বৃহস্পতিবার, ০৬ মে ২০২১, ১২:০৩ অপরাহ্ন

সিলেটে বিনা চিকিৎসায় রোগীদের মৃত্যুতে ক্ষুব্ধ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও তথ্যমন্ত্রী : ব্যবস্থা গ্রহনের কঠোর নির্দেশ

সিলেটে বিনা চিকিৎসায় রোগীদের মৃত্যুতে ক্ষুব্ধ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও তথ্যমন্ত্রী : ব্যবস্থা গ্রহনের কঠোর নির্দেশ


শেয়ার বোতাম এখানে

শুভ প্রতিদিন ডেস্ক:
সিলেটে ২ জন মহিলাসহ ৪জন রোগী বিনা চিকিৎসায় মারা যাবার ঘটনায় সিলেট ১ আসনের সংসদ সদস্য ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন তীব্র ক্ষোভ ও দু:খ প্রকাশ করেছেন। আর তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, চিকিৎসার সুযোগ থাকা সত্ত্বেও হাসপাতাল থেকে রোগী ফিরিয়ে দেয়া শাস্তিযোগ্য অপরাধ।

সিলেটে যেসব বেসরকারী হাসপাতাল রোগীদের চিকিৎসা সেবা দিচ্ছে না তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করতে সিলেটের দায়িত্বে নিয়োজিত পাট ও বস্ত্র মন্ত্রণালয়ের সচিব লোকমান হোসেন মিয়াকে কঠোর নির্দেশ দিয়ে চিঠি পাঠিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। শুক্রবার (৫ জুন) সিলেটের বন্দর বাজারের এক ব্যবসায়ী বিনা চিকিৎসায় মারা যাবার ঘটনা জানার সাথে সাথে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ চিঠি পাঠান।

চিঠিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সিলেটের বেসরকারী হাসপাতালগুলো নানা অজুহাতে কোন রোগী গ্রহণ করছেন না। ভর্তি বা চিকিত্সা প্রত্যাখ্যান করায় আজ দ্বিতীয় রোগী অ্যাম্বুলেন্সে মারা গেছেন। বিষয়টি নিয়ে সংশ্লিষ্ট স্টেকহোল্ডারদের সাথে একটি বৈঠক করুন। সাধারণ রোগীদের চিকিৎসা নিশ্চিত করার সরকারের যে স্পষ্ট নির্দেশ রয়েছে সেটি জানিয়ে দেন। সাধারণ ও গুরুতর রোগীদের চিকিৎসা প্রদানে অস্বীকারকারী হাসপাতালগুলোর লাইসেন্স প্রয়োজনে স্থগিত করার ব্যবস্থা গ্রহন করুন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরো বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চান না কেউ না খেয়ে মারা যাক কিংবা বিনা চিকিৎসায় মারা যাক। সুতরাং চিকিৎসা সেবার ক্ষেত্রে কোন অনিয়ম বরদাস্ত করা হবে না। এ বিষয়ে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে তিনি সিলেটের বিভাগীয় কমিশনারের সাথে কথা বলেছেন। একইসাথে সিলেটের জেলা প্রশাসককে ইমেইলও প্রেরণ করেছেন বলে জানা গেছে।

এদিকে তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ (২ জুন) দুপুরে রাজধানীতে বাংলাদেশ সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয় সভাকক্ষে সমসাময়িক বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেছেন, বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে স্বাস্থ্যসেবা পাওয়া দুরূহ হয়ে পড়েছে, যারা এই সময়ে রোগীদেরকে স্বাস্থ্যসেবা দেয়ার ক্ষেত্রে পিছ-পা হচ্ছে এবং তাদের অবহেলার কারণে রোগীরা মৃত্যুবরণ করছে, তারা আসলে শাস্তিযোগ্য অপরাধ করছে। আমি আশা করবো যে, বেসরকারি হাসপাতালগুলোসহ কোন হাসপাতালই এ ধরণের আচরণ করবে না। এখনই সময় আর্তমানবতার সেবায় হাতকে প্রসারিত করা।

আজকেও কাগজে দেখলাম, সিলেটে একে একে ছয়টি প্রাইভেট হাসপাতালে একজন রোগী গেছেন, তাকে কোন হাসপাতালে ভর্তি নেয়নি। সেই রোগী শেষে এম্বুলেন্সের মধ্যেই মৃত্যুবরণ করেছেন। এগুলো অত্যন্ত দুঃখজনক এবং প্রাইভেট বা যেকোন হাসপাতালের এ ধরণের আচরণ অগ্রহণযোগ্য।

হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করা হয় মানুষকে সেবা দেয়ার জন্য, মানুষকে সেবা না দিয়ে হাসপাতাল যদি হাত গুটিয়ে নেয়, সেটিকে তখন আর হাসপাতাল বলা যায় না উল্লেখ করে ড. হাছান বলেন, ‘আমি নিজেও ব্যথিত যে, প্রায়ই আমরা কাগজে ও অন্যান্য সংবাদ মাধ্যমে দেখতে পাচ্ছি- বিভিন্ন রোগীরা একটার পর আরেকটা হাসপাতালে যাচ্ছে, কিন্তু হাসপাতাল ভর্তি নিচ্ছে না।

এবিষয়ে সতর্কবার্তা দিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘সরকার এগুলো পর্যবেক্ষণ করছে, ইতোমধ্যেই স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়েছে, কেউ রোগীদেরকে স্বাস্থ্যসেবা দিতে অবহেলা করলে তাদের ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এখনও পর্যন্ত হুঁশিয়ারির মাধ্যমে তাদেরকে সেবামুখী করার চেষ্টা করা হলেও অবহেলার ঘটনা ক্রমাগত ঘটতে থাকলে অতি শিগগিরই কঠোর ব্যবস্থা নেবে সরকার।’



শেয়ার বোতাম এখানে

সমস্ত পুরানো খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  



themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin