সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০১:২৮ অপরাহ্ন


সিলেটে বোরো উৎপাদনে ‘ব্রেক’

সিলেটে বোরো উৎপাদনে ‘ব্রেক’


শেয়ার বোতাম এখানে

সাত্তার আজাদ
সিলেটে কৃষি উৎপাদনে এবার ব্রেক কষে ধরেছে স্থানীয় কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগ। আউশ ধান চাষের প্রতি কৃষকদের উৎসাহিত করতে এ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানালেন কৃষি কর্মকর্তারা। সরকারের পরিকল্পনা অনুযায়ি এ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।
সিলেটের প্রতি বছর বোরো আবাদের লক্ষ্যমাত্রা বিগত বছরের চেয়ে বেশি করা হয়। কিন্তু এবার বোরো চাষের লক্ষ্যমাত্রা না বাড়িয়ে উৎপাদন কমানোর চেষ্টা করছে সিলেট কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর। ফলে এবার বোরো আবাদ না বাড়িয়ে গতবারের চেয়ে কম করা হয়েছে। বিগত বছরের উৎপাদনের চেয়ে পরের বছর চাষাবাদ বাড়ানোই হল লক্ষ্যমাত্রা। কিন্তু বোরো চাষাবাদে সে লক্ষমাত্রা এবার গত বছরের চেয়ে কমিয়ে আনা হয়েছে। গত বছর সিলেট বিভাগে বোরো চাষাবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয় ৪ লাখ ৭৭ হাজার ৮৬৯ হেক্টর জমিতে। অবশ্য প্রতিকূল আবহাওয়ার কারণে শেষ পর্যন্ত আবাদ হয় ৪ লাখ ৭২ হাজার ৮২১ হেক্টর জমি। বিরূপ আবহাওয়ায় পড়ে ৫ হাজার ৪৮ হেক্টর জমির বোরো চাষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল।
নিয়ম অনুযায়ী গতবারের চেয়ে এবার বেশি জমিতে বোরো আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করার কথা। কিন্তু সিলেট কৃষি বিভাগ আউশ চাষের উপর জোর দিয়ে বোরোর লক্ষ্যমাত্রা গতবারের কাছাকাছি রেখেছে। এবছর সিলেট বিভাগের চার জেলায় ৪ লাখ তিন হাজার হেক্টর জমিতে বোরো চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়। এ পর্যন্ত লক্ষ্যমাত্রার ৯৯ দশমিক ৯৭ ভাগ অর্জিত হয়েছে। কৃষি বিভাগ আশা করছে আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে এবং কৃষকরা নিশ্চিন্তে বোরো কাটতে পারলে উৎপাদন হবে ১৮ লাখ ৬৪ হাজার ২০৬ মেট্রিক টন ধান। যা গত বারের চেয়ে এবার ১৩ হাজার ৬০৮ মেট্রিক টন কম হবে। গত বছর উৎপাদন হয়েছিল ১৮ লাখ ৭৭ হাজার ৮১৪ মেট্রিক টন ধান। গত বারের চেয়ে এবারে বোরোর ঘাটতি আউশ চাষাবাদে পুরণ করা হবে।
সিলেট কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ পরিচালক কৃষিবিদ মজুমদার মো. ইলিয়াস জানালেন, সরকারের নির্দেশনাতেই এবার বোরো আবাদে ব্রেক কষতে হয়েছে। কারণ মানুষ অবাদে বোরো আবাদ করে। প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে কৃষকরা আশানুরূপ ফলন ঘরে তুলতে পারে না। এদিকে প্রাকৃতিক নিয়মে আউশ চাষ করে সহজে ভালো ফলন ঘরে তোলা সম্ভব। দুর্যোগকালীন সময়ের আগে এই ফসল ঘরে তোলা যায় বলে ক্ষতির পরিমাণ কম থাকে। তাই আমরা বেশি করে আউশ চাষাবাদে কৃষকদের উৎসাহিত করছি। তাই এবার বোরো চাষের লক্ষ্যমাত্রা বাড়ানো হয়নি। ধীরে ধীরে কমিয়ে আনা হবে।


শেয়ার বোতাম এখানে





LoveYouZannath
© All rights reserved © 2020 Shubhoprotidin