সদস্য, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি সাধারণ সম্পাদক ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের সভাপতি সাধারণ সম্পাদক আহবায়ক ও যুগ্ম আহবায়কে সদস্য করা হয়েছে।


সমস্ত পুরানো খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  



themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin