শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ০১:৩৮ অপরাহ্ন

সিলেটে ফাস্টফুড নির্ভরতায় বাড়ছে গ্যাস্ট্রিক রোগীর সংখ্যা

সিলেটে ফাস্টফুড নির্ভরতায় বাড়ছে গ্যাস্ট্রিক রোগীর সংখ্যা


শেয়ার বোতাম এখানে

চিকিৎসকের ব্যবস্থাপত্র ছাড়াই ওষুধ সেবন

মবরুর আহমদ সাজু:
ব্যস্ত জীবনযাত্রায় ফাস্টফুড নির্ভরতকায় যুগে গ্যাস্ট্রিক ও পেটের অসুখ এখন ঘরোয়া রোগ হয়ে দাড়িয়েছে। অনিয়ন্ত্রিত জীবনযাপনের কারণে গ্যাস্ট্রিক ধীরে ধীরে অভিশাপে পরিণত হচ্ছে। প্রায় প্রতিটি পরিবারের ছোট-বড় অনেকেই এই সমস্যায় ভূগছেন। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ঠিকমত খাবার না খাওয়া, খাবারে লবণের আধিক্য, অতিমাত্রায় লাল মাংস ও চর্বিযুক্ত খাবার গ্রহণের রোগের হার দিনদিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।
এদিকে বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থার হিসাবেও সারা দেশে গ্যাস্ট্রিকের ওষুধ বিক্রি হচ্ছে সবচেয়ে বেশি। তবে, শুধু গ্র্যাস্ট্রিক নয় সিলেট নগরের ফার্মেসিগুলোতে চার ধরনের ওষুধের বিক্রি ব্যাপক হারে বেড়েছে। প্রতিদিন বিক্রি হওয়া ওষুধের মধ্যে হৃদরোগ, ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ এবং গ্যাস্ট্রিক এই চার ধরনের ওষুধের বিক্রি ৮০শতাংশ।
বর্তমানে গ্যাসের সমস্যায় ভোগেন না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া দায়। ফাস্টফুড কালচারে অভ্যস্ত হয়ে পড়া, অনিয়ন্ত্রিত জীবনযাপন, ধূমপানসহ নানা কারণে গ্যাস-গ্যাস্ট্রিক প্রায় ঘরোয়া রোগ হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থার হিসাবেও দেশে গ্যাস্ট্রিকের ওষুধ বিক্রি হচ্ছে সবচেয়ে বেশি। যার অধিকাংশই বিক্রি হয় কোনো ধরনের ব্যবস্থাপত্র ছাড়াই।
অন্যদিকে বাইরের মুখরোচক খাবার বিশেষ করে বিভিন্ন অলিগলিতে গড়ে ওঠা ফাস্টফুডের দোকানের খাবার খেয়ে বাড়ছে রোগবালাই। শুধু শিশুরাই নয়, অনেক অভিভাবকেরও প্রিয় ফাস্টফুড। এসব খাবারে মেশানো হয় নানা ধরনের কেমিক্যাল। চিকিৎসক ও পুষ্টিবিদরা বলছেন, ফাস্টফুডে একদিকে যেমন অর্থের অপচয়, অন্যদিকে রয়েছে জটিল রোগের ঝুঁকি। এ অবস্থায় অস্বাস্থ্যকর খাবার না খাওয়ার পরামর্শ তাদের।
চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ঠিকমত খাবার না খাওয়া, খাবারে লবণের আধিক্য, অতিমাত্রায় লাল মাংস ও চর্বিযুক্ত খাবার গ্রহণ, জাঙ্কফুড বেশি খাওয়া, কায়িক পরিশ্রম কমে যাওয়া, খাবারে নানা রকম প্রিজারভেটিভের ব্যবহার ইত্যাদি কারণে এসব রোগের হার দিনদিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। এতে ফার্মেসিগুলোতে এসব রোগে ব্যবহৃত ওষুধগুলোর বিক্রি বেড়ে চলছে।
সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সামনে একাধিক ওষুধ ব্যবসায়ীর সাথে কথা বলে জানা গেছে, ফার্মেসিতে প্রতিদিন যেসব ওষুধ বিক্রি হয় তার মধ্যে হৃদরোগ, ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ এবং গ্যাস্ট্রিকের ওষুধের বিক্রি ৮০শতাংশ। আর ৪ ধরনের ওষুধের মধ্যে হৃদরোগের ওষুধের বিক্রি সবচেয়ে বেশি। তবে ডায়াবেটিস রোগের ওষুধের বিক্রিও বেড়েছে।
অন্যদিকে হাসপাতালের গ্যাস্ট্রোএন্টারলজি বিভাগের সামনে গ্যাস্ট্রিক রোগীর ভিড়ও নিত্যদিনের চিত্র। সেখানে চিকিৎসা নিতে আসা সিলেট এমসি কলেজের শিক্ষার্থী মইনুল ইসলাম বলেন, দীর্ঘদিন থেকে পেটে হালকা ব্যথা অনুভব করতাম। কিন্তু ফার্মেসি থেকে গ্যাসের ওষুধ খেলে আরাম পেতাম। দিন দিন এ সমস্যাটা একটু বেড়েছে। তাই ডাক্তারের শরণাপন্ন হয়েছি। লাইনে দাঁড়ানো অধিকাংশ রোগীই বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়াই বিভিন্ন গ্যাসের ওষুধ গ্রহণ করেছেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত কোনো সুরাহা না হওয়ায় ডাক্তারের কাছে এসেছেন।
মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী রাফা বলেন, ফাস্টফুড জাতীয় খাবারের লোভ সামলাতে পারি না বলে খেতে হয়। তবে এটা যে ক্ষতিকর সেটার জন্যে সবাই কে সচেতন হতে হবে।

নগরীর মির্জাজাঙ্গাল এলাকার বাসিন্দা রফিক আহমেদ জানান, ডায়াবেটিস, হৃদরোগ ও উচ্চ রক্তচাপ রোগে প্রতি মাসে তাকে ৩-৪ হাজার টাকার ওষুধ কিনতে হয়।
নগরীর জল্লারপাড়ের মুন্নি ফার্মেসির ব্যবসায়ী লিটন সরকার বলেন, প্রতিদিন ফার্মেসিতে যে পরিমাণ ওষুধ বিক্রি হয়, তৎমধ্যে এই চার ধরনের ওষুধের বিক্রি ৮০শতাংশ বেশি। আর এইসব ওষুধগুলো নগরীতেই বেশি বিক্রি হয় বলে জানান তিনি।
এসব বিষয়ে জানতে চাইলে সিলেটের রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ড. আরমান আহমেদ শিপলু বলেন, সিলেট হল মেজবানের শহর, দাওয়াতের শহর। গরুর মাংস, চর্বি জাতীয় খাবার, তেল ও ঝাল বেশি খাওয়ার কারণে হচ্ছে। যেমন শরীরের জন্য চিনি ক্ষতিকর, তেমনি তেল শরীরের জন্য আরও বেশি ক্ষতিকর। আর এক চামচ তেল শরীরে গিয়ে তিন চামচ চিনির পরিমাণ ক্ষতি হয়।
তিনি বলেন, ডায়াবেটিস রোগীরা চিনি না খেলেও তেল কিন্তু ঠিকই খায়। তারা বুঝতে পারে না যে তেল তিনগুণ বেশি শরীরে ক্ষতি হয়। সেই সাথে কালো ভুনা, নলা ও ঝোল রোগ বাড়ার অন্যতম কারণ।
সিলেট সিটি কর্পোরেশন প্র্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ জাহিদুল ইসলাম বলেন, বাইরের খাবারের প্রতি আজকাল মানুষের আগ্রহ বেড়েছে। শহরেও গড়ে উঠেছে বড় বড় রেস্তোরাঁ। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিভিন্ন অভিযানে যে ধরনের তথ্য পাওয়া গেছে তাতে খাবার গ্রহণে আমাদের অবশ্যই আরও সচেতন হতে হবে। এদিকে অতিমাত্রায় ফাস্টফুডে আসক্তির কারণে যে গ্যাস্টিক সমস্যা বাড়ছে একথা অস্বীকার করার উপায় নেই।



শেয়ার বোতাম এখানে

সমস্ত পুরানো খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  



themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin